নীনা গুপ্তা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নীনা গুপ্তা
ওকউড প্রিমিয়ার নিশকা লুলা ও মাসাবা’র ডিজাইন শুরুর পূর্বে নীনা গুপ্তা
ওকউড প্রিমিয়ার নিশকা লুলা ও মাসাবা’র ডিজাইন শুরুর পূর্বে নীনা গুপ্তা
জন্ম (1959-07-04) ৪ জুলাই ১৯৫৯ (বয়স ৬০)[১][২]
পেশাঅভিনেত্রী, পরিচালক
কার্যকাল১৯৮২-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীবিবেক মেহরা (২০০৮-বর্তমান)
সঙ্গীভিভ রিচার্ডস (?-১৯৮৯)
সন্তানমাসাবা গুপ্তা

নীনা গুপ্তা (হিন্দি: नीना गुप्ता; জন্ম: ৪ জুলাই, ১৯৫৯) দিল্লিতে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ভারতীয় প্রমিলা চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অভিনেত্রী এবং পরিচালক-নির্মাতা। ‘ওহ চকরি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সেরা সহঃ অভিনেত্রী বিভাগে ১৯৯৪ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।[৩][৪] ভারতীয় বাণিজ্যধর্মী চলচ্চিত্রে জনপ্রিয়তা পেলেও অরবিন্দনশ্যাম বেনেগালের ন্যায় শিল্পধর্মী চলচ্চিত্র নির্মাণেও যথেষ্ট সুখ্যাতি অর্জন করেছেন। শ্রীমান শ্রীমতি টেলিভিশন ধারাবাহিকে অতিথি শিল্পী হিসেবে উপস্থিত হয়েছেন। ‘উইকেস্ট লিঙ্ক’, ‘কমজোর কাদি কৌনের’ ন্যায় টেলিভিশন কুইজ শোতেও তিনি উপস্থাপনা করেছেন।[৫]

আর. এন. গুপ্তের সন্তান তিনি। সানাওয়ারের লরেন্স স্কুলে অধ্যয়ন করেন।[৬] সংস্কৃত বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর একই বিষয়ে এম.ফিল করেন।

অভিনয় কর্ম[সম্পাদনা]

গুপ্তা বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রে অংশগ্রহণ করেছেন। তন্মধ্যে, ১৯৮২ সালের গান্ধী চলচ্চিত্রে তিনি মহাত্মা গান্ধীর নাতনীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও, মার্চেন্ট আইভোরি ফিল্মসের দ্য ডিসিভার্স (১৯৮৮), মির্জা গালিব (১৯৮৯), ইন কাস্টোডি (১৯৯৩), কটন মেরি (১৯৯৯) অন্যতম।

১৯৯৩ সালে খলনায়ক চলচ্চিত্রে মাধুরী দীক্ষিতের সাথে অভিনয় করে। ঐ চলচ্চিত্রের জনপ্র্রিয় গান ‘চোলি কি পিছে’ গানে তার অংশগ্রহণ ছিল। টেলিফিল্ম ‘লাজোয়ান্তি’ ও ‘বাজার সীতারাম’ (১৯৯৩) তিনি নির্মাণ করেন। তন্মধ্যে, বাজার সীতারাম ১৯৯৩ সালে সেরা প্রথম নন-ফিচার চলচ্চিত্র বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮০-এর দশকে সাবেক বিখ্যাত ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসের সাথে সংক্ষিপ্তকালের জন্য গভীর ভালোবাসার সম্পর্কে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেন। ফলশ্রুতিতে ফ্যাশন ডিজাইনার মাসাবা গুপ্তা নাম্নী এক কন্যা সন্তানের জননী হন ও মুম্বইয়ে সে তার শৈশবকাল অতিবাহিত করে।[৭] এছাড়াও, অলোক নাথ ও শারং দেবের সাথেও তার সম্পর্কে জড়ানোর কথা জানা যায়।[৮] ১৫ জুলাই, ২০০৮ তারিখে নতুন দিল্লিভিত্তিক চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ও পিডব্লিউসি ইন্ডিয়ার অংশীদার বিবেক মেহরার সাথে যুক্তরাষ্ট্রে গোপনীয়ভাবে বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ হন।[৯][১০][১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "नीना गुप्ता : सुर्खियों में रहा प्रेम प्रसंग" [Neena Gupta: I love life in the spotlight]। India.com (Hindi ভাষায়)। ৪ জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬ 
  2. "Older actresses hardly have any role: Neena Gupta"News 18 (IANS)। ২৯ জুলাই ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৬the 54-year-old Neena 
  3. "41st National Film Awards"International Film Festival of India। ১৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১২ 
  4. "41st National Film Awards (PDF)" (PDF)Directorate of Film Festivals। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১২ 
  5. Bold and dutiful MALA KUMAR, The Hindu, 16 December 2005.
  6. Nisheeth Sharan’s "Grillopollis" hosts Sanawar’s reunion over its first preview dated 23 October 2010 at glamgold.com, accessed 11 March 2012
  7. Tribune
  8. Neena Gupta Interview with Vir Sanghvi on her relationships
  9. DNA newspaper
  10. Neena Gupta thrilled with marriage, but says "Masaba is priority" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১১ জুন ২০১৫ তারিখে Sify.com, IANS, 29 July 2008.
  11. Neena Gupta opens up... TANVI TRIVEDI, TNN, The Times of India, 22 November 2008.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]