স্বাধীনতার স্তবগান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
Ὕμνος εἰς τὴν Ἐλευθερίαν
Ýmnos is tin Eleftherían
বাংলা: স্বাধীনতার স্তবগান বা মুক্তির স্তবগান
Solomos portrait 4.jpg
দিওন্যসিওস সলোমস, জাতীয় সঙ্গীত লেখক

 গ্রিস এবং  সাইপ্রাস
-এর জাতীয় সঙ্গীত

কথা দিওন্যসিওস সলোমস, ১৮২৩
সুর নিকোলাওস মান্টযারোস
গ্রহণের তারিখ ১৮৬৫ গ্রিস কর্তৃক[১]
১৯৬৬ সাইপ্রাস কর্তৃক[২]
সঙ্গীতের নমুনা

স্বাধীনতার স্তবগান বা মুক্তির স্তবগান[১] (গ্রিক ভাষায়: Ύμνος εις την Ελευθερίαν, Ýmnos is tin Eleftherían উচ্চারিত [ˈim.nos is tin elefˈθeri.an]) গ্রিস এবং সাইপ্রাসের জাতীয় সঙ্গীত। এটি ১৫৮টি স্তবক সম্পূর্ণ একটি কবিতা, যা ১৮২৩ সালে দিওন্যসিওস সলোমস লিখে ছিলেন। এই গানের সুর দিয়েছেন নিকোলাওস মান্টযারোস। পাঠ্য দৈর্ঘ্যের দিক থেকে এটি বিশ্বের দীর্ঘতম জাতীয় সঙ্গীত।[৩] ১৮৬৫ সালে, প্রথম তিনটি স্তবক (এবং পরে প্রথম দুই) আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রিস এবং ১৯৬৬ সালে, সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্রের জাতীয় সঙ্গীত হিসেবে গ্রহণ করা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সাইপ্রাস গ্রিকতুর্কিদের একটি দ্বি-জাতীয় সম্প্রদায়। যেখানে গ্রিকরা সংখ্যাগরিষ্ঠ এবং ক্ষমতাসীন সরকার। যখন সাইপ্রাস ১৯৬০ সালে গ্রেট ব্রিটেন থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা করা হয়েছিল, তখন নতুন দেশের সংবিধানে অন্যান্য জাতীয় প্রতীক হিসাবে পতাকা সন্নিবেশিত হয়েছিল। কিন্তু সেখানে কোনো জাতীয় সঙ্গীত উল্লেখ ছিল না। কমিউনিটি কেউই একটি জাতীয় সঙ্গীত ব্যপারে অনেক বিতর্ক পরেও একমত হতে পারে্নি। বিদেশী রাষ্ট্র পরিদর্শনের সময়, পদযাত্রাতে বিভিন্ন যন্ত্রসংগীত ব্যবহৃত হয়। ১৬ই নভেম্বর, ১৯৬৬ সালে একতরফাভাবে সরকারের গ্রিক সদস্যদের (তুর্কি সদস্যরা ইতিমধ্যে এই পয়েন্ট সরকার বর্জন করেছিলেন) দ্বারা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, যে গ্রিক জাতীয় সঙ্গীত হবে সাইপ্রাস জাতীয় সঙ্গীত। তুর্কি সম্প্রদায়ের একে স্বীকৃতি দেয় না এবং এর পরিবর্তে তাদের স্বঘোষিত জাতির জন্য তুর্কি জাতীয় সঙ্গীত ব্যবহার করে।[৪]

দিওন্যসিওস সলোমস ১৮২৩ সালে জাকিনথোসে শহরে সঙ্গীত লিখেন এবং এর এক বছর পরে মিসোলোগি শহরে এটি ছাপা হয়। স্তবগানটি গীতিনাট্য সুরকার নিকোলাওস মান্টযারোস ১৮৬৫ সালে সঙ্গীত সেট করেন, যা দুই গায়কদলসম্বন্ধীয় সংস্করণ। দীর্ঘতমটি সম্পূর্ণ কবিতা জন্য এবং সংক্ষিপ্তটি প্রথম দুই স্তবকের জন্য। পরেরটি গ্রিসের জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে গৃহীত করা হয়েছে। গ্রিক জাতীয় সঙ্গীতটি ১৯৬৬ সালে মন্ত্রিপরিষদের আদেশে সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্রের জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে গৃহীত হয়।

গানের কথা এবং অনুবাদ[সম্পাদনা]

গানের কথা গ্রিক ভাষায় গ্রিক ভাষার উচ্চরণ ইংরেজি অনুবাদ
প্রথম স্তবক

Σε γνωρίζω από την κόψη
του σπαθιού την τρομερή,
σε γνωρίζω από την όψη
που με βιά μετράει την γη.

Se gnorizo apo tin kopsi
tou spathiou tin tromeri,
se gnorízo apo tin opsi,
pou me via metrai tin gi.

I shall always recognise you
By the dreadful sword you hold,
As the earth, with searching vision,
You survey, with spirit bold.

দ্বিতীয় স্তবক

Απ’ τα κόκκαλα βγαλμένη
των Ελλήνων τα ιερά,
και σαν πρώτα ανδρειωμένη,
χαίρε, ω χαίρε, Ελευθεριά!
και σαν πρώτα ανδρειωμένη,
χαίρε, ω χαίρε, Ελευθεριά!
και σαν πρώτα ανδρειωμένη,
χαίρε, ω χαίρε, Ελευθεριά!

Ap’ ta kokkala vgalmeni
ton Ellinon ta iera,
kai san prota andriomeni,
chere, o chere, Eleftheria!
kai san prota andriomeni,
chere, o chere, Eleftheria!
kai san prota andriomeni,
chere, o chere, Eleftheria!

Twas the Greeks of old whose dying
Brought to birth our spirit free.
Now, with ancient valour rising,
Let us hail you, oh Liberty!
Now, with ancient valour rising,
Let us hail you, oh Liberty!
Now, with ancient valour rising,
Let us hail you, oh Liberty!

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "জাতীয় সঙ্গীত"। www.presidency.gr। আসল থেকে ১০ই এপ্রিল, ২০১১-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ৩০শে মে, ২০১১ 
  2. "সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্সি - জাতীয় সঙ্গীত"। সংগৃহীত ১৪ই ফেব্রুয়ারি, ২০১১ 
  3. "Greece - Hymn to Liberty"। NationalAnthems.me। সংগৃহীত ২০১১-১১-০২ 
  4. গ্রিস এবং সাইপ্রাসের জাতীয় সঙ্গীতের ইতিহাস, nationalanthems.info

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]