চ্যানেল সিক্সটিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চ্যানেল সিক্সটিন
চ্যানেল সিক্সটিনের লোগো.png
উদ্বোধন১৬ ডিসেম্বর ২০১১; ১০ বছর আগে (2011-12-16)
বন্ধ২ ডিসেম্বর ২০১৪; ৭ বছর আগে (2014-12-02)
মালিকানাইনসাইট টেলিকাস্ট
চিত্রের বিন্যাস৫৭৬আই এসডিটিভি
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা
প্রচারের স্থানদেশজুড়ে
প্রধান কার্যালয়ঢাকা, বাংলাদেশ
ওয়েবসাইটchannel-16tv.com

চ্যানেল সিক্সটিন (১৬ ডিসেম্বর উল্লেখে) ছিল একটি বাংলাদেশী বাংলা ভাষার সঙ্গীত টেলিভিশন চ্যানেল, যা ইনসাইট টেলিকাস্টের মালিকানাধীন এবং পরিচালিত। চ্যানেলটি একটি সিঙ্গাপুরভিত্তিক উপগ্রহের মাধ্যমে সম্প্রচার করার অনুমতি পেয়ে ২০১১ সালের ১৬ ডিসেম্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্প্রচার শুরু করে।

২০১৩ সালে গান বাংলার উদ্বোধনের পর্যন্ত এটি বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র সঙ্গীত চ্যানেল ছিল।[১] চ্যানেল সিক্সটিনের মহাপরিচালক ছিলেন কে জি মুহিত, যিনি ২০০৮ সালে সরকারের কাছে ডাউনলিঙ্কে চলিত একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সম্প্রচার করার জন্য আবেদন করেছেন।[২]

একে শুধু বিদেশ থেকে সম্প্রচার করার অনুমতি দেওয়া হয়েও চ্যানেল সিক্সটিন অবৈধভাবে ঢাকা থেকে সম্প্রচার করেছে, ইসরায়েল-ভিত্তিক আরআরস্যাট উপগ্রহের মাধ্যমেও।[২][৩] ২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বরে এর পরীক্ষামূলক সম্প্রচারের লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর, যা তখন থেকে মেয়াদ বাড়ানো হয়নি,[৪] বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন ২০১৪ সালের ২ ডিসেম্বরের মধ্যে চ্যানেল সিক্সটিনকে এর সম্প্রচার বন্ধ করার নির্দেশ দেয়।

কিন্তু, সেই তারিখে এটি অবৈধভাবে সম্প্রচার করতে থাকলো নিজেকে চ্যানেল সিক্সটিন নামে পরিচয় করা বন্ধ করে এবং এর অন-স্ক্রিন বাগ হিসেবে ইংরেজি অক্ষর 'k' (কে) ব্যবহার করা শুরু করে,[৫] এবং পরে এটি 'এমবি' নামে পরিচয় করা শুরু করে, অথবা মাঝের মধ্যে 'মুভি বাংলা', সাথে একটি ঘড়ি জড়িত এর অন-স্ক্রিন বাগ ছিল।[৬] সরকারকে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সম্প্রচার করার জন্যও এটিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Govt orders 'Channel 16' off the air in Bangladesh"বিডিনিউজ টুয়েন্টিফোর। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২২ 
  2. হোসেন, মোছাব্বের (২৯ মে ২০১৪)। "অবৈধভাবে চলছে চ্যানেল সিক্সটিন"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২২ 
  3. মেহেদী, রাশেদ (১০ ডিসেম্বর ২০১৪)। "চ্যানেল সিক্সটিনের নজিরবিহীন প্রতারণা"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২২ 
  4. "চ্যানেল সিক্সটিন বন্ধের নির্দেশ"কালের কণ্ঠ। ৩ ডিসেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২২ 
  5. "বন্ধের নির্দেশের পর অন্য নামে চলছে চ্যানেল ১৬"সমকাল। ৩ ডিসেম্বর ২০১৪। ২০ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৮ 
  6. মেহেদী, রাশেদ (১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬)। "অবৈধ টিভি চ্যানেলের রমরমা বাণিজ্য"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০২২