জুলিয়া ড্রিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
"জুলিয়া ড্রিম"
রেলিক্স অ্যালবাম থেকে
পিংক ফ্লয়েড কর্তৃক একক
এ-সাইড"ইট উড বি সো নাইস"
মুক্তিপ্রাপ্ত১২ এপ্রিল ১৯৬৮
রেকর্ডকৃত১৩ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৮, অ্যাবি রোড স্টুডিওস, লন্ডন
ধারাসাইকিডেলিক ফোক
দৈর্ঘ্য:৩৭
লেবেলকলাম্বিয়া (ইএমআই) (ইউকে)
টাওয়ার/ক্যাপিটল (ইউএস)
গান লেখকরজার ওয়াটার্স
প্রযোজকনরম্যান স্মিথ
পিংক ফ্লয়েড কালক্রম কালক্রম
"অ্যাপল্স অ্যান্ড অরেঞ্জেস"
(১৯৬৭)
"জুলিয়া ড্রিম"
(১৯৬৮)
"লেট দেয়ার বি মোর লাইট"
(১৯৬৮)

"জুলিয়া ড্রিম" ব্রিটিশ রক ব্যান্ড পিংক ফ্লয়েডের একক। গিটারবাদক রজার ওয়াটার্স রচিত একটি ১৯৬৮ সালের ১৩ এপ্রিল বি-সাইডে "ইট উড বি সো নাইস" এককের সাথে প্রকাশিত, যেটি রচনা করেছেন কিবোর্ডবাদক ও গায়ক রিচার্ড রাইট[১][২][৩] এটি ডেভিড গিলমোরের কন্ঠে ব্যন্ডের সঙ্গে প্রথম রেকর্ডকৃত গান। এটি ১৯৬৮ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি লন্ডনের অ্যাবি রোড স্টুডিওসে রেকর্ড করা হয়।

রচনা[সম্পাদনা]

বেসিস্ট রজার ওয়াটার্স রচিত "জুলিয়া ড্রিম" কিবোর্ডবাদক রিচার্ড রাইটের স্লো টেম্পো, বায়বীয়, চারিপার্শ্বিক মেলোট্রন এবং লুশ কোরাসের ব্যবহার রয়েছে।

এই গানে একটি এডেরডাউনের উল্লেখ রয়েছে, পিংক ফ্লয়েডের অন্য দুটি পরিচিত গানেও উল্লেখ করা একটি আইটেম – সিড ব্যারেটের "ফ্লেমিং" এবং গিলমোর/ওয়াটার্সের "অ্যা পিলো অব উইন্ডস"।

পরবর্তী মুক্তি[সম্পাদনা]

"জুলিয়া ড্রিম" পরবর্তীতে একাধিক সংকলন অ্যালবামে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে: দা আর্লি ইয়ার্স ১৯৬৫–১৯৭২ বক্স, দা বেস্ট অব পিংক ফ্লয়েড, রেলিক্স, এবং দা আর্লি সিঙ্গেল্স ডিস্ক, যেটি শাইন অন বক্স সেটে অন্তর্ভুক্ত।

কর্মিবৃন্দ[সম্পাদনা]

কভার[সম্পাদনা]

মার্ক লেনেগান, ২০১০ সালে তার অ্যাকোস্টিক সফরে গানটি কভার করছেন।[৪]

অ্যাসিড মাদার্স টেম্পল, ২০১১ সালে লাইভ অ্যাজ অ্যা ট্রিবিডর'’ সরাসরি অ্যাকোস্টিক অ্যালবামে গানটি কভার করেছে।

মোস্টলি অটাম তাদের ২০০৫ সালের পিংক ফ্লয়েড রিভিজিটেড সরাসরি ডিভিডিতে গানটি কভার করেছিল।

শ্যাডো গ্যালারি তাদের "ফ্লয়েডিয়ান মেমোরিজ"-এ গানটি কভার করেছিল, এটি তাদের ২০০৫ সালের রুম ভি অ্যালবামের বিশেষ সংস্করণে পাওয়া যায়।

রুশ যন্ত্রসঙ্গীত ত্রয়ী দ্য রি-স্টোন তাদের ২০১৬ সালের "প্লাজমা" অ্যালবামে গানটি কভার করেছিল।

অল ইন্ডিয়া রেডিও ২০১৯ সালে সাউন্ডক্লাউডে গানের একটি কভার প্রকাশ করেছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. স্ট্রং ২০০৪, পৃ. ১১৭৭।
  2. মাবেট ১৯৯৫, পৃ. ৩৯।
  3. ডি পের্না ২০০২, পৃ. ১৩।
  4. Mark Lanegan Statistics, setlist.fm.

উৎস[সম্পাদনা]

মাবেট, অ্যান্ডি (১৯৯৫)। চার্লসওয়ার্থ, ক্রিস, সম্পাদক। The Complete Guide to the Music of Pink Floyd [দ্য কমপ্লিট গাইড টু দ্য মিউজিক অব পিংক ফ্লয়েড] (ইংরেজি ভাষায়) (১ম ইউকে পেপারব্যাক সংস্করণ)। লন্ডন: অমনিবাস প্রেস। আইএসবিএন 9780711943018ওসিএলসি 925229677 
ডি পের্না, অ্যালান (২০০২)। "মিস্ট্রিরিয়াস ওয়েস"। কিটস, জেফ; টলিনস্কি, ব্রাড। Guitar World Presents: Pink Floyd [গিটার ওর্য়াল্ড প্রেজেন্টস: পিংক ফ্লয়েড]। হাল লিওনার্ড। আইএসবিএন 978-0-7546-6708-7 
স্ট্রং, মার্টিন সি. (২০০৪)। The Great Rock Discography (ইংরেজি ভাষায়) (৭ম সংস্করণ)। এডিনবরা: ক্যানোঙ্গেট বুক্‌সআইএসবিএন 1-84195-551-5ওসিএলসি 863544914 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]