ঈদুল গাদীর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ঈদুল গাদীর
Mosque at Johfa.JPG
সৌদি আরবের হেজাজের রাবিগ-এর নিকটবর্তী মসজিদে মিক্বাতাল-জুহফাহ; এখানেই কোথাও গাদীর খুমের ঘটনা ঘটেছে বলে মনে করা হয়।
অন্য নামইওমুল মিসাক (চুক্তির দিন)
পালনকারীমুসলিম (শিয়াসুফি)
ধরনশিয়া ইসলাম
তাৎপর্যমুহাম্মদের স্থলাভিষিক্ত হিসেবে আলীর মনোনয়নের দিন
পালনপ্রার্থনা, উপহার আদান-প্রদান, ভোজনোৎসব, দোয়া নুৎবা পাঠ
তারিখজ্বিলহজ্জ ১৮

ঈদুল গাদীর (আরবি: عید الغدیر‎‎) হচ্ছে শিয়া মুসলমানদের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য উৎসবগুলোর অন্যতম। শিয়াদের মধ্যে কথিত আছে যে, এই দিন অর্থাৎ ১৮ জ্বিলহজ্জ তারিখে ইসলামের নবী মুহাম্মদ গাদীর খুমের ভাষণে তাঁর চাচাতো ভাই ও জামাতা আলী ইবনে আবী তালিবকে তাঁর উত্তরসূরি হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন। হাদীস অনুসারে এই ঈদটির নামকরণ করা হয়েছে "ঈদ-আল্লাহ আল-আকবার" (ফার্সি: عیدالله الاکبر) (অর্থাৎ, সর্বশ্রেষ্ঠ ঐশী ঈদ),[১] "ঈদ আহলে বাইত মুহাম্মদ" [২][৩] এবং আশরাফ আল-আ‘আদ" (অর্থাৎ সর্বোচ্চ ঈদ)। [৪][৫]

ধর্মীয় পটভূমি[সম্পাদনা]

হিজরতের দশ বছর পর নবি মুহাম্মদ তাঁর অনুসারীদের (সাহাবি) তার সাথে বিদায় হজে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। ইসলামী পন্ডিতরা বিশ্বাস করেন যে সত্তর হাজারেরও বেশি সাহাবি মুহাম্মদের সাথে এই হজে অংশগ্রহণ করেন। জিলহজ মাসের চতুর্থ দিনে মক্কা নগরীতে প্রবেশের জন্য লক্ষাধিক মুসলমান উপস্থিত হন। [৬][৭] এই হজ থেকে প্রত্যাবর্তনকালে, গাদির খুম নামে পরিচিত একটি স্থানে ১০ হিজরি সালের ১৮ জিলহজ (মার্চ, ৬৩২ খ্রিস্টাব্দ) তারিখে নবি মুহাম্মদ একটি সুপরিচিত খুতবা প্রদান করেন। এই সময় তিনি তার চাচাতো ভাই এবং জামাতা আলী ইবনে আবী তালিব সম্পর্কে বলেন,

যদিও 'মাওলা' শব্দের অর্থ "বন্ধু" বা "অভিবাবক" সহ বিভিন্ন অর্থ রয়েছে এবং অনেক সাহাবী সম্পর্কেই মুহাম্মদ এরকম প্রশংসাসূচক মন্তব্য করেছেন, তবুও শিয়ারা দাবি করে যে এই বক্তব্যের মাধ্যমে মুহাম্মদ তাঁর জামাতা আলী ইবনে আবী তালিবকে উত্তরাধিকারী তথা পরবর্তী খলিফা মনোনীত করেছেন। [১০] ফলস্বরূপ, খুতবাটি শিয়াদের কাছে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা হিসাবে বিবেচিত হয়। তাই তারা প্রতিবছর এই দিন অর্থাৎ ১৮ জিলহজ তারিখে ঈদুল গাদির পালন করে।[১১][১২]

উদযাপন[সম্পাদনা]

বিশ্বব্যাপী শিয়া মুসলমানরা বিভিন্ন রীতিনীতি পালনের মাধ্যমে 'একটি আনন্দের দিন' হিসেবে এই দিনটি উদযাপন করে। [১৩][১৪] ইরান[১৫][১৬][১৭], ভারত, পাকিস্তান, আজারবাইজান,[১৮] ইরাক,[১৯][২০] সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইয়েমেন, আফগানিস্তান, লেবানন, বাহরাইন এবং সিরিয়া সহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের শিয়া সম্প্রদায় এই অনুষ্ঠান পালন করে। এছাড়াও ইউরোপ-আমেরিকার বিভিন্ন দেশে যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স ইত্যাদি দেশের প্রবাসী শিয়া মুসলিমরা ঈদ উল-গাদির উদযাপন করে। [২১][২২][২৩][২৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Al-Hurr al-Aamili, Wasā'il al-Shīʿa, V.8, P.89
  2. The celebration of Ghaidr mashreghnews.ir Retrieved 15 Sep 2018
  3. Sayyed Ibn Tawus, Iqbal al-A'mal, V.2, P.261
  4. Eid Ghadir (Ghadeer) yjc.ir
  5. Muhammad ibn Ya'qub al-Kulayni, Kitab al-Kafi, V.4, P.148
  6. Ghadir Khum ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে al-islam.org
  7. Event of Ghadir Khumm Irfan.ir
  8. জামি আত-তিরমিজী; হাদিস নং–৩৭১৩
  9. সুনানে ইবনে মাজাহ; হাদিস নং–১২১
  10. Vaglieri, Laura Veccia (২০১২)। "G̲h̲adīr K̲h̲umm"Encyclopædia of Islam, Second Edition। Brill Online। সংগ্রহের তারিখ ১১ অক্টোবর ২০১৯ 
  11. Lindsay, James E. (১৯৫৭)। Daily Life in the Medieval Islamic World। Greenwood Press। পৃষ্ঠা 163। 
  12. Campo, Juan Eduardo (২০০৯)। Encyclopedia of Islam। Infobase Publishing। পৃষ্ঠা 257–58। 
  13. The celebration of the event of Ghadir Khum irna.ir
  14. Eid (feast) Ghadir-Khum afkarnews.com
  15. গাদির কুম (ইদ) farsnews.com
  16. Ghadir celebration, Ahwaz, Iran aparat.com
  17. Ghadir celebration irinn.ir Retrieved 22 Sep 2018
  18. Islamic countries, Eid Ghadir Khum hawzah.net
  19. Iraq, Eid Ghadir-Khum alalam.ir Retrieved 22 Sep 2018
  20. ইদ গাদির কুম, ইরাক shia-news.com
  21. Ghadir Khum, celebration alkawthartv.com
  22. Eid Ghadir-Khum, in Georgia iribnews.ir
  23. The celebration of Ghadir, in Saudi Arabia shia-news.com
  24. Ghadir celebration in various countries of the world iqna.ir

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]