মৃণাল সেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মৃণাল সেন
Mrinal-sen.jpg
জন্ম(১৯২৩-০৫-১৪)১৪ মে ১৯২৩
মৃত্যুডিসেম্বর ৩০, ২০১৮(2018-12-30) (বয়স ৯৫)
মৃত্যুর কারণবার্ধক্যজনিত অসুখ
জাতীয়তাভারতীয়
নাগরিকত্বভারত
পেশা
  • চলচ্চিত্র পরিচালক
  • লেখক
  • চিত্রনাট্যকার
কার্যকাল১৯৫৫-২০০২
আদি নিবাসফরিদপুর
দাম্পত্য সঙ্গীগীতা সোম (বি. ১৯৫২; মৃ. ২০০৭)
পুরস্কারপদ্মভূষণ, দাদাসাহেব ফালকে
ওয়েবসাইটmrinalsen.org

মৃণাল সেন (১৪ মে ১৯২৩ - ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮) ছিলেন প্রখ্যাত ভারতীয় বাঙালি চলচ্চিত্র পরিচালক, চিত্রনাট্যকার ও লেখক।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯২৩ সালের ১৪ মে মৃণাল সেন তৎকালীন ব্রিটিশ ভারত পূর্ব বঙ্গের (বর্তমান বাংলাদেশ) ফরিদপুরের একটি শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ফরিদপুরে থাকাকালীন সময়ে তিনি সেখানেই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষা সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি পড়াশোনার জন্য কলকাতায় আসেন এবং স্কটিশ চার্চ কলেজ এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যা পড়াশোনা করেন। ছাত্রাবস্থায় তিনি কমিউনিস্ট পার্টির সাংস্কৃতিক শাখার সঙ্গে যুক্ত হন। যদিও তিনি কখনও কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য হন নি। চল্লিশের দশকে তিনি সমাজবাদী সংস্থা আইপিটিএর (ইন্ডিয়ান পিপ্‌লস থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশন) সঙ্গে যুক্ত হন এবং এর মাধ্যমে তিনি সমমনভাবাপন্ন মানুষদের কাছাকাছি আসেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করবার পর তিনি একজন সাংবাদিক, একজন ওষুধ বিপননকারী এবং চলচ্চিত্রে শব্দ কলাকুশলী হিসাবে কাজ করেন।

ছবি পরিচালনা[সম্পাদনা]

১৯৫৫ সালে মৃণাল সেনের প্রথম পরিচালিত ছবি রাত-ভোর মুক্তি পায়। এই ছবিটি বেশি সাফল্য পায় নি। তার দ্বিতীয় ছবি নীল আকাশের নীচে তাকে স্থানীয় পরিচিতি এনে দেয়। তার তৃতীয় ছবি বাইশে শ্রাবন থেকে তিনি আন্তর্জাতিক পরিচিতি পান। ১৯৬৯ সালে তার পরিচালিত ছবি ভুবন সোম মুক্তি পায়। এই ছবিতে বিখ্যাত অভিনেতা উৎপল দত্ত অভিনয় করেছিলেন। এই ছবিটি অনেকের মতে মৃণাল সেনের শ্রেষ্ঠ ছবি। তার কলকাতা ট্রিলোজি অর্থাৎ ইন্টারভিউ (১৯৭১), কলকাতা ৭১ (১৯৭২) এবং পদাতিক (১৯৭৩) ছবি তিনটির মাধ্যমে তিনি তৎকালীন কলকাতার অস্থির অবস্থাকে তুলে ধরেছিলেন। মধ্যবিত্ত সমাজের নীতিবোধকে মৃণাল সেন তুলে ধরেন তার খুবই প্রশংসিত দুটি ছবি এক দিন প্রতিদিন (১৯৭৯) এবং খারিজ (১৯৮২) এর মাধ্যমে। খারিজ ১৯৮৩ সালের কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বিশেষ জুরি পুরস্কার পেয়েছিল। ১৯৮০ সালের চলচ্চিত্র আকালের সন্ধানে। এই ছবিতে দেখানো হয়েছিল একটি চলচ্চিত্র কলাকুশলীদলের একটি গ্রামে গিয়ে ১৯৪৩ খ্রীষ্টাব্দের দুর্ভিক্ষের উপর একটি চলচ্চিত্র তৈরির কাহিনী। কিভাবে ১৯৪৩ এর দুর্ভিক্ষের কাল্পনিক কাহিনী মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় সেই গ্রামের সাধারণ মানুষদের সাথে সেটাই ছিল এই চলচ্চিত্রের সারমর্ম। আকালের সন্ধানে ১৯৮১ সালের বার্লিন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বিশেষ জুরি পুরস্কার হিসাবে রুপোর ভালুক জয় করে। মৃণাল সেনের পরবর্তীকালের ছবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য মহাপৃথিবী (১৯৯২) এবং অন্তরীন (১৯৯৪)। এখনও অবধি তার শেষ ছবি আমার ভুবন মুক্তি পায় ২০০২ সালে।[১]

মৃণাল সেন বাংলা ভাষা ছাড়াও হিন্দি, ওড়িয়া ও তেলেগু ভাষায় চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। ১৯৬৬ সালে ওড়িয়া ভাষায় নির্মাণ করেন মাটির মনীষ, যা কালীন্দিচরণ পাণিগ্রাহীর গল্প অবলম্বনে নির্মিত হয়। ১৯৬৯ এ বনফুলের কাহিনী অবলম্বনে হিন্দি ভাষায় নির্মাণ করে ভুবন সোম। ১৯৭৭ সালে প্রেম চন্দের গল্প অবলম্বনে তেলেগু ভাষায় নির্মাণ করেন ওকা উরি কথা। ১৯৮৫ সালে নির্মাণ করেন জেনেসিস, যা হিন্দি, ফরাসি ও ইংরেজি তিনটি ভাষায় তৈরি হয়।[২]

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

শিরোনাম বছর ভাষা হিসেবে কৃতিত্ব টিকা সূত্র
পরিচালক চিত্রনাট্যকার প্রযোজক অভিনেতা অন্যান্য
রাত-ভোর ১৯৫৫ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না হ্যাঁ সাদাকালো
নীল আকাশের নীচে ১৯৫৮ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
বাইশে শ্রাবণ ১৯৬০ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
পুনশ্চ ১৯৬১ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
অবশেষে ১৯৬৩ বাংলা হ্যাঁ না না না না সাদাকালো
প্রতিনিধী ১৯৬৪ বাংলা হ্যাঁ না না না না সাদাকালো
আকাশ কুসুম ১৯৬৫ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
কাঁচ কাটা হীরে ১৯৬৫ হিন্দি না হ্যাঁ না না না সাদাকালো
মাটির মনিষা ১৯৬৬ ওড়িয়া হ্যাঁ না না না না সাদাকালো
জোরাদিঘির চৌধুরী পরিবার ১৯৬৬ ওড়িয়া না হ্যাঁ না না না সাদাকালো
ভুবন সোম ১৯৬৯ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
ইন্টারভিউ ১৯৭০ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
এক আধুরি কাহানি ১৯৭১ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
কলকাতা ৭১ ১৯৭২ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
পদাতিক ১৯৭৩ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
কোরাস ১৯৭৪ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
মৃগয়া ১৯৭৬ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
ওকা উরি কাথা ১৯৭৭ তেলুগু হ্যাঁ না না না না সাদাকালো
পরশুরাম ১৯৭৮ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
এক দিন প্রতিদিন ১৯৭৯ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না সাদাকালো
আকালের সন্ধানে ১৯৮০ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
চলচ্চিত্র ১৯৮১ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না সাদাকালো
খারিজ ১৯৮২ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না রঙিন
কান্দাহার ১৯৮৩ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ না না না রঙিন
জেনেসিস ১৯৮৬ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না রঙিন
এক দিন আচানক ১৯৮৯ হিন্দি হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না রঙিন
মহাপৃথিবী ১৯৯১ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না রঙিন
অন্তরীণ ১৯৯৩ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না রঙিন
অন্তরীণ ১৯৯৩ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না না রঙিন
আমার ভুবন ২০০২ বাংলা হ্যাঁ হ্যাঁ না না না রঙিন

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

শিরোনাম বছর চরিত্র ভাষা চ্যানেল টিকা সূত্র
ইচ্ছেপূরণ ১৯৭০ পরিচালক বাংলা সাদাকালো, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোটোগল্প অবলম্বনে
তাযবির আপনা আপনি ১৯৮৪ পরিচালক হিন্দি দূরদর্শন রঙিন, স্বল্পদৈর্ঘ্য
অপরাজিত ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
কাভি দূর কাভি পাস ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
সম্ভার ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
আয়না ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
রবিবার ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
আজকাল ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
দো বাহানে ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
জিৎ ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
সালগিরা ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
সাওয়াল ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
আজনবি ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক
দশ সাল বাদ ১৯৮৬-৮৭ পরিচালক হিন্দি ভারতীয় টেলিভিশন রঙিন, ১৩ পর্বের ধারাবাহিক

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

চিত্রনাট্য[সম্পাদনা]

  • দ্য রুইন্স (১৯৮৪, ইংরেজি, সীগাল বুক্‌স)
  • অকালের সন্ধানে (১৯৮২, বিভব)
  • ইন সার্চ অব ফেমিন (১৯৮৫, ইংরেজি, সীগাল বুক্‌স)
  • অন্তরীণ (১৯৯৭, বিতর্ক)
  • দ্য অ্যাবসেন্স ট্রিলজি (১৯৯৯, সীগাল বুক্‌স)
  • চিত্রনাট্য (২০০৪, পুনশ্চ)
  • আমার ভুবন (২০০৪, দে'জ পাবলিশিং)

মুত্যু[সম্পাদনা]

মৃণাল সেন ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসের ৩০ তারিখ রবিবার সকালে নিজ বাসভবনে ৯৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।[৩]

পুরস্কার ও সম্মান[সম্পাদনা]

মৃণাল সেন পরিচালিত চলচ্চিত্রগুলি প্রায় সবকটি বড় চলচ্চিত্র উৎসব থেকে পুরস্কার জয় করেছে। ভারত এবং ভারতের বাইরের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় তাকে সাম্মানিক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করেছে। তিনি ইন্টারন্যাশন্যাল ফেডারেশন অফ দি ফিল্ম সোসাইটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন।

  • ১৯৮১ সালে তিনি ভারত সরকার দ্বারা পদ্মভূষণ পুরস্কার লাভ করেন।
  • ২০০৫ সালে তিনি দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার পান।
  • তিনি ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ অবধি ভারতীয় সংসদের সাম্মানিক সদস্যপদ লাভ করেন।
  • ফরাসি সরকার তাকে কম্যান্ডার অফ দি অর্ডার অফ আর্টস অ্যান্ড লেটারস (Ordre des Arts et des Lettres ) সম্মানে সম্মানিত করেন। এই সম্মান ফ্রান্সের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান।
  • ২০০০ সালে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তাকে অর্ডার অফ ফ্রেন্ডশিপ সম্মানে ভূষিত করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সেন, শিলাদিত্য (১ জানুয়ারি ২০১৫)। মৃণাল সেনের ফিল্মযাত্রা। কলকাতা। আইএসবিএন 978-8189323875 
  2. মৃণাল সেন; আশরাফুল হক; দৈনিক প্রথম আলো; মে ১৪, ২০০৯; পৃষ্ঠা ২৬।
  3. আইই বাংলা বিনোদন ডেস্ক (৩০ ডিসেম্বর ২০১৮)। "মৃণাল সেনের জীবনাবসান"The Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • প্রোফাইল্‌স: ফাইভ ফিল্মমেকার ফ্রম ইন্ডিয়া (শম্পা ব্যানার্জি, ১৯৮৫, ইংরেজি, ফেস্টিভাল অব ইন্ডিয়া, আইএসবিএন ৯৭৮৮১২০১০০০৭৭)
  • মৃণাল সেন (ডেভিড ফেরারিও, ১৯৮৩, ইতালিয়, ফেস্টিভাল অব ইন্ডিয়া)
  • মৃণাল সেন (এড প্রলয় সূ, ১৯৮৭, বানিশিল্প)
  • টেন ডেইস ইন ক্যালক্যাটা - অ্যা পোর্ট্রেট অব মৃণাল সেন (রাইনহার্ড হাউফ, ১৯৮৭, ইংরেজি, সীগাল বুক্‌স, আইএসবিএন ৯৭৮৮১৭০৪৬০৩৯৮)
  • কলকাতা ৭১ - মুক্তির কুুড়ি বছর (দেবশিষ সেনগুপ্ত, ১৯৯২)
  • চেসিং দ্যা ট্রুথ (জন ডব্লু হুড, ১৯৯৩, ইংরেজি, সীগাল বুক্‌স, আইএসবিএন ৯৭৮৮১৭০৪৬১১৩৫)
  • দ্য ম্যাভেরিক মায়েস্ট্রো: মৃণাল সেন (দীপঙ্কর মুখোপাধ্যায়, ১৯৯৫, ইংরেজি, ইন্ডুস, আইএসবিএন ৯৭৮৮১৭২২৩২১৩৯)
  • মৃণাল সেন (প্রলয় সূ, ১৯৯৮)
  • দ্য এনিমি উইদিন (সুমিতা এস চক্রবর্তী, ২০০০, ইংরেজি, ফ্লিক্স বুক্‌স, আইএসবিএন ৯৭৮০৯৪৮৯১১৫৭৬)
  • মৃণাল সেন: ওভার টেন ইয়ার্স (সমিক বন্দ্যোপাধ্যায়, ২০০৩, ইংরেজি, সীগাল বুক্‌স, আইএসবিএন ৯৭৮৮১৭০৪৬২৪২২)
  • মৃণাল সেন: দ্য সারভাইভর (সোমা এ চ্যাটার্জি, ২০০৩, ইংরেজি, রুপা, আইএসবিএন ৯৭৮৮১২৯১০১৯৮৩)
  • সেন্স অ্যান্ড সেন্সিবিলিটি (প্রদীপ বিশ্বাস, ২০০৬, ইংরেজি, দাশগুপ্ত অ্যান্ড কোং প্রাইভেট লিমিটেড)
  • মৃণাল সেন: সিক্সটি ইয়ার্স ইন সার্চ অব সিনেমা (দীপঙ্কর মুখোপাধ্যায়, ২০০৯, ইংরেজি, হারপারকলিন্স, আইএসবিএন ৯৭৮৯৩৫১৩৬০৪৮৩)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]