হাইতি জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হাইতি
দলের লোগো
ডাকনামলে গ্রেনাদিয়ে[১] (গ্রেনাদীয়)
লে রুজ এত ব্লো[২] (লাল-নীল)
লে বিকলোরেস[৩] (দ্বিরং)
লা সেলক্তিওন নাসিওনালে[৪] (জাতীয় নির্বাচন)
অ্যাসোসিয়েশনহাইতিয় ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনকনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা)
প্রধান কোচমার্ক কোলাত
অধিনায়কজন প্লাসিদে
সর্বাধিক ম্যাচএমানুয়েল সানোন (১০০)[৫]
শীর্ষ গোলদাতাএমানুয়েল সানোন (৪৭)[৬]
মাঠসিলভিও কাতোর স্টেডিয়াম
ফিফা কোডHAI
ওয়েবসাইটwww.fhfhaiti.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৯০ হ্রাস ৩ (৩১ মার্চ ২০২২)[৭]
সর্বোচ্চ৩৮ (জানুয়ারি ২০১৩[৮])
সর্বনিম্ন১৫৫ (এপ্রিল ১৯৯৬)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৭৭ হ্রাস ১০ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[৯]
সর্বোচ্চ৪০ (ডিসেম্বর ১৯৭৩)
সর্বনিম্ন১২১ (এপ্রিল ১৯৯৬)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 হাইতি ১–২ জ্যামাইকা 
(পর্তোপ্রাঁস, হাইতি;[১০] ২২ মার্চ ১৯২৫)
বৃহত্তম জয়
 হাইতি ১৩–০ সিন্ট মার্টেন 
(পর্তোপ্রাঁস, হাইতি; ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮)
বৃহত্তম পরাজয়
 মেক্সিকো ৮–০ হাইতি 
(মেক্সিকো সিটি, মেক্সিকো; ১৯ জুলাই ১৯৫৩)
 ব্রাজিল ৯–১ হাইতি 
(শিকাগো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র; ৩০ আগস্ট ১৯৫৯)
 কোস্টা রিকা ৮–০ হাইতি 
(সান হোসে, কোস্টা রিকা; ১৯ মার্চ ১৯৬১)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ১ (১৯৭৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যপ্রথম পর্ব (১৯৭৪)
কনকাকাফ গোল্ড কাপ
অংশগ্রহণ১৪ (১৯৬৫-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৭৩)
কোপা আমেরিকা
অংশগ্রহণ১ (২০১৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (২০১৬)

হাইতি জাতীয় ফুটবল দল (ফরাসি: Équipe d'Haïti de football, হাইতীয় ক্রেওল: Ekip foutbòl Ayiti, ইংরেজি: Haiti national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে হাইতির প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম হাইতির ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা হাইতিয় ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৩৪ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬১ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনকাকাফের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[১১] ১৯২৫ সালের ২২শে মার্চ তারিখে, হাইতি প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; হাইতির পর্তোপ্রাঁসে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে হাইতি জ্যামাইকার কাছে ২–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

১০,৫০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট সিলভিও কাতোর স্টেডিয়ামে লে গ্রেনাদিয়ে নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় হাইতির রাজধানী পর্তোপ্রাঁসে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন মার্ক কোলাত এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন সারস্কো সেলো সোফিয়ার গোলরক্ষক জন প্লাসিদে

হাইতি এপর্যন্ত মাত্র ১ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যেখানে তাদের সাফল্য হচ্ছে ১৯৭৪ ফিফা বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে অংশগ্রহণ করা। অন্যদিকে, কনকাকাফ গোল্ড কাপে হাইতি অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ১টি (১৯৭৩) শিরোপা জয়লাভ করেছে।

এমানুয়েল সানোন, পিয়ের রিচার্দ ব্রুনি, ফ্রানৎস গিলেস, দুকঁস নাজোঁ এবং কেরভঁস বেলফোর্তের মতো খেলোয়াড়গণ হাইতির জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৩ সালের জানুয়ারি মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে হাইতি তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৩৮ম) অর্জন করে এবং ১৯৯৬ সালের এপ্রিল মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৫৫তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে হাইতির সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৪০তম (যা তারা ১৯৭৩ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১২১। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[৭]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮৮ বৃদ্ধি  সিরিয়া ১২৬৫.০৩
৮৯ অপরিবর্তিত  বাহরাইন ১২৬২.৫৫
৯০ হ্রাস  হাইতি ১২৬১.৮৬
৯১ হ্রাস  জর্ডান ১২৫৯.৮৪
৯২ অপরিবর্তিত  আর্মেনিয়া ১২৪৫.১৩
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৯]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৭৫ হ্রাস ১০  জ্যামাইকা ১৫৩৫
৭৬ হ্রাস  মন্টিনিগ্রো ১৫১৮
৭৭ বৃদ্ধি ১৯  সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৫১৫
৭৭ হ্রাস ১০  হাইতি ১৫১৫
৭৯ হ্রাস  বুলগেরিয়া ১৫১১

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
ইতালি ১৯৩৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১০
ফ্রান্স ১৯৩৮ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১৮
সুইডেন ১৯৫৮ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০ উত্তীর্ণ হয়নি ১৬
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ গ্রুপ পর্ব ১৫তম ১৪ ২০
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১০ ১৬
স্পেন ১৯৮২ ১১
মেক্সিকো ১৯৮৬ ১১
ইতালি ১৯৯০ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ উত্তীর্ণ হয়নি
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ ২২
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১৩
ব্রাজিল ২০১৪ ২১
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট গ্রুপ পর্ব ১/২৩ ১৪ ৮৬ ৩৮ ১৬ ৩২ ১৪২ ১১২

অর্জন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wiebe, Andrew (১০ জুলাই ২০১৫)। "Gold Cup: First-ever matchup with Haiti would be "surreal" for Jozy Altidore"। MLS Soccer। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৫ 
  2. "Haiti's National Soccer Team Edges Trinity Men in Exhibition"Trinity (TX) 
  3. Minahan, James B. (২৩ ডিসেম্বর ২০০৯)। The Complete Guide to National Symbols and Emblems। পৃষ্ঠা 711। আইএসবিএন 9780313344978। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৫ 
  4. "9112.- Sélection Nationale de Foot-ball" 
  5. Press, সম্পাদক (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৮)। "A la mémoire de Manno"। FIFA। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ এপ্রিল ২০১৬ 
  6. "NASL-Manu Sanon"nasljerseys.com 
  7. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  8. Press, সম্পাদক (১৭ জানুয়ারি ২০১৩)। "Ecuador, Haiti climb to highest-ever slots"। FIFA। ৯ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০১৬ 
  9. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 
  10. Courtney, Barrie, সম্পাদক (৫ নভেম্বর ২০১৪)। "Caribbean Tour Matches 1925-1969"। RSSSF। সংগ্রহের তারিখ ২৪ নভেম্বর ২০১৮ 
  11. "Ramón Coll, electo Presidente de la Confederación de Futbol de América del Norte, América Central y el Caribe"La Nación (Google News Archive)। ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৬১। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]