শেফালী শাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শেফালী শাহ
রাহুল বোসের ক্রীড়া নিলাম অনুষ্ঠানে শেফালি শাহ
রাহুল বোসের ক্রীড়া নিলাম অনুষ্ঠানে শেফালি শাহ, ২০১২
জন্ম
শেফালী শেঠি

(1972-07-20) ২০ জুলাই ১৯৭২ (বয়স ৪৮)
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৯৫–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীটেমপ্লেট:বিয়ে
বিপুল অমৃতলাল শাহ (বর্তমান)

শেফালী শাহ, জন্মসুবাদে শেঠি (জন্ম ২০ জুলাই ১৯৭২) হলেন একজন ভারতীয় অভিনেত্রী, তিনি বলিউডের ছবিতে কাজ করেন।[১][২] ১৯৯৫ সালে নাটক রঙ্গীলাতে একটি ছোটখাটো চরিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখার পর তিনি অপরাধ বিষয়ক চলচ্চিত্র সত্য ছবিতে পার্শ্ব ভূমিকায় অভিনয় করেন। সত্য ছবিতে তাঁর অভিনয় সমালোচকদের প্রশংসা কুড়ায় এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার সমালোচক পুরস্কার এবং ৪৪ তম ফিল্মফেয়ার পুরষ্কারে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। পরবর্তীকালে পারিবারিক উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনার সমষ্টি ওয়াক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম (২০০৫) অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন।

২০০৭ সালে লাস্ট লেয়ার ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি সমালোচকদের প্রশংসা লাভ করেন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। তিনি ২০১৫ সালে নাটকীয়তা ও কমেডি ধাচের দিল ধাদকানে দো তে অভিনয় করেন, শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে বেশ কয়েকটি মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি প্রধান অভিনেতার সাথে চলচ্চিত্র শিল্পে অনন্য অবদানের জন্য স্ক্রিন পুরস্কার লাভ করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শেফালী শাহ (জন্মসুবাদে শেঠি) ১৯৭২ সালের জুলাই মাসে জন্মগ্রহণ করেন এবং সুধাকর শেঠি (প্রাক্তন আরবিআই কর্মচারী, এবং একটি ম্যাঙ্গালোরীয়) এবং শোভা শেঠির (হোমিওপ্যাথি ডাক্তার, একজন গুজরাটি পরিবারের মেয়ে) একমাত্র সন্তান।[৩] শৈশবকালে তিনি মুম্বাইয়ের সান্তা ক্রুজের আরবিআই কোয়ার্টারে কাটিয়েছেন সেখানেই মুম্বাইয়ের সান্তা ক্রুজের আর্য বিদ্যা মন্দিরে পড়াশোনা করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

রঙ্গিলা (১৯৯৫) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে শেফালী শাহ চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন,[৪] যদিও ছবিটিতে তাঁর মাত্র কয়েকটি দৃশ্য ছিল। তিনি টেলিভিশনে কাভী কাভী ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন।[৫]

তিনি সমালোচকদের কাছে প্রশংসিত ছবি সত্য (১৯৯৮) তে অভিনয় করেন, যার জন্য তিনি স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার সমালোচক পুরস্কার লাভ করেন।

শাহ সফল ছবি ওয়া্ক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম (২০০৫) এ অমিতাভ বচ্চনের স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করেন। ছবিটি পরিচালনা করেছেন তার স্বামী বিপুল শাহ। তার অভিনয় সমালোচকদের কাছে প্রশংসিত হয়েছিল। শেফালী শাহের যুগান্তকারী অভিনয়টি আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হয় মনসুন ওয়েডিংয়ে এ, তিনি রিয়া ভার্মার ভূমিকায় অভিনয় করেন। তিনি গান্ধী, মাই ফাদার ছবিতে কস্তুরবা গান্ধীর ভূমিকায় এবং ২০০৮ সালে নির্মিত ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট চলচ্চিত্রে অনীল কাপুরের স্ত্রীর চরিত্রে পরিপক্ক অভিনয় করেন। ঋতুপর্ণ ঘোষের দ্য লাস্ট লেয়ার এ অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ২০১০ সালে তিনি চন্দ্রকান্ত কুলকার্নির নাটক ধ্যানীমণির হিন্দি সংস্করণ ধ্যানিমনি; বাস ইটনা সা খওয়াব এ কিরণ কর্মকারের বিপরীতে মঞ্চে অভিনয় করেন।[৬]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

শাহ টেলিভিশন অভিনেতা হর্ষ ছায়ার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[৭][৮] তাদের বিবাহবিচ্ছেদের পরে তিনি পরিচালক বিপুল অমৃতলাল শাহকে বিয়ে করেন। এই দম্পত্তির দুটি ছেলে রয়েছে।[৯][১০]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা মন্তব্য
১৯৯৫ রঙ্গিলা গুলবদন বিশেষ উপস্থিতি
১৯৯৮ সত্য পেয়ারি মাত্রে বিজয়ী, শ্রেষ্ট অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার - সমালোচক
২০০০ মোহাব্বতে নন্দিনী খান্না
২০০১ মনসুন ওয়েডিং রিয়া ভার্মা
২০০৫ ওয়া্ক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম সুমিত্রা ঠাকুর
২০০৫ ১৫ পার্ক এভিনিউ লক্ষ্মী জে. রায়
২০০৭ গান্ধী, মাই ফাদার কস্তুরবা গান্ধী বিজয়ী, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী টোকিও আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সব পুরষ্কার
২০০৭ দ্য লাস্ট লেয়ার বন্দনা বিজয়ী, শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার
২০০৮ ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট রমা মাথুর
২০১০ কার্তিক কলিং কার্তিক ড. কাপাদিয়া
২০১১ কুছ লাভ জাইসা মধু সাক্সেনা
২০১৪ লক্ষ্মী জ্যোতি
২০১৫ দিল ধাদকনে দো নীলম মেহরা মনোনীত, শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরষ্কার
২০১৫ ব্রাদার্স মারিয়া ফার্নান্দেস
২০১৬ দ্য জাঙ্গল বুক রক্ষা (কণ্ঠস্বর) হিন্দিতে ভাষান্তরিত
২০১৭ কমান্ডো ২ লীনা চৌধুরী
২০১৭ জুস মঞ্জু সিং বিজয়ী, "শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - মহিলা" জিও ফিল্মফেয়ার শর্ট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০১৮ তে পুরষ্কারপ্রাপ্ত[১১]
২০১৮ ওন্স এগেইন তারা শেঠি বিজয়ী, "সম্পাদকের পছন্দ - শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - মহিলা" পাওয়ার ব্র্যান্ডস থেকে পুরষ্কারপ্রাপ্ত

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

বছর শো ভূমিকা
২০১৯ দিল্লি ক্রাইম বর্তিকা চতুর্বেদী
২০০৮ রামায়ণ সুনয়না
১৯৯৬-১৯৯৭ হস্রটেইন সাবিত্রী/সাবি
১৯৯৭ কাভী কাভী রাধা পাঠক
১৯৯৩-১৯৯৭ বনেগী অপনী বাত রিচা
? রাহেইন প্রধান ভূমিকা
১৯৯৩-১৯৯৪ নয়া নুক্কদ শেফালী শেঠি
১৯৯৬-১৯৯৭ [পাটজাদ] শেফালী শেঠি
১৯৯৭-১৯৯৮ সি হকস ?
১৯৯৩ আরোহণ ক্যাডেট নিবেদিতা
? টলো টিভি কাবুল ?

পুরস্কার এবং মনোনয়ন[সম্পাদনা]

অভিনয়ের পুরষ্কার এবং মনোনয়নের তালিকা
বছর চলচ্চিত্র পুরষ্কার বিভাগ ফলাফল
১৯৯৯ সত্য স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিজয়ী
১৯৯৯ সত্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার সমালোচক পুরস্কার বিজয়ী
১৯৯৯ সত্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার মনোনীত
১৯৯৯ সত্য জি সিনে অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী মনোনীত
২০০৬ ওয়াক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার মনোনীত
২০০৬ ওয়াক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম জি সিনে অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী মনোনীত
২০০৬ ওয়াক্ত: দ্য রেস অ্যাগেইন্সট টাইম স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী মনোনীত
২০০৭ দ্য লাস্ট লেয়ার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার: বিজয়ী
২০০৭ গান্ধী, মাই ফাদার টোকিও আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সব শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী: বিজয়ী
২০০৭ গান্ধী, মাই ফাদার প্রযোজক গিল্ড চলচ্চিত্র পুরষ্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী: মনোনীত
২০১৫ দিল ধাদকনে দো স্টারডাস্ট পুরষ্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে স্টারডাস্ট পুরষ্কার বিজয়ী
২০১৫ দিল ধাদকনে দো ফিল্মফেয়ার পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার মনোনীত
২০১৫ দিল ধাদকনে দো স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড শ্রেষ্ঠ এনসেম্বল কাস্ট বিজয়ী
২০১৮ জুস ফিল্মফেয়ার স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র পুরষ্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা মহিলা বিজয়ী
২০১৯ দিল্লি ক্রাইম আইরীল পুরষ্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - নাটক বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Now, I'll play my age in films: Shefali Shah"The Times of India। ২৪ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  2. "Shefali Shah wins best actor award"The Times of India। ৩০ অক্টোবর ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  3. Vimla Patil (২৪ জানুয়ারি ১৯৯৯)। "The Tribune...Sunday Reading"The Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  4. "The Last Lear is my best performance: Shefali Shah"। Sify। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০০৮। 
  5. "Strong and never silent"। Indian Express। ২৭ এপ্রিল ১৯৯৮। 
  6. Rinky Kumar (২০ আগস্ট ২০১০)। "Re-living a dream"Indian Express। ১৪ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১১ 
  7. "'I get on with life quickly' – Hindustan Times"। ২৩ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২০ 
  8. "Harsh Chhaya's wife Shefali to replace Seema Kapoor in Hasratein"India Today। ১০ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  9. Subhash K Jha (৮ মার্চ ২০০৬)। "People say I look like Kasturba Gandhi: Shefali Shah"Sify। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৮ 
  10. "Married to the 'boss'! Shefali Shah's waqt with Vipul!"Indiatimes.com Movies। ২২ এপ্রিল ২০০৫। ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  11. https://www.filmfare.com/features/winners-of-the-jio-filmfare-short-film-awards-2018-announced-26008-1.html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]