বিষয়বস্তুতে চলুন

বাংলাদেশের জলপ্রপাতসমূহের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

চট্টগ্রাম অঞ্চল[সম্পাদনা]

  1. চিংড়ি ঝর্ণা বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলায় অবস্থিত।
  2. নাফাখুম জলপ্রপাত, চট্টগ্রাম বিভাগের বান্দরবান জেলায় অবস্থিত একটি প্রাকৃতিক জলপ্রপাত। মারমা ভাষায় খুম মানে জলপ্রপাত। এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জলপ্রপাত।
  3. রিছাং ঝর্ণা (সাপ মারা রিসাং ঝর্ণা নামেও পরিচিত) খাগড়াছড়ি জেলায় মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা গ্রামে অবস্থিত একটি পাহাড়ি ঝর্ণা। খাগড়াছড়ি শহর থেকে এর দূরত্ব প্রায় ১০ কি.মি.। এই ঝর্ণার উচ্চতা প্রায় ১০০ ফুট।
  4. খৈয়াছড়া ঝর্ণা চট্টগ্রাম জেলার মীরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়ন এর পূর্ব খৈয়াছড়া ০৪ নং ওয়ার্ড এর পাহাড়ে অবস্থিত একটি জলপ্রপাত।
  5. নাপিত্তাছড়া ঝর্ণা বাংলাদেশের চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের খৈয়াছড়া ইউনিয়ন এর পূর্ব নয়দুয়ার নিচতালুক ০৬নং ওয়ার্ডের পাহাড়ে অবস্থিত একটি জলপ্রপাত।
  6. জাদিপাই ঝর্ণা বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলায় অবস্থিত। এটি বাংলাদেশের প্রশস্ততম ঝর্ণাগুলোর মাঝে একটি। এই কারণে এই ঝর্ণা বাংলাদেশের অন্যতম আকর্ষণীয় জলপ্রপাত। বর্ষাকালে জলপ্রপাতের পানি প্রবাহ বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় বৃদ্ধি পায়। বর্ষা মৌসুমে দেশের নানা প্রান্ত থেকে সৌন্দর্য্য পিপাসু মানুষ জাদিপাই ঝর্ণা দেখতে ছুটে আসে।
  7. শুভলং ঝর্ণা বাংলাদেশের রাঙ্গামাটি জেলার বরকল উপজেলায় অবস্থিত।
  8. ধুপপানি ঝর্ণা বাংলাদেশের রাঙ্গামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার একটি ঝর্ণা যা ফারুয়া ইউনিয়নের ওড়াছড়ি নামক স্থানে অবস্থিত। স্থানীয়রা দুপপানি ঝর্ণা নামেও ডেকে থাকে। স্থানীয় শব্দে ধুপ অর্থ সাদা আর পানি যুক্ত করে এটিকে সাদা পানির ঝর্ণাও বলা হয়।
  9. সহস্রধারা ঝর্ণা বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলায় অবস্থিত।
  10. আমিয়াখুম জলপ্রপাত বান্দরবানের থানচি উপজেলার দুর্গম নাক্ষিয়ং নামক স্থানে অবস্থিত। বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত সংলগ্ন আমিয়াখুম জলপ্রপাতকে দেখা হচ্ছে বাংলার ভূস্বর্গ হিসেবে।
  11. ত্লাবং ঝর্ণা (ডাবল ফলস)
  12. দামতুয়া ঝর্ণা (লামোনাই ঝর্ণা)
  13. বাকলাই ঝর্ণা
  14. মুপ্পোছড়া ঝর্ণা
  15. কমলক ঝর্ণা
  16. হাজাছড়া ঝর্ণা (শুকনাছড়া ঝর্ণা)
  17. তিনাপ সাইতার
  18. লুং ফের ভা সাইতার
  19. সিকাম তৈসা ঝর্ণা
  20. তৈদুছড়া ঝর্ণা
  21. ঝরঝরি ঝর্ণা
  22. সুপ্তধারা ঝর্ণা
  23. ঋজুক ঝর্ণা
  24. রাইক্ষং ঝর্ণা
  25. জিংসিয়াম সাইতার ঝর্ণা
  26. বড়ইতলী ঝর্ণা
  27. তুইনুম ঝর্ণা
  28. রুপমুহুরী ঝর্ণা
  29. পোয়ামুহুরী ঝর্ণা
  30. ফাইপি জলপ্রপাত
  31. পাতাং ঝর্ণা
  32. তারেং ঝর্ণা
  33. তুয়ারি মাইরাং
  34. নকাবাছড়া ঝর্ণা
  35. কমলদহ ঝর্ণা
  36. হিমছড়ি ঝর্ণা[১]
  37. গাছকাটা ঝর্ণা[২]
  38. লিখ্যিয়াং ঝর্ণা
  39. তুই কু তুমু ঝর্ণা
  40. পালং খিয়াং ঝর্ণা (তাংখোয়াইন ঝর্ণা)
  41. শীলবান্ধা ঝর্ণা (ছালাওয়া ঝর্ণা)
  42. তৈলাফাং ঝর্ণা
  43. ওয়াং পা ঝর্ণা
  44. ঘাগড়া তৈমা ঝর্ণা (কলাবাগান ঝর্ণা)
  45. লাংলোক ঝর্ণা (লিলুক ঝর্ণা)
  46. ছাগলকান্দা ঝর্ণা
  47. বর্ণাল ঝর্ণা
  48. তেরাং তৈকালাই
  49. তেজেংমা ঝর্ণা
  50. সিজুক ঝর্ণা
  51. তৈছামা ঝর্ণা
  52. হরিণ মারা ঝর্ণা
  53. উদোতয় ঝর্ণা, মাঝের পাড়া, সুয়ালক, বান্দরবান সদর উপজেলা
  54. শৈনগং ঝর্ণা
  55. সাইংপ্রা ঝর্ণা
  56. লাদমেরাখ ঝর্ণা
  57. সোনাইছড়া ঝর্ণা
  58. বাড়বকুণ্ড অগ্নি ঝর্ণা
  59. বাড়বকুণ্ড ত্রি-পল ঝর্ণা
  60. রূপসী ঝর্ণা চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়ন এর পূর্ব পোলমোগরা ০৫ নং ওয়ার্ডের পাহাড়ে অবস্থিত একটি জলপ্রপাত।
  61. লাংলোক ঝর্ণা বা লিলুক ঝর্ণা বান্দরবানের তিন্দু থেকে কিছু দূরে অবস্থিত একটি ঝর্ণা যা কিছুদিন আগে লোকচক্ষুর সামনে এসেছে।
  62. বাক্তলাই ঝর্ণা

সিলেট অঞ্চল[সম্পাদনা]

  1. পরিকুণ্ড জলপ্রপাত, বা, পরিকুণ্ড ঝর্ণা বাংলাদেশের মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত।
  2. মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত, বাংলাদেশের মৌলভিবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত।
  3. হাম হাম কিংবা হামহাম বা চিতা ঝর্ণা, বাংলাদেশের মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার রাজকান্দি সংরক্ষিত বনাঞ্চলের গভীরে কুরমা বন বিট এলাকায় অবস্থিত একটি ঝরণা।
  4. সংগ্রামপুঞ্জি জলপ্রপাত
  5. কুলুমছড়া জলপ্রপাত

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]