মার্ক গ্রেটব্যাচ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মার্ক গ্রেটব্যাচ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমার্ক জন গ্রেটব্যাচ
জন্ম (1963-12-11) ১১ ডিসেম্বর ১৯৬৩ (বয়স ৫৫)
অকল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাউইকেট-কিপার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক২৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৮ নভেম্বর ১৯৯৬ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই অভিষেক৯ মার্চ ১৯৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৮ ডিসেম্বর ১৯৯৬ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮২-১৯৮৬অকল্যান্ড
১৯৮৬-২০০০সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৪১ ৮৪ ১৭০ ১৭৫
রানের সংখ্যা ২০২১ ২২০৬ ৯৮৯০ ৪৬৭৮
ব্যাটিং গড় ৩০.৬২ ২৮.২৮ ৩৭.৮৯ ২৯.৯৮
১০০/৫০ ৩/১০ ২/১৩ ২৪/৪৩ ২/৩৪
সর্বোচ্চ রান ১৪৬* ১১১ ২০২* ১১১
বল করেছে ১৭১ ১৩
উইকেট
বোলিং গড় - - ১৪৯.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ০/০ ০/৫ ১/২৩ ০/৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৭/০ ৩৫ ১৪৪/০ ৮২/০
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ৩ মার্চ ২০১৬

মার্ক জন গ্রেটব্যাচ (ইংরেজি: Mark Greatbatch; জন্ম: ১১ ডিসেম্বর, ১৯৬৩) অকল্যান্ডে জন্মগ্রহণকারী সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটার। বামহাতি ব্যাটিং ও মাঝে-মধ্যে ডানহাতি মিডিয়াম পেস বোলিংয়ে পারদর্শী গ্রেটব্যাচ নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিকে খেলেছেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করতেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রথম-শ্রেণীর দল অকল্যান্ডসেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টস দলেরও সদস্য ছিলেন তিনি। জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের দল নির্বাচকের দায়িত্বে রয়েছেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

৪১ টেস্টে দুই সহস্রাধিক রান সংগ্রহসহ প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ৯,৮৯০ রান সংগ্রহ করতে পেরেছেন গ্রেটব্যাচ। নভেম্বর, ১৯৮৯ সালে অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে তিনি তার সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৪৬ রান সংগ্রহ করেছিলেন। সেজন্যে তিনি প্রায় ১৪ ঘন্টা ক্রিজে অবস্থান করে দলের পরাজয় রোধসহ ড্র করাতে সমর্থ হন। ১৯৯২ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের প্রথম দুই খেলায় অস্ট্রেলিয়া ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলার জন্য মনোনীত হননি। কিন্তু জন রাইট আহত হওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলার সুযোগ পান তিনি। ইনিংসের সূচনালগ্নে ফিল্ডিংয়ের সীমাবদ্ধতার সুযোগকে কাজে লাগান তিনি।

সেপ্টেম্বর, ২০০৫ সালে ইংল্যান্ডের ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে কোচিং পরিচালক মনোনীত হন।[১] ২০০৭ সালে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপপ্রো৪০ লীগে অবনমন হওয়ায় তার পরিবর্তে অ্যাশলে জাইলস স্থলাভিষিক্ত হন।[২] জানুয়ারি, ২০১০ সালে গ্রেটব্যাচ নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে নিযুক্ত হন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]