কাবু ভের্দি জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কাবু ভের্দি
দলের লোগো
ডাকনামতুবারোয়েস আজুইস (নীল হাঙর)[১]
ক্রিউলোস (ক্রেয়ল)
অ্যাসোসিয়েশনকাবু ভের্দীয় ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচএলদোন রামোস
অধিনায়করায়ান মেন্দেস
সর্বাধিক ম্যাচবাবাঙ্কো (৬১)
শীর্ষ গোলদাতাএলদোন রামোস (১৫)[২]
মাঠকাবু ভের্দি জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডCPV
ওয়েবসাইটfcf.cv
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৭১ বৃদ্ধি ২ (৩১ মার্চ ২০২২)[৩]
সর্বোচ্চ২৭ (ফেব্রুয়ারি ২০১৪)
সর্বনিম্ন১৮২ (এপ্রিল ২০০০)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮৬ বৃদ্ধি ৭ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[৪]
সর্বোচ্চ৬৯ (মার্চ ২০১৫)
সর্বনিম্ন১৪৬ (আগস্ট ১৯৯৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 কাবু ভের্দি ০–১ অ্যাঙ্গোলা 
(কাবু ভের্দি; ১৯৭৮)
বৃহত্তম জয়
 কাবু ভের্দি ৭–১ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি 
(প্রাইয়া, কাবু ভের্দি; ১৩ জুন ২০১৫)
বৃহত্তম পরাজয়
 সেনেগাল ৫–১ কাবু ভের্দি 
(মালি; ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮১)
 কাবু ভের্দি ০–৪ ঘানা 
(প্রাইয়া, কাবু ভের্দি; ৮ অক্টোবর ২০০৫)
 গিনি ৪–০ কাবু ভের্দি 
(কোনাক্রি, গিনি; ৯ সেপ্টেম্বর ২০০৭)
 বুর্কিনা ফাসো ৪–০ কাবু ভের্দি 
(উয়াগাদুগু, বুর্কিনা ফাসো; ১৪ নভেম্বর ২০১৭)
আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্স
অংশগ্রহণ২ (২০১৩-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যকোয়ার্টার-ফাইনাল (২০১৩)

কাবু ভের্দি জাতীয় ফুটবল দল (পর্তুগিজ: Seleção nacional de futebol de Cabo Verde, ইংরেজি: Cape Verde national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে কাবু ভের্দির প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম কাবু ভের্দির ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কাবু ভের্দীয় ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৮৬ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ২০০০ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৭৮ সালে, কাবু ভের্দি প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; কাবু ভের্দিতে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে কাবু ভের্দি অ্যাঙ্গোলার কাছে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

১৫,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট কাবু ভের্দি জাতীয় স্টেডিয়ামে নীল হাঙর নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় টেমপ্লেটঅনুলিপি। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন এলদোন রামোস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন আল-নাসরের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় রায়ান মেন্দেস

কাবু ভের্দি এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সে কাবু ভের্দি এপর্যন্ত ২ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ২০১৩ আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সের কোয়ার্টার-ফাইনালে পৌঁছানো, যেখানে তারা ঘানার কাছে ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

বাবাঙ্কো, লিতো, ফের্নান্দো ভারেলা, এলদোন রামোস এবং রায়ান মেন্দেসের মতো খেলোয়াড়গণ কাবু ভের্দির জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে কাবু ভের্দি তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (২৭তম) অর্জন করে এবং ২০০০ সালের এপ্রিল মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৮২তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে কাবু ভের্দির সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৬৯তম (যা তারা ২০১৫ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৪৬। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৬৯ হ্রাস  দক্ষিণ আফ্রিকা ১৩৫৬.০১
৭০ বৃদ্ধি  মন্টিনিগ্রো ১৩৪২.৭৯
৭১ বৃদ্ধি  কাবু ভের্দি ১৩৩৯.৫
৭২ বৃদ্ধি  ইরাক ১৩৩৮.৯১
৭৩ হ্রাস  বুলগেরিয়া ১৩৩৮.৭৮
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৪]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮৪ অপরিবর্তিত  কসোভো ১৫০০
৮৫ বৃদ্ধি  এল সালভাদোর ১৪৮৫
৮৬ বৃদ্ধি  কাবু ভের্দি ১৪৭৬
৮৭ হ্রাস ১০  বেলারুশ ১৪৭৪
৮৮ বৃদ্ধি  বেনিন ১৪৬৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ পর্তুগালের অংশ ছিল পর্তুগালের অংশ ছিল
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ ফিফার সদস্য ছিল না ফিফার সদস্য ছিল না
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি
জার্মানি ২০০৬ ১২ ১২ ১৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮ ১৪
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ৩৪ ১৩ ১৮ ৩৩ ৪৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Conheça as alcunhas das 16 seleções finalistas" [Meet the nicknames of the 16 finalists]। A Bola (পর্তুগিজ ভাষায়)। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩। ১৬ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৩ 
  2. Mamrud, Roberto; Stokkermans, Karel। "Players with 100+ Caps and 30+ International Goals"। RSSSF। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  3. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  4. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]