সরল ছন্দিত স্পন্দন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
চিরায়ত বলবিদ্যা

নিউটনের দ্বিতীয় সূত্র
চিরায়ত বলবিদ্যার ইতিহাস

কোন পর্যায়বৃত্ত গতিসম্পন্ন বস্তুর গতি যদি সরলরৈখিক হয়,এর ত্বরন সাম্যাবস্থা থেকে সরণ এর সনানুপাতিক হয় এবং এর দিক যদি সর্বদা সাম্যাবস্থান অভিমুখী হয় তবে ওই বস্তুকণা র গতিকে সরল ছন্দিত স্পন্দন বলে , যেমন একটি স্প্রিং এর একপ্রান্তে একটি বস্ত বেধে ঝুলিয়ে একে সামান্য টেনে ছেড়ে দেয়া হলে তাতে সরল ছন্দিত স্পন্দনের সৃষ্টি হয়। এছাড়াও সরল দোলকের গতিও সরল ছন্দিত স্পন্দনের উৎকৃষ্ট উদাহরণ।

একমাত্রিক সরল ছন্দিত স্পন্দনে স্পন্দিত কনার উপর ক্রিয়ারত বলের মান নিম্মোক্ত ব্যবকলনীয় সমীকরণ দ্বারা প্রকাশ করা হয়ঃ

এখানে m হল স্পন্দনশীল কণার ভর, x সাম্যবস্থা থেকে এর সরণ , এবং k হল স্প্রিং ধ্রুবক।

সরল ছন্দিত স্পন্দন গতির বিভিন্ন দশা, একটি বৃত্তের মাধ্যমে প্রকাশ করা যায়

বিভিন্ন প্রকার তরঙ্গ যেমন শব্দ, তড়িত চৌম্বক তরঙ্গ, পর্যাযবৃত্ত তড়িৎ প্রবাহ ইত্যাদির গতি প্রকৃতির আলোচনায় সরল ছন্দিত স্পন্দন গতির পাঠ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এদেরকে সরল ছন্দিত স্পন্দন গতির সমীকরণ দ্বারা প্রকাশ করা যায়।

সরল ছন্দিত স্পন্দনের বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

(১) এটি একটি পর্যাবৃত্ত গতি

(২) এটি একটি স্পন্দন গতি

(৩) এটি একটি সরলরৈখিক গতি

(৪) যে কোন সময়ে ত্বরণের মান সাম্যাবস্থান থেকে সরণের মানের সমানুপাতিক

(৫) ত্বরণ সর্বদা একটি নির্দিষ্ট বিন্দু অভিমূখী

(৬)একটি নির্দিষ্ট সময় পরপর এই গতি বিপরীতমুখী হয়।

(৭)ত্বরণ সরণের বিপরীতমুখী।

(৮)ত্বরণ বস্তু কণাটির মধ্য অবস্থান অভিমুখী।