মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ
ডাকনামড্যাশিং ঈগল
অ্যাসোসিয়েশনমার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনকনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা)
প্রধান কোচগিলবের্তো দামিয়ানো
অধিনায়কঅ্যারন ডেনিস
সর্বাধিক ম্যাচডাস্টি গুড (১৭)
শীর্ষ গোলদাতাকেভিন শেপার্ড (২)
মাঠবেথেলহেম ফুটবল স্টেডিয়াম
ফিফা কোডVIR
ওয়েবসাইটwww.usvisoccerassociation.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২০৮ হ্রাস ১ (৩১ মার্চ ২০২২)[১]
সর্বোচ্চ১৪৯ (জুলাই ২০১১)
সর্বনিম্ন২০৭ (নভেম্বর ২০১৯)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ২২৫ হ্রাস ৬ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ২০৮ (১৯৯৮)
সর্বনিম্ন২২২ (মার্চ ২০১৫)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ১–০ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ 
(মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ; ২১ মার্চ ১৯৯৮)
বৃহত্তম জয়
 অ্যাঙ্গুইলা ০–৩ মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ 
(দ্য ভ্যালি, অ্যাঙ্গুইলা; ২২ মার্চ ২০১৯)
বৃহত্তম পরাজয়
 সেন্ট লুসিয়া ১৪–১ মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ 
(পর্তোপ্রাঁস, হাইতি; ১৪ এপ্রিল ২০০১)

মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: United States Virgin Islands national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৯৮ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৮৭ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনকাকাফের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৯৮ সালের ২১শে মার্চ তারিখে, মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জকে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

১,২০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট বেথেলহেম ফুটবল স্টেডিয়ামে ড্যাশিং ঈগল নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জের সেন্ট ক্রোইয়ে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন গিলবের্তো দামিয়ানো এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন নিউ ইয়র্ক কসমসের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় অ্যারন ডেনিস

মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, কনকাকাফ গোল্ড কাপেও মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

ডাস্টি গুড, ডোয়াইন টমাস, ম্যাকডোনাল্ড টেইলর, কেভিন শেপার্ড এবং অ্যারন ডেনিসের মতো খেলোয়াড়গণ মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১১ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (১৪৯তম) অর্জন করে এবং ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২০৭তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ২০৮তম (যা তারা ১৯৯৮ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ২২২। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২০৬ হ্রাস  টার্কস ও কেইকোস দ্বীপপুঞ্জ ৮৩৯.৮৪
২০৭ হ্রাস  গুয়াম ৮৩৮.৩৩
২০৮ হ্রাস  মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৮১৬.১৩
২০৯ হ্রাস  ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৮১২.৯৪
২১০ হ্রাস  অ্যাঙ্গুইলা ৭৯২.৩৪
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
২২৪ হ্রাস  লাওস ৬৭৫
২২৫ হ্রাস  মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৬৬০
২২৬ বৃদ্ধি  তিব্বত ৬৩০
২২৭ হ্রাস  পূর্ব তিমুর ৬২১

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ ফিফার সদস্য ছিল না ফিফার সদস্য ছিল না
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি ১৪
জার্মানি ২০০৬ ১১
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১০
ব্রাজিল ২০১৪ ৪১
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ১৫ ১২ ৭০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]