দি এন্ডলেস রিভার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দি এন্ডলেস রিভার
A man in a white shirt and tan pants stands in a Thames skiff at the center of the image. He stand-up paddles the Thames skiff across a sea of clouds, heading towards the sun.
পিংক ফ্লয়েড কর্তৃক স্টুডিও অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ৭ নভেম্বর ২০১৪ (2014-11-07)
শব্দধারণের সময়১৯৬৯, ১৯৯৩, ২০১৩–২০১৪
শব্দধারণকেন্দ্র
ঘরানা
দৈর্ঘ্য৫৩:০২
সঙ্গীত প্রকাশনীপার্লোফোন, কলম্বিয়া
প্রযোজক
পিংক ফ্লয়েড কালক্রম
দ্য বেস্ট অব পিংক ফ্লয়েড: অ্যা ফুট ইন দ্য ডোর
(২০১১)
দি এন্ডলেস রিভার
(২০১৪)
১৯৬৫: দেয়ার ফার্স্ট রেকর্ডিংস
(২০১৫)
দি এন্ডলেস রিভার থেকে একক গান
  1. "লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস"
    মুক্তির তারিখ: ১৪ অক্টোবর ২০১৪

দি এন্ডলেস রিভার ব্রিটিশ প্রোগ্রেসিভ রক ব্যান্ড পিংক ফ্লয়েডের পঞ্চদশ এবং সর্বশেষ স্টুডিও অ্যালবাম। এটি ২০১৪ সালের ৭ নভেম্বর পার্লোফোন কর্তৃক ইউরোপে এবং ১০ নভেম্বর কলম্বিয়া রেকর্ডস কর্তৃক বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলে মুক্তি পায়। ১৯৮৫ সালে বেসবাদক রজার ওয়াটার্সের প্রস্থানের পর এটি গিটারবাদক ডেভিড গিলমোরের নেতৃত্বাধীন তৃতীয় পিংক ফ্লয়েড অ্যালবাম। এটি কিবোর্ডবাদক রিচার্ড রাইটের মৃত্যুর পর পিংক ফ্লয়েডের প্রথম অ্যালবাম, যেখানে তার মরণোত্তর উপস্থিত রয়েছে।

পূর্ববর্তী দ্য ডিভিশন বেল (১৯৯৪) অ্যালবামের সেশনের সময় রেকর্ডকৃত উপাদানের উপর ভিত্তি করে দি এন্ডলেস রিভার ইন্সট্রুমেন্টাল এবং চারিপার্শ্বিক সঙ্গীতের সমন্বয়ে গঠিত। অতিরিক্ত উপাদানগুলি গিলমোরের অ্যাস্টোরিয়া স্টুডিওতে এবং হোভের মদিনা স্টুডিওতে যথাক্রমে ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে রেকর্ড করা হয়েছিল। অ্যালবামটি প্রযোজনা করেছেন গিলমোর, ইয়ুথ, অ্যান্ডি জ্যাকসন, ফিল মান্জানেরা। কেবল "লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস" গানটি ছাড়া বাকি ট্র্যাকগুলি যন্ত্রসঙ্গীত। ২০১৩ সালে পিংক ফ্লয়েডের দীর্ঘকালীন শিল্পী স্টর্ম থরগের্সনের মৃত্যুর ফলে, অ্যালবামের প্রচ্ছদ পরিকল্পনা এবং নকশা করেছিলেন শিল্পী আহমেদ ইমাদ এলদিন, ডিজাইন সংস্থা স্টাইলোরুজ এবং থরগের্সন ডিজাইন কোম্পানি হিপনোসিসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা অউব্রে পাওয়েল

দি এন্ডলেস রিভার বিশ্বের বিভিন্ন শহরে "লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস" একক এবং শিল্পকর্ম স্থাপনের মাধ্যমে প্রচারিত হয়েছিল। এটি অ্যামাজন যুক্তরাজ্যের সর্বকালের সর্বোচ্চ অগ্রীম-ক্রয়াদেশ পাওয়া অ্যালবাম হয়ে ওঠে এবং বেশকয়েকটি দেশে প্রথম স্থান অধিকার করে। অ্যালবামের ভাইনাল সংস্করণটি ১৯৯৭ সালে ইউকে ভাইনাল মুক্তির সর্বাধিক বিক্রিত ভাইনাল ছিল। অ্যালবামটি মিশ্র পর্যালোচনা লাভ করে; কিছু সমালোচক এটির নস্টালজিক মেজাজের প্রশংসা করেছেন, অন্যদিকে অনেকে একে অবিশ্বাস্য বা বাঁকাভাবে দেখেছেন।

সঙ্গীত ধারণ[সম্পাদনা]

দি এন্ডলেস রিভার নির্মিত হয়েছিল ব্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রিচার্ড রাইটের সম্মানে, যিনি ২০০৮ সালে মারা যান।

দি এন্ডলেস রিভার মূলত ১৯৯৪ সালের দ্য ডিভিশন বেল স্টুডিও অ্যালবামের সেশনে রেকর্ডকৃত সঙ্গীত উপাদানের উপর ভিত্তি করে তৈরি। দ্য ডিভিশন বেল ১৯৯৩ এবং ১৯৯৪ সালে লন্ডনের ব্রিটানিয়া রো স্টুডিওসে এবং গিটারবাদক ডেভিড গিলমোরের অ্যাস্টোরিয়া স্টুডিওতে রেকর্ড করা হয়েছিল।[৩] সেশনের সময় পিংক ফ্লয়েড বেশ কয়েক ঘন্টাব্যাপী সঙ্গীত রেকর্ড করেছিল;[৪] প্রকৌশলী অ্যান্ডি জ্যাকসন যেটি এক ঘন্টা দীর্ঘ পরিবেষ্টিত রচনায় আঞ্চলিকভাবে দ্য বিগ স্প্লিফ নামে সম্পাদনা করেছিলেন,[৩] তবে ব্যান্ডটি এটি প্রকাশ করেনি।[৫]

২০১৩ সালে ড্রামাবাদক নিক মেইসন (বামে) এবং গিটারবাদক ডেভিড গিলমোর (ডানে) "একবিংশ শতাব্দীর পিংক ফ্লয়েড অ্যালবাম" তৈরির উদ্দেশ্যে প্রকল্পটি গ্রহণ করেছিলেন।

কিবোর্ডবাদক রিচার্ড রাইট ২০০৮ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।[৬] ২০১২ সালে, গিলমোর এবং নিক মেইসন একটি নতুন অ্যালবাম তৈরির জন্য পুনরায় রেকর্ডিং, নতুন সংযোজন এবং আধুনিক স্টুডিও প্রযুক্তি ব্যবহার করার জন্য ডিভিশন বেল অ্যলবামের অব্যবহৃত রেকর্ডিংগুলি পুনর্বিবেচনা করার সিদ্ধান্ত নেয়।[৭] গিলমোর বলেছিলেন: "রিক চলে যাওয়ার পূর্বে তার সাথে কাজ করার এটাই শেষ সুযোগ ছিল, যা পুনরায় কাজ করা ট্র্যাকগুলি আমাদের মঞ্চস্থের অংশ হিসাবে উপলব্ধ করা উচিত।"[৭] দ্য বিগ স্প্লিফের একটি ছোট্ট অংশই ব্যবহৃত হয়েছিল।[৮]

গিলমোর, গিটারবাদক এবং প্রযোজক ফিল মানজনেরাকে উপাদানটিতে কাজ করতে আমন্ত্রণ জানান, যিনি তার ২০০৬ সালের অন এন আইল্যান্ড একক অ্যালবামের সহ-প্রযোজনা করেছিলেন। মানজানেরা, জ্যাকসন এবং প্রকৌশলী ড্যামন ইডডিনস চারটি ১৪ মিনিটের সঙ্গীতাংশের জন্য ছয় সপ্তাহ ব্যয় করেছিলেন। গিলমোর প্রযোজক ইয়থকে দুটি অংশ দিয়েছিলেন, যিনি গিটার এবং বেসের অংশগুলি যুক্ত করেছিলেন। ২০১৩ সালের নভেম্বরে, মেইসন, স্যাক্সোফোনবাদক গিলাদ আতজমন এবং বেসবাদক গাই প্রেটের সাথে উপাদান রেকর্ড করতে গিলমোর, মানজনেরা, ইয়থ এবং জ্যাকসনে সাথে সেশনের নেতৃত্ব দেন।[৩] দুর্গা ম্যাকব্রুম সহ কণ্ঠশিল্পীরা নেপথ্য কন্ঠ রেকর্ড করেছেন, এবং গিলমোর তার স্ত্রী পলি স্যামসনের লেখা[৯] লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস গানে মূল কণ্ঠ দিয়েছিলেন।[১০] ১৯৮৫ সালে পিংক ফ্লয়েড ছেড়ে যাওয়া বেসবাদক এবং গীতিকার রজার ওয়াটার্স অ্যালবামটিকে যুক্ত ছিলেন না।[১১]

অ্যালবামের "অটাম '৬৮" গানের নামটি পিংক ফ্লয়েডের ১৯৭০ সালের "সামার '৬৮" গানে উল্লেখ করা হয়েছে। এতে ১৯৬৯ সালের ২৯ জুন রয়্যাল অ্যালবার্ট হল পাইপ অর্গানের একটি অনুষ্ঠানের মহড়া চলাকালীন একটি রেকর্ডিংয়ে রাইটের বাজানো যুক্ত রয়েছে।[১২][১৩] "টকিন' হকিন'" গানে বিজ্ঞানী স্টিভেন হকিংয়ের একটি ব্রিটিশ টেলিকম বাণিজ্যিক থেকে নেওয়া বক্তৃতার অংশ রয়েছে যা "কিপ টকিং" গানে ডিভিশন বেলের জন্য নমুনাযুক্ত।[১৪] মেইসন "সাম" এবং "স্কিন্স" গানের জন্য আড়াই মিনিটের ড্রাম সলো রচনার কৃতত্বি পেয়েছিলেন।[১২] গিলমোর বলেছিলেন যে তিনি "বেশ নিশ্চিত" যে দি এন্ডলেস রিভার হবে চূড়ান্ত পিংক ফ্লয়েডে অ্যালবাম।[১৫]

সুরারোপ[সম্পাদনা]

দি এন্ডলেস রিভার অ্যালবামে চারটি অংশ রয়েছে, যার বেশিরভাগ পরিবেষ্টিত এবং যন্ত্রসঙ্গীতের অবিচ্ছিন্ন প্রবাহ তৈরি করে।[১৬] গিলমোর বলেছেন: "অপ্রকাশিতভাবে, এটি সেই প্রজন্মের জন্য যারা হেডফোনে শুনতে, এবং বিয়ানব্যাগে বা যে কোনও কিছু রাখতে পছন্দ করে এবং দীর্ঘ সময়ের জন্য সঙ্গীতের অংশ শুনতে পছন্দ করেন। আপনি বলতে পারেন এটি স্বতন্ত্র-ট্র্যাক-ডাউনলোড জেনারেশনের জন্য আইটিউনসের জন্য নয়।"[১৭] মেইসন অ্যালবামটিকে রাইটের প্রতি শ্রদ্ধা হিসেবে বর্ণনা করেছিলেন: "আমি মনে করি যে রেকর্ডটি তিনি যা করেছেন তা অনেকটা বোঝার একটি ভাল উপায় এবং কিভাবে তিনি পিংক ফ্লয়েড শব্দের কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছিলেন। অধিবেশনগুলি শুনে, অবশ্যই মনে হবে, কি বিশেষ বাদক ছিলেন তিনি"[৭]

"লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস" হল লিড ভোকাল সহ একমাত্র ট্র্যাক।*[১৮] ২০০৫ সালের লাইভ এইট পুনর্মিলনের মহড়া চলাকালীন ব্যান্ডের কথোপকথন পর্যবেক্ষণ করার পরে স্যামসন এই গানের কথা লিখেছিলেন, যাা ছিল ২৪ বছরেরও বেশি সময় বিরতির পরে ওয়াটার্সের সাথে তাদের পরিবেশনা। তিনি বলেছিলেন: "আমাকে যা আঘাত করেছিল, তারা কখনও কথা বলেনি ... এটি প্রতিকূল নয়, তারা কেবল কথা বলেন না। এবং তারপরে তারা একটি মঞ্চে পা রাখেন এবং সুরে বলে যে যোগাযোগটি অসাধারণ।"[১৯] দ্য ডিভিশন বেল অ্যালবামের শেষ ট্র্যাক "হাই হোপ্‌স": "দ্য ওয়াটান ফ্লোয়িং / দি এন্ডলেস রিভার / ফর এভার অ্যান্ড এভার" লাইন থেকে থেকে এই অ্যালবামটির শিরোনাম নেওয়া হয়েছে। গিলমোর বলেছেন, এই রেকর্ডগুলির মধ্যে একটি ধারাবাহিকতা রাখার পরামর্শ দেয়া হয়েছিল।[১৫]

মোড়কিকরণ[সম্পাদনা]

দি এন্ডলেস রিভার-এর প্রচ্ছদ শিল্পে এক যুবককে মেঘের সমুদ্রের উপরে সূর্যের দিকে টেমস স্কিফের দিকে দাড় বাইছেন দেখানো হয়েছে।[২০][২১] ২০১৩ সালে দীর্ঘকালীন পিংক ফ্লয়েড শিল্পী স্টর্ম থরগের্সনের মৃত্যুর পরে,[২২] পিংক ফ্লয়েড থরগের্সনের ডিজাইন কোম্পানি হিপনোসিসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা অউব্রে পাওয়েলের সহযোগিতা নিয়েছিলেন।[২৩] পাওয়েল ১৮ বছর বয়সী মিশরীয় শিল্পী আহমেদ ইমাদ এল্ডিনকে আবিষ্কার করেছিলেন এবং তার বিয়ন্ড দ্য স্কাই এর ধারণা দি এন্ডলেস রিভার-এর ব্যবহার করতে বলেছিলেন।[২৪] এলদিন একজন পিংক ফ্লয়েড ভক্ত ছিলেন এবং উৎসাহের সাথে কাজটি গ্রহণ করেছিলেন।[২৫] পাওয়েল অনুভব করেছিলেন যে আহমেদের ধারণার "তাৎক্ষণিক ফ্লয়েডিয় অনুরণন" রয়েছে এবং এটিকে "মায়াময় ও ব্যাখ্যায় উন্মুক্ত" হিসাবে বর্ণনা করেছেন।[২৬] চূড়ান্ত প্রচ্ছদটি ছিল লন্ডনের ডিজাইন ফার্ম স্টাইলরোজের করা এলডিনের কাজের পুননির্মাণ।[২৭] পাওয়েল অনুভব করেছিলেন যে প্রচ্ছদটি শিরোনাম এবং সঙ্গীতের সংমিশ্রণ ঘটিয়েছে এবং টেমসে রেকর্ডিংয়ের জন্য উপযুক্ত।[২০]

দি এন্ডলেস রিভার ডিভিডি এবং ব্লু-রে "ডিলাক্স" সংস্করণেও প্রকাশিত হয়েছিল, এতে ২৪-পৃষ্ঠার হার্ডব্যাক বই, পোস্টকার্ড এবং তিনটি অতিরিক্ত ট্র্যাক এবং ছয়টি সঙ্গীত ভিডিওর বোনাস ডিস্ক রয়েছে।[৯] "টিবিএস৯" এবং "টিবিএস১৪" দুটি ট্র্যাক দ্য বিগ স্প্লিফের আউটটেক।[২৮] ডিভিডি সংস্করণে ডলবি ডিজিটাল এবং ডিটিএস ৫.১ পরিবেষ্টিত শব্দ, সাথে একটি ৪৮ kHz /২৪ বিট স্টেরিও সংস্করণের অ্যালবাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ব্লু-রে সংস্করণে ডিটিএস মাস্টার অডিও এবং পিসিএম, ৯৬/২৪ ৫.১-এর পরিবেষ্টিত এবং একটি পিসিএম স্টেরিও ৯৬/২৪ সংস্করণ রয়েছে।[৯]

প্রচারণা[সম্পাদনা]

লন্ডনের দক্ষিণ তীরে দি এন্ডলেস রিভার-এর প্রচারণা

২০১৪ সালে দ্য ডিভিশন বেল অ্যালবামের ২০তম বার্ষিকী সংস্করণ প্রকাশের পরে দি এন্ডলেস রিভার পার্লোফোন কর্তৃক পরিবেশিত করা দ্বিতীয় পিংক ফ্লয়েড অ্যালবাম। দ্য ডিভিশন বেল, পরবর্তী সরাসরি এবং সংকলন অ্যালবামগুলির সাথে ইওরোপে ইএমআই এবং বিশ্বের অন্য অংশে সনি প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া রেকর্ডস কর্তৃক প্রকাশিত হয়েছিল।

পিংক ফ্লয়েড ইউনিভার্সাল মিউজিক গ্রুপে ইএমআই বিক্রয় দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিল, যা ২০১১ থেকে ২০১৩ অবধি স্থায়ী ছিল। ইউরোপিয় কমিশন এবং ফেডারেল ট্রেড কমিশন কিছু ইএমআই সম্পদ বিক্রয় সহ শর্তাদি সাথে বিক্রয়কে অনুমোদন দেয়।[২৯] ইএমআই রোস্টারের অধীনে থাকা আরও অনেক ব্যান্ডের সাথে পিংক ফ্লয়েড প্রক্রিয়া চলাকালীন বিভিন্ন লেবেলে স্থানান্তরিত হয়েছিল। ইএমআই অধিগ্রহণের পরে ইউনিভার্সাল কর্তৃক অনেকগুলি সম্পদ বিক্রি করার জন্য পার্লোফোনের অধীনে পার্লোফোন লেবেল গ্রুপ গঠিত হয়েছিল, পিংক ফ্লয়েড বিক্রির সময় পার্লোফোন লেবেল গ্রুপে স্থানান্তরিত করে।[৩০] ২০১৩ সালে ওয়ার্নার মিউজিক গ্রুপ, ইএমআই থেকে পার্লোফোন লেবেল গ্রুপ কেনার জন্য ইউনিভার্সালের সাথে একটি চুক্তিবদ্ধ হয়। পিংক ফ্লয়েডের পিছনের ক্যাটালগের প্রকাশের অধিকার এবং প্রক্রিয়াটিতে ভবিষ্যতের প্রকাশগুলি অর্জন করে।[৩১][৩২]

২০১৪ সালের ৫ জুলাই, একটি টুইটে, স্যামসন একটি ট্যাবলয়েড সংবাদপত্রের প্রতিবেদনের জন্য অ্যালবামের শিরোনাম[৩৩] এবং অক্টোবর ২০১৪-এর প্রজেক্টেড রিলিজ উইন্ডো প্রকাশ করেছে।[৩৪] এই ঘোষণার পর নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী দুর্গা ম্যাকব্রুম রেকর্ডিং স্টুডিওতে গিলমোরের পাশাপাশি একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন।[৩৫] ৭ জুলাই পিংক ফ্লয়েডের ওয়েবসাইটে দি এন্ডলেস রিভার সম্পর্কে বিশদ ঘোষণা করা হয়েছিল।[৩৬]

২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর, পিংক ফ্লয়েড এবং পার্লোফোন অ্যালবাম মুক্তির তারিখ, শিল্পকর্ম এবং ট্র্যাক তালিকা সহ অন্তর্নিহিত দি এন্ডলেস রিভার উন্মোচন করেছিল, সাথে একটি প্রচারমূলক ওয়েবসাইট এবং পিংক ফ্লয়েডের ওয়েবসাইটের জন্য একটি হাইপারস্টিটিয়াল রয়েছে।[৩৭] সাইটটিতে শিল্পীর বক্তব্য, ডিভিশন বেল সেশনগুলির আলোকচিত্র, অগ্রিম ফরমায়েশের বিশদ এবং দুটি টিজার, একটিতে "ইট'স হোয়াট উই ডু" গানের ৩০-সেকেন্ডের স্নিপেট এবং একটি টেলিভিশন বিজ্ঞাপন রয়েছে, যেখানে অ্যালবামের জ্যামিতি-ভিত্তিক শিল্পকর্মের বৈশিষ্ট্য রয়েছে।[৩৮][৩৯] বস্তুগত এবং ডিজিটাল বিন্যাসের অগ্রিম ফরমায়েশ একই দিন শুরু হয়েছিল।[৪০][৪১] অ্যালবামের শিল্পকর্মের বিশিষ্ট স্থাপনাগুলির মধ্যে রয়েছে লন্ডনের দক্ষিণ তীরে স্থাপিত একটি চতৃর্পাশ বিশিষ্ট ৮ মিটার লম্বা বিলবোর্ড[৪২][৪৩] এবং বার্লিন, প্যারিস, লস অ্যাঞ্জেলেস, মিলান, নিউ ইয়র্ক এবং সিডনির মতো শহরগুলি সহ বিশ্বজুড়ে বড় আকারের পোস্টার বিজ্ঞাপন স্থাপন করা হয়েছিল।[৪৪][৪৫]

সংক্ষিপ্ত বেতার সম্পাদনা হিসেবে অ্যালবামের একমাত্র একক, "লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস", বিবিসি রেডিও ২-এ ক্রিস ইভান্সের ব্রেকফার্স্ট শোতে প্রিমিয়ার হয়েছিল। গিলমার এবং মেইসন বিবিসি রেডিও ৬ মিউজিকের একটি অ্যালবাম প্রচার করতে এবং রাইটের অবদানগুলি নিয়ে আলোচনা করার জন্য একটি সাক্ষাৎকারে উপস্থিত হয়েছিল। ২০১৪ সালের ৪ নভেম্বর, আইটিউন্স স্টোর থেকে "অ্যালন্স-ওয়াই (১)" ট্র্যাকটি ডাউনলোডের জন্য প্রকাশ করা হয়েছিল। মুক্তির আগের সপ্তাহে, দি এন্ডলেস রিভার অ্যামাজন ইউকের ইতিহাসের সর্বাধিক অগ্রিম ফরমায়েশ অ্যালবামে পরিণত হয়েছিল।[৪৬] পরের সপ্তাহে টেক দ্যাটের ইল গান রেকর্ডটি ভেঙে ফেলেছিল।[৪৭] দি এন্ডলেস রিভার-এর কোনও সফর হয়নি, কারণ গিলমোরের মতে, রাইট ব্যতীত এটি অসম্ভব।[৪৮][৪৯]

সমালোচানামূলক অভ্যর্থনা[সম্পাদনা]

পেশাদারী মূল্যায়ন
সমষ্টিগত স্কোর
উৎসমূল্যায়ন
মেটাক্রিটিক৫৮/১০০[৫১]
পর্যালোচনা স্কোর
উৎসমূল্যায়ন
অলমিউজিক৩.৫/৫ তারকা[৫৯]
দ্য গার্ডিয়ান৩/৫ তারকা[৫২]
দি ইন্ডিপেন্ডেন্টN/A[৫৩]
রেকর্ড কালেক্টর৫/৫ তারকা[৫৪]
এনএমই৫/১০[৫৫]
দি অবজার্ভার৪/৫ তারকা[১২]
পিচফর্ক৫.৭/১০[৫৬]
পপম্যাটার্স৬/১০ medal[৫৭]
রোলিং স্টোন৩.৫/৫ তারকা[৫৮]
আনকাট৩.৫/৫ তারকা[৫১]

দি এন্ডলেস রিভার সঙ্গীত সমালোচকদের নিকট থেকে মিশ্র পর্যালোচনা লাভ করেছে। পর্যালোচনা সমষ্টি সাইট মেটাক্রিটিকে, দি এন্ডলেস রিভার ২৪টি পর্যালোচনার ভিত্তিতে ৫৮ স্কোর লাভ করেছে, যার মধ্যে "মিশ্র বা গড় পর্যালোচনা" অন্তর্ভুুক্ত।[৫১]

ফাইনানশিয়াল টাইমসের লুডোভিচ হান্টার-টিলনেই অ্যালবামের স্মৃতিবেদনাতুর "ফ্লয়েডিয়" শব্দের প্রশংসা করেন। ফ্লয়েডের দ্য ওয়াল (১৯৭৯) অ্যালবামের স্মরণ করে লিখেছেন: ""ক্ষয়ক্ষতিতে অভ্যস্ত একটি ব্যান্ডের পক্ষে তাদের অতীতের এক আকর্ষক আভিজাত্য দিয়ে নিজেদের যাত্রা সমাপ্তি কতটা উপযুক্ত"।[৬০] দ্য মিউজিকের ক্যামেরুন কুপার অ্যালবামটিকে পাঁচের মধ্যে সাড়ে তিন দিয়েছেন। লিখেছেন, এটি "স্বানসংয়ের মতো কম এবং চূড়ান্ত শ্রদ্ধার মতো আরও বেশি অনুভূত হয়েছিল ... কণ্ঠের অপ্রাচুয্য সঙ্গীতকে স্বাধীনতা দিয়েছে, এটি নিজের পক্ষে কথা বলার সুযোগ দেয়"।[৬১] দ্য গার্ডিয়ানের, অ্যালেক্সিস প্রেট্টিডিস বর্ণনা করেন, "এটি বর্তমান ব্যান্ডের নতুন অ্যালবাম না হলেও, এতে অতীতের প্রতিধ্বনি রয়েছে – বা একটি শেষ, উষ্ণ কিন্তু কিছুটা বেমানান দলের আলিঙ্গন ... এই ক্ষেত্রে, এটি ঠিক কাজ করে"। তিনি লিড একক এবং চূড়ান্ত ট্র্যাক "লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস" গানটিকে "রাষ্ট্রীয়, মজাদার এবং মুক্ত হৃদয়" হিসাবে প্রশংসা করেছিলেন।[৫২] রোলিং স্টোনের ডেভিড ফ্রিক লিখেছেন: ""ফ্লয়েডের অন্বেষণের মহিমাময় বাঁধনে রাইট অটল ছিলেন, এই অ্যালবাম একটি অপ্রত্যাশিত, স্বাগত সমাধিফলক।"[৫৮] দি অবজারভার লিখেছে অ্যলবামটি, "একটি অস্পষ্ট কাজ কিন্তু অভ্রান্তচিত্তে ফ্লয়েড ... একটি প্রশংসনীয় ভাল কাজ এনেছে।"[১২]

পপম্যাটার্সের তৃতীয় জে.সি. ম্যাকেক লিখেছেন: ""কন্ঠবিহীন কিছু একটা সুস্পষ্টভাবে অনুপস্থিতি রয়েছে এবং শ্রোতার আরো কিছুর অপেক্ষায় ছিল। যদিও এটি একটি ভাল অ্যালবাম। দি এন্ডলেস রিভার, সর্বশ্রেষ্ঠ রক ব্যান্ডের তাদের ধরন অনুযায়ী চূড়ান্ত অ্যালবাম হিসেবে পরিবেশন খুব মানানসই হয়ে উঠেনি।"[৫৭] দি ইন্ডিপেন্ডেন্টের অ্যান্ডি গিল এটিকে "রিক রাইটের প্যাস্টেল কিবোর্ড ও নিক মেইসনের টেন্টিভেটিক পার্সনের বিপরীতে ডেভ গিলমোরের গিটারের একটি দীর্ঘ সুরের নিখুঁত লক্ষ্যহীন জ্যামিং হিসেবে মন্তব্য করেছেন। যা সিড বা রজারের সৃজনশীলতা ছাড়া, যা কিছু বাকি রয়েছে তা হল ভয়াবহভাবে মজাদার নকল-সাইকিডেলিক ডিনার-পার্টি মিউজিক।"[৫৩] এনএমই লিখেছে: দি এন্ডলেস রিভার, "অনেকটা ১৯৯৪ সালের দ্য ডিভিশন বেল অ্যালবামের পরিচ্ছন্ন আউটটেক সংকলনের মত শোনায়। ঐ সীমিত সময়ে তা যথেষ্ট ভাল কাজ করেছে যা একটি নির্দিষ্ট গ্রিক দৃষ্টিকোণ থেকে আকর্ষণীয়, তবে মোটাদাগে সন্তোষজনক নয়।"[৫৫] পিচফর্ক লিখেছে, "দি এন্ডলেস রিভার হল প্রতিভূ এবং আকুলভাবে পিংক ফ্লয়েডের ভাল বা খারাপ কতিপয় মুক্তির মধ্যে একটি যা পূর্বত কাজের প্রমাণ রাখে।"[৫৬] লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমসের মিখায়েল উড বলেন, "অ্যালবাম প্রচ্ছদে ব্যান্ডের নাম অনেকটা নিস্তেজ স্ট্রেইট-আপ বেইট-অ্যান্ড-সুইচ মনে হচ্ছে।"[৬২]

বাণিজ্যিক কর্মক্ষমতা[সম্পাদনা]

মুক্তির আগের সপ্তাহে, দি এন্ডলেস রিভার অ্যামাজন যুক্তরাজ্যের সর্বকালের সবচেয়ে পূর্ব-অর্ডারযুক্ত অ্যালবাম হিসাবে ওয়ান ডাইরেকশনের ফোর অ্যালবামের রেকর্ড ভেঙ্গেছিল।[৬৩] ইউকে অ্যালবাম চার্টে প্রথম স্থান অর্জনের পাশাপাশি, ২০১৪ সালের তৃতীয় সর্বোচ্চ উদ্বোধনী বিক্রয় সপ্তাহে এর ১৩৯,৩৫১ সংখ্যক কপি বিক্রয় হয়েছে।[৬৪] যা পিংক ফ্লয়েডের ৬ষ্ঠ ইউকে এক নম্বরে পরিণত হয়েছিল।[৬৫][৬৬] ২৭ নভেম্বর ২০১৪ সালের হিসেবে, এর ৬০০০ কপি ভিনাইল সংস্করণ বিক্রি হয়েছে, যা এটিকে ২০১৪ সালের সবচেয়ে দ্রুত বিক্রয় হওয়া ইউকে ভিনাইল মুক্তি এবং ১৯৯৭ সালের পর থেকে সর্বাধিক দ্রুত বিক্রিত অ্যালবামে পরিণত করে।[৬৭] অ্যালবামটি ফ্রান্স, জার্মানি, পর্তুগাল, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়াম, নিউজিল্যান্ড,[৬৮] এবং কানাডা সহ আরও কয়েকটি দেশে প্রথম স্থান অধিকার করেছিল।[৬৯] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, এটি বিলবোর্ড ২০০ চার্টে প্রথম সপ্তাহে ১৭০,০০০ কপি বিক্রি করে ৩ নম্বরে আত্মপ্রকাশ করেছিল;[৭০] জানুয়ারি ২০১৫ সালে, সেখানে ৩৫৫,০০০ কপি বিক্রি হয়েছিল।[৭১] বিশ্বব্যাপী, দি এন্ডলেস রিভার ২০১৪ সালে ২.৫ মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়েছে।[৭২]

ট্র্যাক তালিকা[সম্পাদনা]

সকল গান ডেভিড গিলমোর, ফিল মান্জানেরা, ইয়ুথ এবং অ্যান্ডি জ্যাকসন কর্তৃক প্রযোজিত হয়েছে।

নং.শিরোনামলেখকদৈর্ঘ্য
১."থিংস লেফ্ট আনসেইড"৪:২৬
২."ইট'স হোয়াট উই ডু"
  • গিলমোর
  • রাইট
৬:১৭
৩."ইব্ এ্যান্ড ফ্লো"
  • গিলমোর
  • রাইট
১:৫৫
৪."সাম"
৪:৪৮
৫."স্কিন্স"
  • গিলমোর
  • মেইসন
  • রাইট
২:৩৭
৬."আনসাঙ"রাইট১:০৭
৭."এনাইসিনা"গিলমোর৩:১৬
৮."দ্য লস্ট আর্ট অব কনভার্সেশান"রাইট১:৪২
৯."ওন নুডল স্ট্রিট"
  • গিলমোর
  • রাইট
১:৪২
১০."নাইট লাইট"
  • গিলমোর
  • রাইট
১:৪২
১১."অ্যালন্স-ওয়াই (১)"গিলমোর১:৫৭
১২."অটাম '৬৮"রাইট১:৩৫
১৩."অ্যালন্স-ওয়াই (২)"গিলমোর১:৩৩
১৪."টকিন' হকিন'"
  • গিলমোর
  • রাইট
৩:২৯
১৫."কলিং"গিলমোর, অ্যান্থনি মুর৩:৩৭
১৬."আইস টু পার্ল্স"গিলমোর১:৫১
১৭."সারফেসিং"গিলমোর২:৪৬
১৮."লাউডার দ্যান ওয়ার্ডস"গিলমোর, পলি স্যামসন৬:৩৬
দি এন্ডলেস রিভার ডিলাক্স সংস্করণ
নং.শিরোনামলেখকদৈর্ঘ্য
১৯."টিবিএস৯"গিলমোর, রাইট২:২৭
২০."টিবিএস১৪"গিলমোর, রাইট৪:১১
২১."নির্বাণ"গিলমোর৫:৩২
২২."এনাইসিনা" (ভিডিও)গিলমোর২:৪৯
২৩."আনটাইটেল্ড" (ভিডিও)রাইট১:২২
২৪."এ্যভরিকা (এ)" (ভিডিও)রাইট৫:৫৮
২৫."নির্বাণ" (ভিডিও)গিলমোর৫:৩২
২৬."অ্যালোন্স-ওয়াই" (ভিডিও)গিলমোর৬:০০
২৭."এ্যভরিকা (বি)" (ভিডিও)রাইট৫:৩৩

দ্য লেটার ইয়ার্স পুনমুক্তি[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১৩ ডিসেম্বর, পিংক ফ্লয়েড দ্য লেটার ইয়ার্স ১৯৮৭–২০১৯ বক্স সেট মুক্তি দেয়া হয়। এই বাক্সটিতে ইয়ান এমেসের চলচ্চিত্রে সংকলিত দি এন্ডলেস রিভারের ৫.১ সাররাউন্ড মিক্স, অ্যালবাম সম্পর্কিত শিল্পকর্ম; এবং এর আগে "নির্ভানা" সহ দ্য ডিভিশন বেল অধিবেশনগুলি থেকে অপ্রকাশিত ট্র্যাক অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এছাড়াও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে " লাউডার দ্যান ওয়াডর্স" ভিডিও, অ্যালবামের প্রকাশনা অনুষ্ঠানের ভিডিও এবং বৈদ্যুতিন প্রেস কিট

কর্মিবৃন্দ[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের মুক্তি থেকে অভিযোজিত।[৭৩]