হার্বি ওয়েড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Herby Wade থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হার্বি ওয়েড
Herby Wade 1935.jpg
আনুমানিক ১৯৩৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে হার্বিওয়েড
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম(১৯০৫-০৯-১৪)১৪ সেপ্টেম্বর ১৯০৫
ডারবান, দক্ষিণ আফ্রিকা
মৃত্যু২৩ নভেম্বর ১৯৮০(1980-11-23) (বয়স ৭৫)
ইনান্দা, গটেং, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন-
ভূমিকাব্যাটসম্যান, অধিনায়ক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৪৩)
১৫ জুন ১৯৩৫ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৬ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১০ ৭৪
রানের সংখ্যা ৩২৭ ৩৮৫৮
ব্যাটিং গড় ২০.৪৩ ৩৫.৩৯
১০০/৫০ ০/০ ৯/১৮
সর্বোচ্চ রান ৪০* ১৯০
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/- ৫০/-

হার্বার্ট ফ্রেডরিক ওয়েড (ইংরেজি: Herby Wade; জন্ম: ১৪ সেপ্টেম্বর, ১৯০৫ - মৃত্যু: ২৩ নভেম্বর, ১৯৮০) ডারবানে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ১৯৩৫ সাল থেকে ১৯৩৫-৩৬ মৌসুম পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার ১০ টেস্টে অংশগ্রহণ করেছিলেন হার্বি ওয়েডদক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে কোয়াজুলু-নাটালের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে নেতৃত্বও দিয়েছেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

দক্ষিণ আফ্রিকার হিলটন কলেজে অধ্যয়ন করেন। ওয়েড মূলতঃ মাঝারিসারির ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব পালন করতেন।

১৯২৪-২৫ মৌসুমে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে নাটালের পক্ষে অভিষেক ঘটে তার। এ দলটির পক্ষে ১৯৩৬-৩৭ মৌসুম পর্যন্ত খেলোয়াড়ী জীবন অতিবাহিত করান। তন্মধ্যে, শেষের দিক থেকে দ্বিতীয় খেলাটিতে ইস্টার্ন প্রভিন্সের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৯০ রান তুলেছিলেন হার্বি ওয়েড।[১]

১৯৩০-৩১ মৌসুমে দলের অধিনায়কত্ব লাভ করেন ও অবসর গ্রহণের পূর্ব-পর্যন্ত এ দায়িত্বে ছিলেন। সর্বমোট ৭৪টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন। তন্মধ্যে, ৬১টি খেলায় অধিনায়ক হিসেবে দলকে পরিচালনা করেছিলেন।

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ১৯৩৫ সাল থেকে ১৯৩৫-৩৬ মৌসুম পর্যন্ত ১০টি টেস্ট খেলার সৌভাগ্য হয় তার।[২]

টেস্ট ক্রিকেটে অভিষিক্ত হবার পাশাপাশি অংশগ্রহণকৃত প্রত্যেক টেস্টেই দক্ষিণ আফ্রিকা দলের অধিনায়ক ছিলেন হার্বি ওয়েড। তন্মধ্যে, ১৯৩৫ সালে দলকে নিয়ে ইংল্যান্ড সফর করেন। ঐ সফরে তার দল ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়লাভে সমর্থ হয় ও বাদ-বাকী চার টেস্ট ড্রয়ে পরিণত হয়েছিল।

দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক জক ক্যামেরন তার সমসাময়িক ছিলেন ও অধিনায়ক হিসেবে ক্যামেরনের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি।[৩]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

হার্বি ওয়েডের কনিষ্ঠ ভ্রাতা বিলি ওয়েড তার অবসর গ্রহণের পর দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ২৩ নভেম্বর, ১৯৮০ তারিখে ট্রান্সভাল প্রদেশের স্যান্ডটনের ইনান্দা এলাকায় ৭৫ বছর বয়সে তার দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Natal v Eastern Province, 1936-37
  2. "Herby Wade"। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-১১ 
  3. Wisden 1982, p. 1211.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]