অ্যাডাম লিথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অ্যাডাম লিথ
Adam lyth.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅ্যাডাম লিথ
জন্ম (1987-09-25) ২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৮৭ (বয়স ৩২)
হুইটবি, উত্তর ইয়র্কশায়ার, ইংল্যান্ড
ডাকনামফাইভ এ’লিথ, পিনাট[১]
উচ্চতা৫ ফুট ৯ ইঞ্চি (১.৭৫ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬৬৬)
২১ মে ২০১৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৯ মে ২০১৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৬-বর্তমানইয়র্কশায়ার (দল নং ৯)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ১০৫ ৮৫ ৬১
রানের সংখ্যা ১৫০ ৬,৮৯০ ২,২৫৬ ৯৩৯
ব্যাটিং গড় ৩৭.৫০ ৪৩.০৬ ৩১.৩৩ ১৮.৭৮
১০০/৫০ ১/০ ১৬/৪১ ১/১১ ০/২
সর্বোচ্চ রান ১০৭ ২৫১ ১০৯* ৭৮
বল করেছে ১,০৮৩ ১৬২ ৪২
উইকেট ১৪
বোলিং গড় ৪৮.৭৮ ৮৬.০০ ১৮.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ২/১৫ ১/৬ ২/৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ১২৮/– ৩৮/– ২৫/–
উৎস: CricketArchive, ২ জুন ২০১৫

অ্যাডাম লিথ (জন্ম: ২৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৮৭)[১] উত্তর ইয়র্কশায়ারের হুইটবি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ ক্রিকেটার। বামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ২০১৫ থেকে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবে খেলছেন। এছাড়াও ইংল্যান্ডের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলেছেন তিনি।[১]

কাউন্টি ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে প্রো৪০ প্রতিযোগিতায় ইয়র্কশায়ারের পক্ষে অভিষেক ঘটে তার। এরপর মে, ২০০৭ সাল থেকে ইয়র্কশায়ার ক্রিকেট ক্লাবে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করছেন।[২] অভিষেক খেলায় প্রতিপক্ষ দল ছিল লাফবোরা ইউসিসিই। অনূর্ধ্ব-১৬ দলের পক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকা, অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পক্ষে মালয়েশিয়া, ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করেন।

২০০৮ সালে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে ৬৪৫ রান তোলেন ও বর্ষসেরা ইয়র্কশায়ার সিসিসি তরুণ খেলোয়াড়ের পুরস্কার পান। এ মৌসুম শেষে তিন বছর মেয়াদে ইয়র্কশায়ারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন। ২০০৯ সালে গ-শ্রেণীভূক্ত খেলোয়াড়রূপে মনোনীত হন। ২০১০ সালে ইয়র্কশায়ার দলের প্রধান খেলোয়াড় হিসেবে চিহ্নিত হন। ঐ বছরে প্রথম-খেলোয়াড়রূপে এক হাজার রানের কোটা স্পর্শ করেন। ২৪ আগস্ট, ২০১০ তারিখে কাউন্টির পক্ষে ক্যাপ পান। জুলাই, ২০১২ সালে গ্রেস রোডে অনুষ্ঠিত কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের খেলায় লিচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে খেলায় প্রথম ইয়র্কশায়ার ব্যাটসম্যানরূপে দুই শতাধিক রান সংগ্রহ করে কাউন্টি রেকর্ড গড়েন। তিনি ইনিংসের পুরোটা সময়ই ব্যাটিং করেন। এছাড়াও প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিজস্ব সেরা অপরাজিত ২৪৮* রান তোলেন।[১][৩]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

মার্চ, ২০১৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য ক্যাপবিহীন অবস্থায় ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে অন্তর্ভুক্ত হন।[৪] কিন্তু জোনাথন ট্রটকে প্রাধান্য দেয়ায় কোন টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ পাননি তিনি।[৪] অতঃপর মে, ২০১৫ সালে সফরকারী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে তার। লর্ডসে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তিনি প্রথম বলেই প্রথম টেস্ট রান করার গৌরব অর্জন করেন।[৫] কিন্তু উভয় ইনিংসেই (৭, ১২) তিনি যথেষ্ট রান তুলতে ব্যর্থ হন। তাস্বত্ত্বেও দল ১২৪ রানে বিজয়ী হয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায়। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১০৭ রান করে দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হন ও প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি করেন।[৬] দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি ২৪ রান তোলেন। ঐ খেলায় ইংল্যান্ড ১৯৯ রানে পরাজিত হয়। ফলে সিরিজটি ১-১ ব্যবধানে ড্রয়ে পরিণত হয়। জুলাই, ২০১৫ সালে কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে তার অ্যাশেজে অভিষেক ঘটে। অ্যালাস্টেয়ার কুকের সাথে তিনি ব্যাটিং উদ্বোধনে নামেন।

আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি[সম্পাদনা]

টেস্ট[সম্পাদনা]

অ্যাডাম লিথের টেস্ট সেঞ্চুরি
# রান খেলা প্রতিপক্ষ শহর/দেশ মাঠ সাল ফলাফল
১০৭  নিউজিল্যান্ড যুক্তরাজ্য লিডস, যুক্তরাজ্য হেডিংলি স্টেডিয়াম ২০১৫

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Adam Lyth"। Espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১২ 
  2. Warner, David (২০১১)। The Yorkshire County Cricket Club: 2011 Yearbook (113th সংস্করণ)। Ilkley, Yorkshire: Great Northern Books। পৃষ্ঠা 373। আইএসবিএন 978-1-905080-85-4 
  3. Paul Edwards। "Yorkshire face crunch day after Lyth's record epic"। Espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১২ 
  4. "Jonathan Trott: England recall Warwickshire batsman"। BBC Sport। ১৮ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৫ 
  5. "New Zealand tour of England, 1st Test: England v New Zealand at Lord's, May 21-25, 2015"। ESPN Cricinfo। ২১ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৫ 
  6. "Adam Lyth century puts England on top before collapse gives New Zealand hope"The Guardian। Guardian News and Media। ৩০ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]