টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ
ডাকনামটিসিআই দল
অ্যাসোসিয়েশনটার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনকনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা)
প্রধান কোচওমর এডওয়ার্ডস
অধিনায়কমার্ক ফেনেলুস
সর্বাধিক ম্যাচলেনফোর্ড সিং (১৫)[১]
শীর্ষ গোলদাতাবিলি ফোর্বস (৮)
মাঠটিসিআইএফএ জাতীয় একাডেমি
ফিফা কোডTCA
ওয়েবসাইটwww.tcifootballassociation.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২০৬ অপরিবর্তিত (২৭ মে ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১৫৮ (ফেব্রুয়ারি ২০০৮)
সর্বনিম্ন২১১ (অক্টোবর ২০১৮)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২১০ অপরিবর্তিত (২ জুন ২০২১)[৩]
সর্বোচ্চ২০৫ (সেপ্টেম্বর ২০০৬)
সর্বনিম্ন২১৪ (সেপ্টেম্বর ২০১৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 বাহামা দ্বীপপুঞ্জ ৩–০ টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ 
(নাসাউ, বাহামা দ্বীপপুঞ্জ; ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৯)
বৃহত্তম জয়
 সিন্ট মার্টেন ২–৫ টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ 
(উইলেমস্টাট, কুরাসাও; ১০ অক্টোবর ২০১৯)
বৃহত্তম পরাজয়
 কিউবা ১১–০ টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ 
(হাভানা, কিউবা; ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮)

টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Turks and Caicos Islands national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৯৮ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৯৬ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনকাকাফের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৯৯ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি তারিখে, টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; বাহামা দ্বীপপুঞ্জের নাসাউয়ে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ বাহামা দ্বীপপুঞ্জের কাছে ৩–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

৩,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট টিসিআইএফএ জাতীয় একাডেমিতে টিসিআই দল নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জের রাজধানী প্রোভিডেন্সিয়ালেসে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন ওমর এডওয়ার্ডস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন তাইনান সিটির আক্রমণভাগের খেলোয়াড় মার্ক ফেনেলুস

টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, কনকাকাফ গোল্ড কাপেও টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

লেনফোর্ড সিং, মার্ক ফেনেলুস, বিলি ফোর্বস, গ্যাভিন গ্লিনটন এবং উইডলিন ক্যালিক্সটের মতো খেলোয়াড়গণ টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (১৫৮তম) অর্জন করে এবং ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২১১তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ২০৫তম (যা তারা ২০০৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ২১৪। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
২৭ মে ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২০৪ অপরিবর্তিত  শ্রীলঙ্কা ৮৫৩.০৭
২০৫ অপরিবর্তিত  আরুবা ৮৫০.১
২০৬ অপরিবর্তিত  টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ ৮৪৩.৬৫
২০৭ অপরিবর্তিত  মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৮২৯.১৩
২০৮ অপরিবর্তিত  ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৮২৬.২৭
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২ জুন ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২০৮ হ্রাস  কম্বোডিয়া ৮৩৬
২০৯ অপরিবর্তিত  সান মারিনো ৮২৭
২১০ অপরিবর্তিত  টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ ৭৭৯
২১১ অপরিবর্তিত  চাগোস দ্বীপপুঞ্জ ৭৭৬
২১২ অপরিবর্তিত  সিন্ট মার্টেন ৭৬৭

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি ১৪
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪ ১০
রাশিয়া ২০১৮ ১২
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ১০ ৪৬

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Appearances and Goals for Turks and Caicos Islands"www.rsssf.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুলাই ২০১৮ 
  2. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ২৭ মে ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০২১ 
  3. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]