উগান্ডা জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উগান্ডা
দলের লোগো
ডাকনামসারস পক্ষী
অ্যাসোসিয়েশনউগান্ডা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচজনাথন ম্যাককিনস্ট্রি
অধিনায়কডেনিস ওনিয়াঙ্গো
সর্বাধিক ম্যাচগডফ্রি ওয়ালুসিম্বি (১০৫)
শীর্ষ গোলদাতাএমানুয়েল ওকউই (২৬)
মাঠম্যান্ডেলা জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডUGA
ওয়েবসাইটwww.fufa.co.ug
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮৬ হ্রাস ২ (৩১ মার্চ ২০২২)[১]
সর্বোচ্চ৬২ (জানুয়ারি ২০১৬)
সর্বনিম্ন১৫২ (জুলাই ২০০২)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৯৬ হ্রাস ৬ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ৪০ (মার্চ ১৯৭৮)
সর্বনিম্ন১২৯ (জুন ২০০৫)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 কেনিয়া ১–১ উগান্ডা 
(নাইরোবি, কেনিয়া; ১ মে ১৯২৬)
বৃহত্তম জয়
 উগান্ডা ১৩–১ কেনিয়া 
(উগান্ডা; ১৯৩২)
বৃহত্তম পরাজয়
 মিশর ৬–০ উগান্ডা 
(আলেক্সান্দ্রিয়া, মিশর; ৩০ জুলাই ১৯৯৫)
 তিউনিসিয়া ৬–০ উগান্ডা 
(তিউনিস, তিউনিসিয়া; ২৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৯)
আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্স
অংশগ্রহণ৭ (১৯৬২-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যরানার-আপ (১৯৭৮

উগান্ডা জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Uganda national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে উগান্ডার প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম উগান্ডার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা উগান্ডা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৬০ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬১ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[৩] ১৯২৬ সালের ১লা মে তারিখে, উগান্ডা প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; কেনিয়ার নাইরোবিতে অনুষ্ঠিত উগান্ডা এবং কেনিয়ার মধ্যকার উক্ত ম্যাচটি ১–১ গোলে ড্র হয়েছে।

৪৫,২০২ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট ম্যান্ডেলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সারস পক্ষী নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় উগান্ডার রাজধানী কাম্পালায় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন জনাথন ম্যাককিনস্ট্রি এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন মামেলোদি সানডাউন্সের গোলরক্ষক ডেনিস ওনিয়াঙ্গো

উগান্ডা এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সে উগান্ডা এপর্যন্ত ৭ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৭৮ আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সের ফাইনালে পৌঁছানো, যেখানে তারা ঘানার কাছে ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

গডফ্রি ওয়ালুসিম্বি, ডেনিস ওনিয়াঙ্গো, টনি মাওয়েজে, এমানুয়েল ওকউই এবং ফারুক মিয়ার মতো খেলোয়াড়গণ উগান্ডার জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে উগান্ডা তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৬২তম) অর্জন করে এবং ২০০২ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৫২তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে উগান্ডার সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৪০তম (যা তারা ১৯৭৮ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১২৯। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮৪ হ্রাস  বেনিন ১২৮৪.১৩
৮৫ বৃদ্ধি  জর্জিয়া ১২৭৬.৩১
৮৬ হ্রাস  উগান্ডা ১২৭৫.৫
৮৭ বৃদ্ধি  জাম্বিয়া ১২৬৭.০৪
৮৮ বৃদ্ধি  সিরিয়া ১২৬৫.০৩
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৯৪ বৃদ্ধি ২৮  বিষুবীয় গিনি ১৪৩৮
৯৫ হ্রাস ৩৮  হন্ডুরাস ১৪৩৫
৯৬ হ্রাস  উগান্ডা ১৪৩৩
৯৭ বৃদ্ধি  কুর্দিস্তান অঞ্চল ১৪২৪
৯৮ হ্রাস ১৭  জাম্বিয়া ১৪২০

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ উত্তীর্ণ হয়নি
স্পেন ১৯৮২ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
মেক্সিকো ১৯৮৬ উত্তীর্ণ হয়নি
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
ফ্রান্স ১৯৯৮ উত্তীর্ণ হয়নি
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২
জার্মানি ২০০৬ ১২ ১০ ১৮
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ৪২ ১৫ ১৮ ৪২ ৪৭

অর্জন[সম্পাদনা]

শিরোপা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 
  3. CAF and FIFA, 50 years of African football - the DVD, 2009, CAF Correspondence 13 March 1961

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]