তিরনইহাট ইউনিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তিরনইহাট
ইউনিয়ন
২নং তিরনইহাট ইউনিয়ন পরিষদ
তিরনইহাট বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
তিরনইহাট
তিরনইহাট
বাংলাদেশে তিরনইহাট ইউনিয়নের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°৩৪′০৩″ উত্তর ৮৮°২৩′০০″ পূর্ব / ২৬.৫৬৭৩৮° উত্তর ৮৮.৩৮৩২৩° পূর্ব / 26.56738; 88.38323স্থানাঙ্ক: ২৬°৩৪′০৩″ উত্তর ৮৮°২৩′০০″ পূর্ব / ২৬.৫৬৭৩৮° উত্তর ৮৮.৩৮৩২৩° পূর্ব / 26.56738; 88.38323
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগরংপুর বিভাগ
জেলাপঞ্চগড় জেলা
উপজেলাতেতুলিয়া উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সরকার
 • চেয়ারম্যানমো: রফিকুল ইসলাম
আয়তন
 • মোট২০.৮২ কিমি (৮.০৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা
 • মোট২৫,৫৩২
 • জনঘনত্ব১২০০/কিমি (৩২০০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৫০৩০
ওয়েবসাইটhttp://tirnaihat.panchagarh.gov.bd/
মানচিত্র

তিরনইহাট ইউনিয়ন বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার তেতুলিয়া উপজেলার অন্তর্গত একটি ইউনিয়ন। ইউপি কার্যালয়টি ফকিরপাড়া গ্রামে অবস্থিত।

প্রশাসনিক কাঠামো[সম্পাদনা]

তিরনইহাট ইউনিয়ন তেতুলিয়া উপজেলার আওতাধীন ২নং ইউনিয়ন পরিষদ। এ ইউনিয়নের প্রশাসনিক কার্যক্রম তেতুলিয়া থানার অধীন। এটি জাতীয় সংসদের ১নং নির্বাচনী এলাকা পঞ্চগড়-১ এর অংশ। এই ইউনিয়ন নিন্মলিখিত গ্রাম নিয়ে গঠিত:

  • রোশন পুর
  • নাজিরাগছ
  • প্রধান পাড়া
  • ইসলাম বাগ
  • গোয়াবাড়ী
  • হাকিম পুর
  • মন্ডল পাড়া
  • বকশি পাড়া
  • সোনাকান্দর
  • যোগীগছ
  • মুনিগছ
  • চুটচুটিয়া গছ
  • ব্রম্মোতোল
  • পিঠা খাওয়া
  • ঠুনঠুনিয়া
  • ডেমগছ
  • ডাংগা পাড়া
  • ফকির পাড়া
  • দগড় বাড়ী
  • তিরনই
  • খয়খাট পাড়া
  • ধামনা গছ
  • ইসলাম পুর
  • বাবুয়ানী

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

জনসংখ্যা ২৫,৫৩২ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

এই ইউনিয়নে শিক্ষার হার ৭০%।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

তিরনইহাট ইউনিয়নে ৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি উচ্চ বিদ্যালয় ও ১টি নিম্ন মাধ্যমিক আছে। এছাড়া এখানে ১টি মাদ্রাসা, ১টি মহিলা মাদ্রাসাসহ এতিমখানা, কিন্ডারগার্ডেন আছে।

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

তিরনইহাট ইউনিয়নের যোগাযোগের প্রধান সড়ক হচ্ছে ঢাকা- বাংলাবান্ধা ( এন-৫) জাতীয় মহাসড়ক। ইজিবাইক, ভ্যান ও মোটরসাইকেল প্রধান বাহন।

পর্যটন[সম্পাদনা]

তেতুলিয়া উপজেলার সবচেয়ে জনপ্রিয় বিনোদনের জায়গা রৌশনপুর আনন্দধারা এই তিরনইহাট ইউনিয়নে অবস্থিত। প্রতিদিন এখানে বিপুল পরিমান পর্যটক ভীড় করেন এর সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]