ভারতের দ্রুতগতির রেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভারতের উচ্চগতির রেল
India HSR potential route 1112.GIF
ভারতের উচ্চগতির রেল পথের প্রস্তাবিত মানচিত্র
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
ধরনউচ্চগতির রেল
অবস্থাপ্রস্তাবিত
ক্রিয়াকলাপ
মালিকভারতীয় রেল
প্রযুক্তিগত
রেললাইনের মোট দৈর্ঘ্য৭,০০০ কিলোমিটার (৪,৩০০ মাইল)
বৈদ্যুতিকরণ২৫ কেভি এসি ওভারহেড
চালন গতি২০০-৩৫০ কিমি/ঘন্টা

ভারতের রেল ব্যাবস্থা বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম রেল ব্যাবস্থা হলেও ২০১৫ সাল পর্যন্ত ভারতবর্ষে কোনো উচ্চগতির রেল পথ গড়ে ওঠেনি। বর্তমানে গতিমান এক্সপ্রেস হল ভারতের সবচেয়ে দ্রুত রেল যার সর্বোচ্চ গতি ১৬০ কিমি/ঘন্টা। বর্তমান সরকার হীরক চতুর্ভুজ নামে উচ্চগতির রেল প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এই রেল এর সর্বোচ্চ গতি হবে ৩৫০ কিমি/ঘন্টা। এক কিমি উচ্চগতির রেল পথ তৈরিতে খরচ হয় ১০০-১৪০ কোটি টাকা(₹) যা সাধারণ রেল পথ নির্মাণের ১০ থেকে ১৪ গুন বেশি। ফলে এটি একটি খরচ সাপেক্ষ প্রকল্প। প্রকল্পটি রূপায়নে জাপান অর্থ সাহায্য দেবে সল্প সুদে।

গতি বৃদ্ধি করার জন্য বর্তমান প্রচেষ্টা ১৬০-২০০ কিমি/ঘন্টা[সম্পাদনা]

পটভূমি[সম্পাদনা]

ভারতীয় রেলের লক্ষ্য হচ্ছে যাত্রী ট্রেনের গতিটি ১৬০-২০০ কিলোমিটার/ঘণ্টা (৯৯-১২৪ মেগাবাইট) উন্নীত করা। তারা উন্নত প্রযুক্তির সাথে নতুন ট্র্যাকের ২০০ কিলোমিটার/ঘণ্টা (১২০ মাইল) গতির সাথে ১৬০ কিলোমিটার/ঘণ্টা (99 মাইল) গতির সামঞ্জস্যের জন্য বিদ্যমান প্রচলিত লাইনগুলিকে উন্নত করার চেষ্টা করছে। [15]

প্রাথমিকভাবে ট্রেনগুলি ১৬০ কিলোমিটার / ঘণ্টা (৯৯ মাইল) গতির সর্বোচ্চ গতিবেগে থাকবে। রেলওয়ে কোচ ফ্যাক্টরি থেকে তৈরি কোচগুলি ২০০ কিলোমিটার / ঘণ্টা (১২০ মাইল) গতিতে চালানো যাবে ২০১৫ সালে। [16] ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কোচ কারখানাগুলি আধা-উচ্চ গতির কোচ তৈরি করছে, কিন্তু ট্র্যাকগুলি এই কোচের গতি সমর্থন করতে সক্ষম নয়।

ভারত ডেডিকেটেড মালবাহী করিডোরের মাধ্যমে বেশিরভাগ যাত্রী রেলওয়ে ট্র্যাক থেকে পণ্যবাহী ট্রেন সরান হবে এবং যাত্রী ট্রেনের গতি ২০০ কিলোমিটার / ঘণ্টা বাড়ানোর জন্য ভারতের রেলওয়ে প্রচেষ্টাকে সমর্থন করবে।

মধ্যমগতির ভারতীয় রেল[সম্পাদনা]

বর্তমানে ভারতে মধ্যম গতির রেল বা সেমি হাই-স্পিড রেল চালু হয়েছে। এই রেলের সর্বোচ্চ গতি ১৬০ কিমি/ঘন্টা এবং গড়গতি ১১৩ কিমি/ঘন্টা। দিল্লী থেকে আগরা পর্যন্ত রেল ব্যবস্থটি চালু হয়েছে। এছাড়া আরও কিছু মধ্যগতির রেল চলু করা হবে। সেগুলির বিবরন নীচে দেওয়া হল-

রুট ট্রেনের নাম রেলের ধরন গতি(ঘন্টায় গেজ বর্তমান অবস্থা
দিল্লী-আগরা গতিমান এক্সপ্রেস সেমি হাই-স্পিড রেল ১৬০ কিমি ১৭৫৬ এমএম সক্রিয়
দিল্লী-চন্ডিগর গতিমান এক্সপ্রেস সেমি হাই-স্পিড রেল ১৬০ কিমি ১৭৫৬ এমএম প্রস্তাবিত
মুম্বাই-গোয়া সেমি হাই-স্পিড রেল ১৬০ কিমি ১৭৫৬ এমএম প্রস্তাবিত
মুম্বাই-আহমেদাবাদ সেমি হাই-স্পিড ১৬০ কিমি ১৭৫৬ এমএম প্রস্তাবিত
চেন্নাই-ব্যাঙ্গালোর সেমি হাই-স্পিড রেল ১৬০ কিমি ১৭৫৬ এমএম প্রস্তাবিত

ভারতের উচ্চগতির রেল[সম্পাদনা]

ভারতের মুম্বাই থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত হাই-স্পিড বা উচ্চগতির রেল নির্মাণ শুরু হবে ২০১৭ সালে ও শেষ হবে ২০২২ সালে । পড়ে রেলপথটি ব্যাঙ্গালোরদিল্লি পর্যন্ত নির্মাণ করা হবে । এছাড়া উচ্চগতির রেল দ্বারা ভারতের চার মেট্রো শহর কলকাতা,দিল্লী,মুম্বাই ও চেন্নাইকে যুক্ত করার জন্য সরকার হীরক চতুর্ভূজ প্রকল্প ঘোষনা করেছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]