রিচার্লিসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রিচার্লিসন
07 07 2019 Final da Copa América 2019 (48226557731) (cropped).jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম রিচার্লিসন দে আন্দ্রাদে
জন্ম (1997-05-10) ১০ মে ১৯৯৭ (বয়স ২৪)
জন্ম স্থান নোভা ভেনেসিয়া, ব্রাজিল
উচ্চতা ১.৮৪ মিটার (৬ ফুট  ইঞ্চি)[১]
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব
এভার্টন
জার্সি নম্বর
যুব পর্যায়
২০১৩–২০১৪ রিয়াল নোরোয়েস্তে
২০১৪–২০১৫ আমেরিকা মিনেইরো
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
সাল দল ম্যাচ (গোল)
২০১৫ আমেরিকা মিনেইরো ২৪ (৯)
২০১৬–২০১৭ ফ্লুমিনেন্সে ৫৪ (১১)
২০১৭–২০১৮ ওয়াটফোর্ড ৩৮ (৫)
২০১৮– এভার্টন ৯৩ (৩২)
জাতীয় দল
২০১৭ ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২০ (২)
২০১৮– ব্রাজিল ২৩ (৮)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লীগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ১২:৪০, ৯ মার্চ ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ১২:৪০, ৯ মার্চ ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

রিচার্লিসন দে আন্দ্রাদে (পর্তুগিজ: Richarlison, ব্রাজিলীয় পর্তুগিজ: [hiˈʃaʁl(i)sõ][টীকা ১][২]; জন্ম: ১০ মে ১৯৯৭; রিচার্লিসন নামে সুপরিচিত) হলেন একজন ব্রাজিলীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়। তিনি বর্তমানে ইংল্যান্ডের পেশাদার ফুটবল লীগের শীর্ষ স্তর প্রিমিয়ার লীগের ক্লাব এভার্টন এবং ব্রাজিল জাতীয় দলের হয়ে একজন আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন। তিনি মূলত একজন বাম পার্শ্বীয় খেলোয়াড় হিসেবে খেললেও মাঝেমধ্যে কেন্দ্রীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় এবং ডান পার্শ্বীয় খেলোয়াড় হিসেবে খেলে থাকেন।

২০১৩–১৪ মৌসুমে, ব্রাজিলীয় ফুটবল ক্লাব রিয়াল নোরোয়েস্তের যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে রিচার্লিসন ফুটবল জগতে প্রবেশ করেছেন এবং পরবর্তীকালে আমেরিকা মিনেইরোর যুব দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি ফুটবল খেলায় বিকশিত হয়েছেন। ২০১৫–১৬ মৌসুমে, ব্রাজিলীয় ক্লাব আমেরিকা মিনেইরোর মূল দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছেন, যেখানে তিনি এক মৌসুমেরও কম সময় অতিবাহিত করেছেন; আমেরিকা মিনেইরোর হয়ে তিনি ২৪ ম্যাচে ৯টি গোল করেছেন। অতঃপর ২০১৬–১৭ মৌসুমে তিনি ফ্লুমিনেন্সেতে যোগদান করেছেন। ফ্লুমিনেন্সেতে মাত্র ১ মৌসুম অতিবাহিত করার পর প্রায় ১১ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ইংরেজ ক্লাব ওয়াটফোর্ডের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন,[৩] যেখানে তিনি সকল প্রতিযোগিতায় ৩১ ম্যাচে ৫টি গোল করেছেন। ২০১৮–১৯ মৌসুমে, তিনি প্রায় ৩৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ওয়াটফোর্ড হতে এভার্টনে যোগদান করেছেন।[৪]

২০১৭ সালে, রিচার্লিসন ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন। তিনি ২০১৮ সালে ব্রাজিলের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন; ব্রাজিলের জার্সি গায়ে তিনি এপর্যন্ত ২০-এর অধিক ম্যাচে ৫-এর অধিক গোল করেছেন। তিনি ব্রাজিলের হয়ে এপর্যন্ত ১টি কোপা আমেরিকায় (২০১৯) অংশগ্রহণ করেছেন, যার মধ্যে ২০১৯ সালে তিতের অধীনে কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়লাভ করেছেন।

ব্যক্তিগতভাবে, রিচার্লিসন বেশ কিছু পুরস্কার জয়লাভ করেছেন, যার মধ্যে ২০১৭ সালে কাম্পেওনাতো কারিওকার বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জয় অন্যতম। দলগতভাবে, রিচার্লিসন এপর্যন্ত ১টি শিরোপা জয়লাভ করেছেন, যা হচ্ছে ২০১৯ কোপা আমেরিকার শিরোপা।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

রিচার্লিসন দে আন্দ্রাদে ১৯৯৭ সালের ১০ই মে তারিখে ব্রাজিলের নোভা ভেনেসিয়ায় জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবল[সম্পাদনা]

রিচার্লিসন ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে ব্রাজিলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ২০১৭ সালের ১৯শে জানুয়ারি তারিখে তিনি ২০১৭ দক্ষিণ আমেরিকান অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপে ইকুয়েডর অনূর্ধ্ব-২০ দলের বিরুদ্ধে ম্যাচে ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন। ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে তিনি শুধুমাত্র ২০১৭ দক্ষিণ আমেরিকান অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করেছেন, যেখানে তার দল ৫ম স্থান অধিকার করেছিল; উক্ত প্রতিযোগিতায় তিনি সর্বমোট ৮ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে তিনি ৮ ম্যাচে অংশগ্রহণ করে ২টি গোল করেছেন। তিনি ২০১৭ সালের ২২শে জানুয়ারি তারিখে ২০১৭ দক্ষিণ আমেরিকান অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে প্যারাগুয়ে অনূর্ধ্ব-২০ দলের বিরুদ্ধে ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে প্রথমবারের মতো গোল করেছেন।

২০১৮ সালের ৮ই সেপ্টেম্বর তারিখে, মাত্র ২১ বছর ৩ মাস ২৯ দিন বয়সে, ডান পায়ে ফুটবল খেলায় পারদর্শী রিচার্লিসন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এক প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ব্রাজিলের হয়ে অভিষেক করেছেন। উক্ত ম্যাচের ৭৫তম মিনিটে কেন্দ্রীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় রবার্তো ফিরমিনোর বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তিনি মাঠে প্রবেশ করেন; ম্যাচে তিনি ৯ নম্বর জার্সি পরিধান করে একজন কেন্দ্রীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন। ম্যাচটি ব্রাজিল ২–০ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল। ব্রাজিলের হয়ে অভিষেকের বছরে রিচার্লিসন সর্বমোট ৬ ম্যাচে ৩টি গোল করেছেন। জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের ৪ দিন পর, ব্রাজিলের জার্সি গায়ে প্রথম গোলটি করেন; ১২ই সেপ্টেম্বর তারিখে, এল সালভাদোরের বিরুদ্ধে ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম গোলটি করেন। একই সাথে, একই ম্যাচের প্রথম গোলটিতে নেইমারকে অ্যাসিস্ট করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম অ্যাসিস্টটি করেন।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

৯ মার্চ ২০২১ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
দল সাল ম্যাচ গোল
ব্রাজিল ২০১৮
২০১৯ ১৩
২০২০
সর্বমোট ২৩

টীকা[সম্পাদনা]

  1. পর্তুগিজ উচ্চারণ অনুসারে এই ব্যক্তির নামের উচ্চারণ "রিশার্লিসোঁ"।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Richarlison: Overview"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০১৮ 
  2. Team, Forvo। "Richarlison pronunciation: How to pronounce Richarlison in Portuguese"Forvo.com 
  3. "Richarlison Signs"। Watford Official Site। ৮ আগস্ট ২০১৭। ১৩ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০১৭ 
  4. "Richarlison: Everton sign Brazilian from Watford in £50m deal"। BBC। ২৪ জুলাই ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]