সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ
Subramaniam Badrinath.JPG
২০১২ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামসুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ
জন্ম (1980-08-30) ৩০ আগস্ট ১৯৮০ (বয়স ৪০)
চেন্নাই, ভারত
উচ্চতা১.৮০ মিটার (৫ ফুট ১১ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৬২)
৬ ফেব্রুয়ারি ২০১০ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ টেস্ট১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৭৬)
২০ আগস্ট ২০০৯ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ ওডিআই১৩ জুন ২০১১ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
একমাত্র টি২০আই
(ক্যাপ ৩৫)
৪ জুন ২০১১ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০০ - ২০১৪/১৫তামিলনাড়ু
২০০৮ - ২০১৩চেন্নাই সুপার কিংস
২০১৫রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৪৫ ১৪৪
রানের সংখ্যা ৬৩ ৭৯ ১০২৪৫ ৪১৬৪
ব্যাটিং গড় ২১.০০ ১৫.৮০ ৫৪.৪৯ ৩৬.৮৪
১০০/৫০ ০/১ ০/০ ৩২/৪৫ ৬/২৮
সর্বোচ্চ রান ৫৬ ২৭ ২৫০ ১৩৪
বল করেছে - - ১,৩৫৯ ৯৮৬
উইকেট - - ১৪ ১৯
বোলিং গড় - - ৫২.৯২ ৪৫.৬৮
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং - - ২/১৯ ৪/৪৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ২/– ৯৬/– ৫৪/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৮ ডিসেম্বর ২০২০

সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ (তামিল: சுப்பிரமணியம் பத்ரிநாத்; জন্ম: ৩০ আগস্ট, ১৯৮০) চেন্নাই এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০০-এর দশকের শেষদিকে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে তামিলনাড়ু দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন এস বদ্রীনাথ নামে পরিচিত সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০০-০১ মৌসুম থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ২০০০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়কালে তামিলনাড়ু দলের প্রধান ব্যাটিং চালিকাশক্তিতে পরিণত হয়েছিলেন এস বদ্রীনাথ। তিনি রান সংগ্রহের জন্যে ভীষণ আগ্রহী ছিলেন। ঐ দলের পক্ষে অধিনায়কেরও দায়িত্বে ছিলেন তিনি। দীর্ঘদেহী সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ ক্রিজে অবস্থান করে সঠিকভাবে ব্যাটিংশৈলী প্রয়োগে অগ্রসর হতেন।

২০০৫-০৬ মৌসুমে সাত খেলায় অংশ নিয়ে প্রায় ৮০ গড়ে ৬৩৬ রান তুলে ব্যাটিংয়ের শীর্ষ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়ে জাতীয় পর্যায়ে আলোচিত হন। কেবলমাত্র অমল মজুমদার এক খেলায় বেশি খেলে ৩৬ রানে তারচেয়ে এগিয়ে থাকেন। অবশ্য ২০০৬-০৭ মৌসুমে তেমন ভালো খেলেননি। তাসত্ত্বেও, প্রায় ৫০ গড়ে ৪৩৬ রান তুলেন। পয়েন্ট অঞ্চলে দূর্দান্ত ফিল্ডারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন।

২০০৭ সালে ভারত এ দলের সদস্যরূপে জিম্বাবুয়ে ও কেনিয়া সফরে যান। নিজ দেশে দক্ষিণ আফ্রিকা এ দলের বিপক্ষে খেলেন। অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওডিআই সিরিজের শেষ তিনটি খেলার জন্যে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তবে, তাকে কোন খেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়নি। এরপর, পাকিস্তানের সিরিজেও তাকে রাখা হয়নি। ডানহাতি মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ বিদর্ভ ও তামিলনাড়ু - উভয় দলের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে ২০১৩ সাল পর্যন্ত চেন্নাই সুপার কিংস ও ২০১৫ সালে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের পক্ষে খেলেছেন। এছাড়াও, বেশ কয়েকবার ভারতীয় বোর্ড সভাপতি একাদশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ২০০৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের ৩০-সদস্যের প্রাথমিক তালিকায় তাকে রাখা হলেও চূড়ান্ত দলে তাকে রাখা হয়নি। তামিলনাড়ুর পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিয়মিতভাবে রান সংগ্রাহকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন।[১] ২০০৮ সালে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে চেন্নাই সুপার কিংসের পক্ষে খেলার জন্যে চুক্তিবদ্ধ হন। ভারতের টেস্ট দলের মাঝারিসারির ব্যাটসম্যানের অবস্থানে অন্যতম খেলোয়াড় হিসেবে তাকে চিত্রিত করা হয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্ট, সাতটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিক ও একটিমাত্র টি২০আইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ। সবগুলো টেস্টই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলেছিলেন তিনি। ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ তারিখে নাগপুরে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ তারিখে কলকাতায় একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি। এছাড়াও, ২০ আগস্ট, ২০০৮ তারিখে ডাম্বুলায় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। ১৩ জুন, ২০১১ তারিখে নর্থ সাউন্ডে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন।

২০০৭-০৮ মৌসুমের রঞ্জী ট্রফি প্রতিযোগিতায় ৬৫.৯০ গড়ে ৬৫৯ রান তুলেন। দশ মাস উপেক্ষিত থাকার পর শচীন তেন্ডুলকরের পরিবর্তে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেন। প্রথম খেলাতেই বেশ ভালো খেলেন। স্পিনারদের বিপক্ষে তিনি তার দক্ষতা প্রদর্শন করে দলকে জয়লাভ করান।

টেস্ট অভিষেক[সম্পাদনা]

২০০৮-০৯ মৌসুমে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলার জন্যে তাকে দলে নেয়া হয়; কিন্তু খেলানো হয়নি। তাসত্ত্বেও, এক বছর পর ২৯ বছর বয়সে নাগপুরে মাঝারিসারির ব্যাটসম্যানদের আঘাতের কারণে তার টেস্ট অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়। দুই টেস্টে তেমন ভালো খেলা উপহার দিতে না পারলেও রঞ্জী ট্রফি ও আইপিএলে দূর্দান্ত খেলা প্রদর্শন করায় ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে একদিনের দলে রাখা হয়।

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ তারিখে ভারতের পক্ষে টেস্টে অভিষেক হয়। নাগপুরের ভিসিএ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ঐ খেলার প্রথম ইনিংসে ৫৬ রান তুলেছিলেন। ২০১১ সালের আইপিএল আসর চলাকালীন দল নির্বাচকমণ্ডলীর দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষমতা দেখা সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ। দলের সফলতায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তিনি। মি. ডিপেন্ডেবল নামে পরিচিতি লাভ করেন ও চেন্নাই সুপার কিংসের বিশ্বস্ত খেলোয়াড়ের মর্যাদাপ্রাপ্ত হন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে সুন্দর ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ অল্প কিছুদিন পরেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমনার্থে তাকে ভারতে দলের সদস্যরূপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ভিভিএস লক্ষ্মণের অবসর গ্রহণের পর বদ্রীনাথকে ভারতের টেস্ট দলে ফিরিয়ে আনা হয়। নিজ দেশে নিউজিল্যান্ড দলের মুখোমুখি হন তিনি।[২][৩]

আইপিএলের ২০১৪ সালের আসরের নিলামে তিনি অবিক্রিত থেকে যান। ২০১৫ সালে ব্যাঙ্গালোরের বিশেষ প্রাধিকারপ্রাপ্ত দলে তাকে সংরক্ষিত খেলোয়াড় হিসেবে রাখা হয়। তামিলনাড়ুর পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সীমিত খেলায় অংশগ্রহণের ফলে ২০১৫ সালে তিনি বিদর্ভ দলে চলে যান। আগস্ট, ২০১৮ সালে সকল স্তরের ক্রিকেট থেকে নিজের অবসর গ্রহণের কথা ঘোষণা করেন সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. India call up uncapped Badrinath BBC News retrieved 9 October 2007
  2. "Badrinath to replace Laxman for New Zealand Tests"। Wisden India। ২০ আগস্ট ২০১২। ২৬ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০২০ 
  3. Badrinath for Laxman. The Hindu (2012-08-19). Retrieved on 2013-12-23.
  4. "Former India batsman Badrinath retires from all formats"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৮ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]