সেনাপতি জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সেনাপতি জেলা
মণিপুরের জেলা
মণিপুরে সেনাপতির অবস্থান
মণিপুরে সেনাপতির অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যমণিপুর
সদরদপ্তরসেনাপতি
সরকার
 • লোকসভা কেন্দ্রআউটার মণিপুর
 • বিধানসভা আসন৬ খন
আয়তন
 • মোট৩২৭১ কিমি (১২৬৩ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (2011)
 • মোট৪,৭৯,১৪৮
 • জনঘনত্ব১৫০/কিমি (৩৮০/বর্গমাইল)
জনতাত্ত্বিক
 • সাক্ষরতা৭৪.১৩%
 • লিঙ্গানুপাত৯৫৯
যানবাহন নিবন্ধনMN03[১]
প্রধান মহাসড়কNH-39
ওয়েবসাইটদাপ্তরিক ওয়েবসাইট

সেনাপতি জেলা (Pron:/ˌseɪnəˈpʌti/) উত্তর-পূর্ব ভারত-এর মণিপুর রাজ্যের একটি জেলা৷

ভৌগোলিক অবস্থান[সম্পাদনা]

সেনাপতি জেলা ৯৩.২৯° ও ৯৪.১৫° পূর্ব দ্রাঘিমাংশ ও ২৪.৩৭° ও ২৫.৩৭° উত্তর অক্ষাংশে অবস্থিত৷ জেলাটির দক্ষিণে কংপকপি জেলা, পূর্বে উখরুল জেলা, পশ্চিমে তামেংলং জেলা ও উত্তরে নাগাল্যান্ডের কোহিমাফেক জেলা অবস্থিত৷ এই জেলা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উচ্চে অবস্থিত। জেলাটির উষ্ণতা সর্বনিম্ন ৩.৪° সেলসিয়াস থেকে সর্বোচ্চ ৩৪.১° সেলসিয়াস হতে পারে৷

প্রশাসন[সম্পাদনা]

সেনাপতি মণিপুর রাজ্যের চতুর্থ বৃহৎ জেলা৷ এই জেলা উপায়ুক্ত (Deputy Commissioner)র অধীনে পরিচালিত হয়৷

সেনাপতি জেলাটি সাতটি মহকুমায় বিভক্ত:[২]

মহকুমা সদর শহর
মাও-মারাম তাডুবি
পাওমাতা পাওমাতা
পুরুল পুরুল
উইলং উইলং
চিলিভাই-ফাইবুং ফাইবুং
সং সং সং সং
লাইরৌচিং লাইরৌচিং

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

কৃষি[সম্পাদনা]

IMS C.P.Arcade ভবন থেকে দেখতে পাওয়া সেনাপতি জেলার ৩৬০ ডিগ্রী দৃশ্য

সেনাপতি জেলার ৬৬.৪৩% ভূমি অরণ্য ও ২০% কৃষিভূমি৷ এই জেলায় উৎপাদন করা মূল শস্যগুলি হল ধান, গোমধান, আলু, বাঁধাকপি ও মাষজাতীয় শস্য৷ জেলাটির অধিকাংশ লোকই কৃষক৷

সেনাপতি, মণিপুর
নতুন কারং

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

সেনাপতি জেলার ধর্মসমূহ
ধর্ম শতকরা
খ্রীস্টান ধর্ম‎
  
৮৯.০৮%
হিন্দু ধর্ম‎
  
৯.১৫%
তথ্য নাই
  
০.৬৩%
বৌদ্ধ ধর্ম‎
  
০.৫০%
ইসলাম ধর্ম‎
  
০.৩৪%
অন্য
  
০.২৬%
শিখ ধর্ম‎
  
০.০৩%
জৈন ধর্ম‎
  
০.০১%

২০১১ সালের জনগণনা অনুসারে সেনাপতি জেলার মোট জনসংখ্যা ৪,৭৯,১৪৮ জন৷[৩] ভারতের মোট ৬৪০ টি জেলার মধ্যে জনসংখ্যার দিক থেকে এই জেলার স্থান ৫৬৫৷[৩] জেলাটির জনবসতির ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১০৯ জন৷[৩] ২০০১-২০১১ দশকে জেলাটির জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ২৫.১৬% [৩] সেনাপতি জেলার প্রতি ১০০০ জন পুরুষের বিপরীতে মহিলার সংখ্যা ৯৩৯ জন[৩] ও সাক্ষরতার হার ৭৫%৷[৩]

সেনাপতি জেলার অধিবাসীরা মূলত মাও নাগা, মারাম, পউমেই, থাংগাল, জেমেই, লিয়াংমেই, রংমেই (কাবুই), তাংকুল, মেইতেই, থাদউ, নেপালী, ভাইফেই, চোথে, চিরু, মারিং ইত্যাদি উপজাতির লোক৷

ভাষা[সম্পাদনা]

এই জেলায় প্রচলিত মূল ভাষাসমূহ হল:

  • মাও ভাষা
  • পওমাই ভাষা
  • রংমেই ভাষা
  • জেমি ভাষা
  • লিয়াংলাদ
    • জেমি ভাষা
    • মারাম ভাষা
    • খোইরাও ভাষা
    • জিমি ভাষা
    • ইনপুই ভাষা
  • আঙ্গামী পশ্চুরী ভাষা
    • চোকরি ভাষা

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

উৎসব[সম্পাদনা]

সেনাপতি জেলায় পালন করা প্রধান উৎসবসমূহ হল:

  • চাগা গী:এই উৎসব ৩০ অক্টোবরের দিন লিয়াংমাই উপজাতির লোকরা পালন করে৷
  • থৌনি: এই উৎসব পওমাই নাগা উপজাতির লোকরা ৫ জানুয়ারির দিন পালন করে৷
  • লাওনি: এই উৎসব পওমাই নাগাদের কৃষির সঙ্গে জড়িত উৎসব৷ সাধারণত জুলাই মাসের শেষদিকে এই উৎসব পালন করা হয়৷
  • চিথুনি: এই উৎসব ডিসেম্বর মাসে মাও নাগা রা ছয় দিনব্যাপী উদযাপন করে৷
  • সালেনি: এই উৎসব কৃষির সঙ্গে জড়িত৷ জুলাই মাসে ধান রোয়ার সময় মাও নাগারা এই উৎসব উদযাপন করে৷
  • পোংঘি: মারাম নাগা লোকরা জুলাই মাসে ধান রোয়ার সময় সাতদিন ধরে এই উৎসব পালন করে৷
  • কাংঘি: এই উৎসব মারাম নাগারা ডিসেম্বর মাসে সাতদিন পর্যন্ত উদযাপন করে৷ পরম্পরাগত মল্লযুদ্ধ এই উৎসবের এক অন্যতম অঙ্গ৷

পর্যটন[সম্পাদনা]

খ্যাতাওবি
  • কওব্রু পর্বত : এই পর্বত মণিপুরের সর্বোচ্চ উচ্চতার পর্বত৷ এই পর্বত মেইটেই লোকদের জনবিশ্বাসে আরাধ্য দেবতা "কোউব্রু" র উপাসনার স্থল৷ এই পর্বতে অনেক সংখ্যক গুহা আছে৷
  • কওব্রু লাইখা : কওব্রু লাইখা মণিপুরের একটি বিখ্যাত শিব মন্দির৷ এই মন্দিরটি ইম্ফল নদীর পাড়ে অবস্থিত৷ শিবরাত্রির দিন এই মন্দিরে অসংখ্য লোকের সমাগম হয়৷
  • কংপকপি: সেনাপতি জেলার দ্বিতীয় বৃহৎ শহর৷ মূল অধিবাসী থাদও কুকী উপজাতিয় লোকগণ৷
  • মাও দ্বার: মণিপুর-নাগাল্যান্ড সীমান্তে অবস্থিত এক পাহাড়িয়া স্থান৷

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://rtoaifmvd.com/Contact_Manipur.aspx
  2. Office of the Registrar General of India
  3. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:মণিপুর