ডারবান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডারবান
ডারবানের স্কাইলাইন
ডারবানের পতাকা
পতাকা
ডারবানের প্রতীক
প্রতীক
ডারবান কোয়াজুলু নাটাল-এ অবস্থিত
ডারবান
ডারবান
ডারবান দক্ষিণ আফ্রিকা-এ অবস্থিত
ডারবান
ডারবান
স্থানাঙ্ক: ২৯°৫৩′ দক্ষিণ ৩১°০৩′ পূর্ব / ২৯.৮৮৩° দক্ষিণ ৩১.০৫০° পূর্ব / -29.883; 31.050স্থানাঙ্ক: ২৯°৫৩′ দক্ষিণ ৩১°০৩′ পূর্ব / ২৯.৮৮৩° দক্ষিণ ৩১.০৫০° পূর্ব / -29.883; 31.050
দেশদক্ষিণ আফ্রিকা
প্রদেশকোয়াজুলু নাটাল
পৌরসভাএথেকয়িনি
প্রতিষ্ঠা১৮৮০[১][২]
নামকরণের কারণবেঞ্জামিন ডি আরবান
সরকার
 • ধরনমহানগরীয় পৌরসভা
 • মেয়রMxolisi Kaunda (ANC)
আয়তন[৩]
 • শহর২২৫.৯১ কিমি (৮৭.২২ বর্গমাইল)
 • মহানগর২২৯২ কিমি (৮৮৫ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[৩]
 • শহর৫,৯৫,০৬১
 • জনঘনত্ব২৬০০/কিমি (৬৮০০/বর্গমাইল)
 • মহানগর[৪]৩৪,৪২,৩৬১
 • মহানগর জনঘনত্ব১৫০০/কিমি (৩৯০০/বর্গমাইল)
বিশেষণDurbanite[৫]
বর্ণগত বিন্যাস (২০১১)[৩]
 • কৃষ্ণাঙ্গ51.1%
 • কালার্ডস8.6%
 • ভারতীয়/এশীয়24.0%
 • শ্বেতাঙ্গ15.3%
 • অন্যান্য0.9%
ওয়েবসাইটwww.durban.gov.za

ডারবান (জুলু ভাষায় এ-থেকোয়িনী) হল দক্ষিণ আফ্রিকার কোয়াজুলু নাটাল প্রদেশের বৃহত্তম, এবং দক্ষিণ আফ্রিকার তৃতীয় জনবহুল শহর (জোহানেসবার্গকেপ টাউন এর পর)। এ ছাড়াও ডারবান দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম উত্‍পাদন কেন্দ্র (জোহানেসবার্গের পর)। এই শহরটি দক্ষিণ আফ্রিকা দেশের পূর্ব উপকূলে অবস্থিত দেশের ব্যস্ততম সমুদ্রবন্দর। মনোরম জলবায়ু এবং দীর্ঘ সমুদ্রসৈকত থাকার জন্য শহরটি পর্যটনকেন্দ্র হিসেবেও জনপ্রিয়। প্রায় ৩৪.৪ লক্ষ অধিবাসী সমন্বিত এই শহরটি আংশিকভাবে এ-থেকোয়িনী পৌরনিগমের অন্তর্ভূক্ত।[৬] ২০১৫ র মে মাসে একে দোহা, হাভানা, প্রভৃতি শহরের সাথে সাথে নুতন সপ্তম আশ্চর্য নগরীর তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।[৭]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

মিশ্রিত বিশ্বাস এবং ঐতিহ্যের সাংস্কৃতিক ঐশ্বর্য সহ ডারবান জাতিগতভাবে বৈচিত্র্যময় শহর। জুলুস ডারবানের বৃহত্তম একক নৃগোষ্ঠী গঠন করেছে। এখানে ব্রিটিশ ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত লোকের সংখ্যা ব্যাপক রয়েছে। ডারবানে ভারতীয়দের প্রভাব লক্ষণীয়, তারা তাদের সাথে দেশীয় বিভিন্ন খাবার, সংস্কৃতি এবং ধর্ম নিয়ে এসেছে।[৮]

২০০১ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে ডারবান এবং উত্তর ডারবান, দক্ষিণ ডারবান এবং বেরিয়ারের মতো শহরতলিগুলোর জনসংখ্যা ১০.৯% বৃদ্ধি পেয়ে ৫৩৬,৬৪৪ থেকে ৫৯৫,০৬১ এ উন্নীত হয়েছে।[৯][১০] অন্যান্য বর্ণ গোষ্ঠীর লোক সংখ্যা কমে যাওয়ার সাথে সাথে কালো আফ্রিকানদের সংখ্যা তুলনামুলকভাবে বেড়েছে। কালো আফ্রিকানরা ৩৪.৯% থেকে বেড়ে ৫১.১% এ পৌঁছেছে। ভারতীয় বা এশিয়ানরা ২৭.৩% থেকে কমে ২৪.০% এ দাঁড়িয়েছে। শ্বেতাংরা ২৫.৫% থেকে ১৫.৩% এ নেমেছে। কালার্ডসরা ১০.২৬% থেকে কমে ৮.৫৯% এ দাঁড়িয়েছে। ২০১১ সালের আদমশুমারিতে ০.৯৩% এর মত একটি নতুন জাতিগোষ্ঠী অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। শহরের জনসংখ্যার উপাত্তগুলি ইঙ্গিত দেয় যে জনসংখ্যার ৬৮% কর্মক্ষম বয়সের এবং ডারবানের ৩৮% মানুষ ১৯ বছর বয়সের নিচের বয়সি।[১১]

বছরে সর্বাধিক সংখ্যক ডলার মিলিয়নেয়ার যুক্ত হওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার যে কোনও শহরে মধ্যে এটি প্রথম শহর, সেখানে ২০১৪ সালে ২০০ থেকে ২০০০ এ পৌছেছে।[১২]

যোগাযোগ[সম্পাদনা]

বিমান পরিবহন[সম্পাদনা]

কিং শাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর আভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক উভয় গন্তব্যগুলিকে পরিষেবা প্রদান করে। আভ্যন্তরীণ সকল গন্তব্যের পাশাপাশি আটটি আন্তর্জাতিক গন্তব্যস্থলে পরিসেবা প্রদান করে। আন্তর্জাতিক গন্তব্যগুলি হল লন্ডন হিথ্রো, দুবাই, ইস্তাম্বুল, দোহা, মরিশাস, লুসাকা, উইন্ডহোক এবং গ্যাবরোন। বিমানবন্দরের অবস্থান ডারবান, জোহনেসবার্গ এবং কেপটাউনের মধ্যে একটি স্বর্ণ ত্রিভুজ গঠন করেছে, যা দক্ষিণ আফ্রিকার এই তিনটি প্রধান শহরগুলির মধ্যে সুবিধাজনক ভ্রমণ এবং বাণিজ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ২০১০ সালের মে মাসে বিমানবন্দরটি চালু করা হয়েছিল। কিং শাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ২০১৮/২০১৯ সালে ৫.৯৯ মিলিয়ন যাত্রী পরিচালনা করেছে, যা ২০১৭/২০১৮ সালের থেকে ৬.৬% বৃদ্ধি পেয়েছে। কিং শাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি মধ্য ডার্বান থেকে প্রায় ৩৬ কিলোমিটার (২২ মাইল) উত্তরে লা মার্সিতে নির্মিত হয়েছিল। ২০১০ সালে ১ মে থেকে ডারবান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সমস্ত কার্যক্রম কিং শাকা আন্তর্জাতিক বিমানবনদেরে স্থানান্তর করা হয়েছে।

রিকশা[সম্পাদনা]

যদিও রিকশাগুলি ১৯০০- এর দশকের গোড়ার দিক থেকেই পরিবহনের একটি মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছিল, তারা অন্যান্য ধরণের মোটর চালিত পরিবহণ দ্বারা বাস্তুচ্যুত হয়েছে এবং এখন ২৫ টি বা তার বেশি রিকশার বেশিরভাগ পর্যটকদের চলাচলের বা বিনোদন দেওয়ার জন্য সরবরাহ করা হয়।[১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Evans, Owain। "Chronological Order of Town Establishment in South Africa" 
  2. "Chronological order of town establishment in South Africa based on Floyd (1960:20–26)" (PDF)। পৃষ্ঠা xlv–lii। 
  3. "Main Place Durban"Census 2011 
  4. "Ethekwini"। Statistics South Africa। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-১৭ 
  5. Donal P. McCracken; Eileen M. McCracken। Annals of Kirstenbosch Botanic Gardens। National Botanic Gardens। পৃষ্ঠা 72। 
  6. Statistics South Africa, Community Survey, 2007, Basic Results Municipalities (pdf file) ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৫ আগস্ট ২০১৩ তারিখে. Retrieved 2008-03-23.
  7. Tejada, Ariel Paolo (৯ মে ২০১৫)। "Vigan declared 'Wonder City'"। Manila: The Philippine STAR। ২৮ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  8. Mukherji, Anahita (২৩ জুন ২০১১)। "Durban largest 'Indian' city outside India"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১১-৩০ 
  9. "Census 2001 — Main Place "Durban""। Census2001.adrianfrith.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১২-১০ 
  10. "Census 2011 — Main Place "Durban""। Census2011.adrianfrith.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১২-১০ 
  11. "durban.gov.za"। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  12. Skade, Thandi (২০১৫-০৫-০৭)। "Durban is SA's fastest-growing 'Millionaire City' | DESTINY Magazine"। Destinyconnect.com। ২০১৫-১২-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১২-১০ 
  13. Ethekwini Municipality Communications Department, edited by Fiona Wayman, Neville Grimmet and Angela Spencer। "Zulu Rickshaws"। Durban.gov.za। ১৯ মে ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১০