ত্শুল-খ্রিম্স-ছোস-'ফেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ত্শুল-খ্রিম্স-ছোস-'ফেল (তিব্বতি: ཚུལ་ཁྲིམས་ཆོས་འཕེལওয়াইলি: tshul khrims chos 'phel) (১৫৬১-১৬২৩) তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের দ্গে-লুগ্স ধর্মসম্প্রদায়ের দ্গা'-ল্দান বৌদ্ধবিহারের বত্রিশতম দ্গা'-ল্দান-খ্রি-পা বা প্রধান ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত জীবনী[সম্পাদনা]

ত্শুল-খ্রিম্স-ছোস-'ফেল ১৫৬১ খ্রিষ্টাব্দে মধ্য তিব্বতের ন্যাং-'ব্রোং-র্ত্সে (ওয়াইলি: nyang 'brong rtse) নামক স্থানে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ব্রোং-র্ত্সে-ছোস-স্দে (ওয়াইলি: 'brong rtse chos sde) বৌদ্ধবিহারে, ব্ক্রা-শিস-ল্হুন-পো বৌদ্ধবিহারে এবং সেরা বৌদ্ধবিহার বিশ্ববিদ্যালয়ে সূত্র ও তন্ত্র সম্বন্ধে অধ্যয়ন করেন। শিক্ষালাভের পর তিনি দ্গা'-ল্দান বৌদ্ধবিহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাং-র্ত্সে মহাবিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন। পরবর্তীকালে তিনি গ্সাং-স্ঙ্গাগ্স-ম্খার-রি-বো-ব্দে-ছেন (ওয়াইলি: gsang sngags mkhar ri bo bde chen) নামক বৌদ্ধবিহারের প্রধান নির্বাচিত হন। ১৬২০ খ্রিষ্টাব্দে তিনি দ্গা'-ল্দান বৌদ্ধবিহারের বত্রিশতম দ্গা'-ল্দান-খ্রি-পা হিসেবে মনোনীত হন এবং চার বছর ঐ পদে থাকেন। এই সময় ১৬২১ খ্রিষ্টাব্দে তিনি মঙ্গোলগ্ত্সাং-পা রাজবংশের মধ্যে বিরোধের মীমাংসায় ব্লো-ব্জাং-ছোস-ক্যি-র্গ্যাল-ম্ত্শান নামক চতুর্থ পাঞ্চেন লামার ভূমিকাকে সমর্থন করেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Chhosphel, Samten (অক্টোবর ২০১০)। "The Thirty-Second Ganden Tripa, Tsultrim Chopel"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-০৮ 
পূর্বসূরী
দাম-ছোস-দ্পাল-ব্জাং
ত্শুল-খ্রিম্স-ছোস-'ফেল
বত্রিশতম দ্গা'-ল্দান-খ্রি-পা
উত্তরসূরী
গ্রাগ্স-পা-র্গ্যা-ম্ত্শো