ফাবিও এনরিকে তাভারেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফাবিনিয়ো
Fabinho (43934382122) (cropped).jpg
২০১৮ সালে লিভারপুলের হয়ে ফাবিনিয়ো
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ফাবিও এনরিকে তাভারেস[১]
জন্ম (1993-10-23) ২৩ অক্টোবর ১৯৯৩ (বয়স ২৯)
জন্ম স্থান কাম্পিনাস, ব্রাজিল[২]
উচ্চতা ১.৮৮ মিটার (৬ ফুট ২ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান মধ্যমাঠের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান দল
লিভারপুল
জার্সি নম্বর
যুব পর্যায়
0000–২০১২ ফ্লুমিনেন্সে
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০১২ ফ্লুমিনেন্সে (০)
২০১২–২০১৫ রিও আভে (০)
২০১২–২০১৩রিয়াল মাদ্রিদ বি (ধার) ৩০ (২)
২০১৩রিয়াল মাদ্রিদ (ধার) (০)
২০১৩–২০১৫মোনাকো (ধার) ৬২ (১)
২০১৫–২০১৮ মোনাকো ১০৫ (২২)
২০১৮– লিভারপুল ১১৫ (৮)
জাতীয় দল
২০১৫–২০১৬ ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২৩ (১)
২০১৫– ব্রাজিল ২৭ (০)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ০৪:১৬, ২৮ আগস্ট ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ০৪:১৬, ২৮ আগস্ট ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

ফাবিও এনরিকে তাভারেস (পর্তুগিজ: Fabinho; জন্ম: ২৩ অক্টোবর ১৯৯৩; ফাবিনিয়ো নামে সুপরিচিত) হলেন একজন ব্রাজিলীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়। তিনি বর্তমানে ইংরেজ ক্লাব লিভারপুল এবং ব্রাজিল জাতীয় দলের হয়ে মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন। তিনি মূলত রক্ষণাত্মক মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেললেও মাঝেমধ্যে কেন্দ্রীয় রক্ষণভাগের খেলোয়াড় এবং ডান পার্শ্বীয় মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন।[৩][৪]

ব্রাজিলীয় ফুটবল ক্লাব ফ্লুমিনেন্সের যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে ফাবিনিয়ো ফুটবল জগতে প্রবেশ করেছেন এবং এই দলের হয়ে খেলার মাধ্যমেই তিনি ফুটবল খেলায় বিকশিত হয়েছেন। ২০১২ সালে, ব্রাজিলীয় ক্লাব ফ্লুমিনেন্সের মূল দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছেন; ফ্লুমিনেন্সের হয়ে এক মৌসুম অতিবাহিত করার পর তিনটি ক্লাবের হয়ে ধারে খেলার পর ২০১৫–১৬ মৌসুমে তিনি প্রায় ৬ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ফরাসি ক্লাব মোনাকোয় যোগদান করেছেন।[৫] মোনাকোর হয়ে তার দ্বিতীয় মৌসুমে তিনি লিওনার্দো জারদিমের অধীনে ২০১৬–১৭ লিগ ১-এর শিরোপা জয়লাভ করেছেন। মোনাকোয় তিন মৌসুম অতিবাহিত করার পর প্রায় ৩৯ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ইংরেজ ক্লাব লিভারপুলের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন।[৬][৭]

২০১৫ সালে, ফাবিনিয়ো ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন। ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে খেলার পর, তিনি ২০১৫ সালে ব্রাজিলের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন; ব্রাজিলের জার্সি গায়ে তিনি এপর্যন্ত ২৭ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন। তিনি ব্রাজিলের হয়ে এপর্যন্ত ৩টি কোপা আমেরিকায় (২০১৫, ২০১৬ এবং ২০২১) অংশগ্রহণ করেছেন, যার মধ্যে ২০২১ সালে তিতের অধীনে কোপা আমেরিকার রানার-আপ হয়েছে।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ফাবিও এনরিকে তাভারেস ১৯৯৩ সালের ২৩শে অক্টোবর তারিখে ব্রাজিলের কাম্পিনাসে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবল[সম্পাদনা]

ফাবিনিয়ো ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে ব্রাজিলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ২০১৫ সালের ১২ই নভেম্বর তারিখে তিনি প্রীতি ম্যাচে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিরুদ্ধে ম্যাচে ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন।[৮] ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে তিনি ৩ ম্যাচে অংশগ্রহণ করে ১টি গোল করেছেন। তিনি ২০১৬ সালের ২৮শে মার্চ তারিখে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিরুদ্ধে ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে প্রথমবারের মতো গোল করেছেন।[৯]

২০১৫ সালের ৭ই জুন তারিখে, ২১ বছর, ৭ মাস ও ১৫ দিন বয়সে, ডান পায়ে ফুটবল খেলায় পারদর্শী ফাবিনিয়ো মেক্সিকোর বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ব্রাজিলের হয়ে অভিষেক করেছেন।[১০][১১] উক্ত ম্যাচের ৪৬তম মিনিটে রক্ষণভাগের খেলোয়াড় দানিলোর বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তিনি মাঠে প্রবেশ করেছিলেন;[১২] ম্যাচে তিনি ১৬ নম্বর জার্সি পরিধান করে রক্ষণাত্মক মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছিলেন।[১৩] ম্যাচটি ব্রাজিল ২–০ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল।[১৪] ব্রাজিলের হয়ে অভিষেকের বছরে ফাবিনিয়ো সর্বমোট ৩ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

২৮ আগস্ট ২০২২ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
দল সাল ম্যাচ গোল
ব্রাজিল ২০১৫
২০১৬
২০১৮
২০১৯
২০২১ ১০
২০২২
সর্বমোট ২৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2018/19 Premier League squads confirmed"। Premier League। ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  2. "Fabinho"। Liverpool F.C.। সংগ্রহের তারিখ ১৮ আগস্ট ২০২২ 
  3. Shaw, Chris (৩০ জানুয়ারি ২০১৯)। "Fabinho on Liverpool's right-back options v Leicester"। Liverpool F.C.। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. Shaw, Chris (২১ সেপ্টেম্বর ২০২০)। "James Milner on Ajax victory, Fabinho at centre-back and more"। Liverpool F.C.। সংগ্রহের তারিখ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  5. "Fabinho commits to the club until 2019"। AS Monaco FC। ১৯ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৫ 
  6. "Fabinho: Liverpool agree £39m deal for Monaco midfielder"BBC Sport। ২৮ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৮ 
  7. Carroll, James (২৮ মে ২০১৮)। "Reds agree deal to sign Fabinho"। Liverpool F.C.। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৮ 
  8. "Brazil U23 - United States U23, Nov 12, 2015 - International Friendlies - Match sheet"www.transfermarkt.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 
  9. "Brazil U23 - South Africa U23, Mar 28, 2016 - International Friendlies - Match sheet"www.transfermarkt.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 
  10. "Brazil vs. Mexico - 7 June 2015 - Soccerway"int.soccerway.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 
  11. "Brazil 2–0 Mexico: Coutinho and Tardelli seal friendly victory"Goal.com। Perform Group। ৭ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০১৫ 
  12. "Brazil - Mexico 2:0 (Friendlies 2015, June)"worldfootball.net। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 
  13. "Brazil - Mexico, Jun 7, 2015 - International Friendlies - Match sheet"www.transfermarkt.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 
  14. Strack-Zimmermann, Benjamin। "Brazil vs. Mexico"www.national-football-teams.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]