সুরুল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুরুল
সুরুল
স্থানাঙ্ক: ২৩°৪২′ উত্তর ৮৭°৪২′ পূর্ব / ২৩.৭° উত্তর ৮৭.৭° পূর্ব / 23.7; 87.7
ওয়েবসাইটbirbhum.gov.in/

সুরুল পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার বোলপুর মহকুমার একটি গ্রাম এবং পর্যটন কেন্দ্র। গ্রামটি শান্তিনিকেতন থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি শান্তিনিকেতন আশ্রমেরই একটি অংশ।[১] সুরুল কুঠিতে বসে রবীন্দ্রনাথ অনেক গান ও কবিতা রচনা করেছিলেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সুরুল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতীর লাগোয়া একটি গ্রাম। বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বিরাট অংশ সুরুল মৌজার মধ্যে অবস্থিত। গ্রামটি তার ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ এবং ঐতিহাসিক কারণে বিখ্যাত। সুরুলের অধিবাসীরা মূলত বাগদি, বাউড়ি, হাড়িডোম বর্ণভুক্ত। এছাড়া এখানে কয়েকঘর তাঁতিও বাস করেন। পরবর্তীকালে গ্রামের জমিদারেরা এখানে ব্রাহ্মণ নিয়ে এসে বসত করান।[২]

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আমলে গ্রামটি জন চিপের অধীনে একটি কমার্সিয়াল রেসিডেন্সি ছিল। ১৮৩৫ সালে কোম্পানি এখানে ব্যবসাবাণিজ্য বন্ধ করে দিলে, রেসিডেন্সিটি পরিত্যক্ত। এখন এর কোনো চিহ্নই আর অবশিষ্ট নেই।[৩]

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

সুরুল গ্রামের টেরাকোটা মন্দিরগুলি বিশেষ শিল্পগুণ সমন্বিত। বর্তমানে এগুলি সুসংরক্ষিত। ১৮৩০ সাল নাগাদ জন চিপের মৃত্যুর কয়েক বছরের মধ্যে গ্রামের পুরনো মন্দিরগুলি নির্মিত হয়। অধিকাংশ মন্দিরই শিব মন্দির। একটি মনসা ও একটি পঞ্চরত্ন লক্ষ্মী-জনার্দন মন্দিরও আছে। মন্দিরের দেওয়ালে রামায়ণের ছবি যেমন খোদিত হয়েছে, তেমনই খোদিত হয়েছে এখানে এক সময়ে ব্যবসাবাণিজ্য চালানো ইউরোপীয়দের ছবিও।[২] ১৯৪০-এর দশকে মুকুল দে সুরুল গ্রামের মন্দির শিল্পের প্রচুর ছবি তুলে ফটো-ডকুমেন্টরি তৈরি করেন। এটি ১৯৫৯ সালে নতুন দিল্লির ললিত কলা অকাদেমি থেকে বীরভূম টেরাকোটাস নামে প্রকাশিত হয়।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Santiniketan-Bolpur"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৩-০৫ 
  2. Ghosh, Binoy, Paschim Banger Sanskriti, (in Bengali), part I, 1976 edition, pp. 304-308, Prakash Bhaban
  3. O’Malley, L.S.S., ICS, Birbhum, Bengal District Gazetteers, p. 145, first published 1910, 1996 reprint, Government of West Bengal