আর্মেনিয়া জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আর্মেনিয়া
দলের লোগো
ডাকনামহাভাকাকান (সমষ্টিগত দল)
অ্যাসোসিয়েশনআর্মেনীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
প্রধান কোচহোয়াকিন কাপারোস
অধিনায়কভারাজদাত হারোয়ান
সর্বাধিক ম্যাচসার্গিস হোভসেপিয়ান (১৩২)[১]
শীর্ষ গোলদাতাহেনরিখ মখিতারিয়ান (৩০)
মাঠবিভিন্ন
ফিফা কোডARM
ওয়েবসাইটwww.ffa.am
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
তৃতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৯২ অপরিবর্তিত (৩১ মার্চ ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ৩০ (ফেব্রুয়ারি ২০১৪)
সর্বনিম্ন১৫৯ (জুলাই ১৯৯৪)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮৩ হ্রাস ২১ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[৩]
সর্বোচ্চ৬৫ (মে ২০১৪)
সর্বনিম্ন১২৬ (মে ১৯৯৫)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 আর্মেনিয়া ০–০ মলদোভা 
(ইয়েরেভান, আর্মেনিয়া; ১৪ অক্টোবর ১৯৯২)
বৃহত্তম জয়
 আর্মেনিয়া ৭–১ গুয়াতেমালা 
(ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র; ২৮ মে ২০১৬)
বৃহত্তম পরাজয়
 ইতালি ৯–১ আর্মেনিয়া 
(পালেরমো, ইতালি; ১৮ নভেম্বর ২০১৯)

আর্মেনিয়া জাতীয় ফুটবল দল (আর্মেনীয়: Հայաստանի ֆուտբոլի ազգային հավաքական, ইংরেজি: Armenia national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর্মেনিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম আর্মেনিয়ার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আর্মেনীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৯২ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং একই সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফার সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৯২ সালের ১৪ই অক্টোবর তারিখে, আর্মেনিয়া প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; আর্মেনিয়ার ইয়েরেভানে অনুষ্ঠিত আর্মেনিয়া এবং মলদোভার মধ্যকার উক্ত ম্যাচটি ০–০ গোলে ড্র হয়েছে।

হাভাকাকান নামে পরিচিত এই দলটি বেশ কয়েকটি স্টেডিয়ামে তাদের হোম ম্যাচগুলো আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় আর্মেনিয়ার রাজধানী ইয়েরেভানে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন হোয়াকিন কাপারোস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন তামবভের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ভারাজদাত হারোয়ান

আর্মেনিয়া এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপ এবং উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি।

সার্গিস হোভসেপিয়ান, রোমান বেরেজোভস্কি, হেনরিখ মখিতারিয়ান, ইয়ুরা মোভসিসিয়ান এবং গেভর্গ গাজারিয়ানের মতো খেলোয়াড়গণ আর্মেনিয়ার জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে আর্মেনিয়া তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৩০তম) অর্জন করে এবং ১৯৯৪ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৫৯তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে আর্মেনিয়ার সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৬৫তম (যা তারা ২০১৪ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১২৬। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৯০ হ্রাস  হাইতি ১২৬১.৮৬
৯১ হ্রাস  জর্ডান ১২৫৯.৮৪
৯২ অপরিবর্তিত  আর্মেনিয়া ১২৪৫.১৩
৯৩ বৃদ্ধি  বেলারুশ ১২৪৩.২
৯৪ হ্রাস  লুক্সেমবুর্গ ১২২৯.৬
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮১ বৃদ্ধি  গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র ১৫০৪
৮২ হ্রাস  গুয়াতেমালা ১৫০৩
৮৩ হ্রাস ২১  আর্মেনিয়া ১৫০১
৮৪ অপরিবর্তিত  কসোভো ১৫০০
৮৫ বৃদ্ধি  এল সালভাদোর ১৪৮৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ফ্রান্স ১৯৯৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১০ ১৭
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ ১০ ১৯
জার্মানি ২০০৬ ১২ ২৫
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১০ ২২
ব্রাজিল ২০১৪ ১০ ১২ ১৩
রাশিয়া ২০১৮ ১০ ১০ ২৬
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/৮ ৬২ ১০ ১৪ ৩৮ ৫২ ১২২

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Armenia national football team"। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৬ 
  2. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  3. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]