বাক্স-রহস্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
বাক্স-রহস্য
লেখক সত্যজিৎ রায়
দেশ ভারত
ভাষা বাংলা
ধারাবাহিক ফেলুদা
ধরণ গোয়েন্দা উপন্যাস
প্রকাশক শারদীয় দেশ, ১৯৭২
প্রকাশনার তারিখ
১৯৭২[১]

বাক্স-রহস্য, সত্যজিৎ রায় রচিত গোয়েন্দা কাহিনী ফেলুদা সিরিজের একটি উপন্যাস।

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

ধনী ব্যবসায়ী দিননাথ লাহিড়ী রাজধানী এক্সপ্রেসে চলাকালীন তার তল্পিতল্পাসহ বাক্সটি হারিয়ে ফেলেন। মূলত বাক্সটি সিমলাবাসী এক ব্যবসায়ী মিঃ ধমিজার সাথে সেটা বদল হয়ে যায়। তিনি ব্যক্তিগত তদন্তকারী প্রদোষ চন্দ্র মিত্র ওরফে ফেলুদাকে নিয়োগ করেন তার হারিয়ে যাওয়া বাক্স উদ্ধারে করতে। তদন্ত করতে গিয়ে ফেলুদা, তোপসে ও জটায়ু খুঁজে পান বাক্সে ছিল বিখ্যাত ভূ-পর্যটক শম্ভুচরণ বোস লিখিত তিব্বত সম্পর্কে অপ্রকাশিত ভ্রমণকাহিনী অ্যা বেংগলি ইন লামাল্যান্ড-এর পাণ্ডুলিপি। সিধু জ্যাঠার কাছ থেকে ফেলুদা জানতে পারে এই পান্ডুলিপি সাহিত্যের এক অমুল্য সম্পদ। সেদিন ট্রেনে যারা ছিল তাদের সকলের কাছে খোঁজ নিয়ে ফেলুদা নিশ্চিত হয় বাক্স বদল হয়েছে সিমলা নিবাসী ধমীজার সাথে। তারা তিনজন সিমলা রওনা দেন। মাঝপথে দিল্লীতে হোটেলে ফেলুদার ওপর হামলা হয় ও বাক্স ছিনতাই হয়ে যায়। ফেলুদা বুঝতে পারে এতে আরও এমন কিছু যার জন্যে অপরাধীরা এই বাক্স পেতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। লালমোহন বাবু ওরফে জটায়ু আবিষ্কার করেন বাক্সে রাখা সুপুরির কৌটে লুকিয়ে রাখা আছে একটি মহামূল্যবান হীরে। বাক্স আসল মালিকের কাছে দিয়ে দীননাথ বাবুর বাক্সটি নিয়ে ফেরার পথে অজ্ঞাত আততায়ী তাদের পথ আটকায়। বরফে ঢাকা রাস্তায় ছোটখাটো লড়াইয়ের পর ধরা পড়ে আসল অপরাধী।

চলচ্চিত্রে রূপায়ণ[সম্পাদনা]

১৯৯৬ সালে এই গল্পের উপর ভিত্তি করে সন্দীপ রায় একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন, যেখানে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন সব্যসাচী চক্রবর্তী (ফেলুদা), রবি ঘোষ (জটায়ু), শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় (তোপসে), অজিত বন্দোপাধ্যায়, বিভূ ভট্টাচার্য[২]

নাট্যরূপায়ন[সম্পাদনা]

বাক্স রহস্য বেতার নাট্যরূপায়নও হয়। যেখানে কন্ঠশিল্পী হিসেবে ছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় (ফেলুদা), সন্তোষ দত্ত (জটায়ু), বিকাশ রায় (মি. পাকড়াশী) হারাধন বন্দ্যোপাধ্যায় (লাহিড়ী), বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় (বিকাশবাবু) প্রমুখ।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ফেলুদা সমগ্র, feluda.net
  2. বাক্স-রহস্য, আইএমডিবিতে