পারভেজ মীর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পারভেজ মীর
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামপারভেজ জামিল মীর
জন্ম২৪ সেপ্টেম্বর, ১৯৫৩
সূত্রাপুর, ঢাকা, পূর্ব পাকিস্তান
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কশহীদ মীর (ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৬)
১১ জুন ১৯৭৫ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই২৩ ডিসেম্বর ১৯৭৭ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা -
রানের সংখ্যা - ২৬
ব্যাটিং গড় - ১৩.০০
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান - ১৮
বল করেছে - ১২২
উইকেট -
বোলিং গড় - ২৫.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং -/- ১/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ২/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৮ মে ২০২০

পারভেজ জামিল মীর (উর্দু: پرویز میر‎‎; জন্ম: ২৪ সেপ্টেম্বর, ১৯৫৩) তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের ঢাকার সূত্রাপুর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক পাকিস্তানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও টেলিভিশন উপস্থাপক। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৭৫ থেকে ১৯৭৭ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে পাকিস্তানের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর পাকিস্তানি ক্রিকেটে হাবিব ব্যাংক লিমিটেড, লাহোর, পাকিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয়, পাঞ্জাব, রাওয়ালপিন্ডি এবং ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ডার্বিশায়ার, গ্ল্যামারগন ও নরফোক দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন পারভেজ মীর

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৭০-৭১ মৌসুম থেকে ১৯৮৪-৮৫ মৌসুম পর্যন্ত পারভেজ মীরের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডে বিভিন্ন দলের সদস্যরূপে ৮০টি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশ নিয়েছেন তিনি।

পারভেজ মীরের ক্রিকেট খেলোয়াড়ী জীবন অনেকটা হঠাৎ আলোর ঝলকানির ন্যায় ছিল। মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিং উদ্বোধন কিংবা প্রথম পরিবর্তিত বোলার হিসেবে অগ্রসর হতেন। ১৭ বছর বয়সে লাহোরের পক্ষে অভিষেক ঘটে তার। ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে পাকিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয় দলের পক্ষে চমৎকার মৌসুম অতিবাহিত করেন। বোলিংয়ে সাফল্য লাভের তুলনায় ব্যাটিংয়ে অধিক সফলতা পান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনটিমাত্র ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন পারভেজ মীর। তন্মধ্যে, দুইটি খেলা ১৯৭৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলেছেন। ১১ জুন, ১৯৭৫ তারিখে বার্মিংহামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। ২৩ ডিসেম্বর, ১৯৭৭ তারিখে শাহীওয়ালে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি। তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

অল-রাউন্ডার হিসেবে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ১৯৭৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের উদ্বোধনী আসরে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেয়ার গৌরব অর্জন করেন। গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই খেলায় অংশ নেন। এরপর, ১৯৭৭-৭৮ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে খেলার জন্যে পুণরায় জাতীয় দলে আমন্ত্রণ জানানো হয়। পরবর্তীতে আর তাকে খেলার সুযোগ দেয়া হয়নি।

ল্যাঙ্কাশায়ার লীগে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে উপেক্ষিত হলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে লাহোরের পক্ষে সফলতার সাথে খেলতে থাকেন। এরইমাঝে দুইবার ইংল্যান্ডে কাউন্টি ক্রিকেটে সংক্ষিপ্ত সময় অতিবাহিত করেন। বিশ্বকাপের পর ডার্বিশায়ারের পক্ষে একটি খেলায় অংশ নেন। এরপর, ১৯৭৯ সালে গ্ল্যামারগনের পক্ষে আরও একটি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণের পর ইংল্যান্ডে ফিরে যান। সেখানে তিনি নরফোকের সদস্যরূপে খেলতেন।

সেন্ট্রাল ল্যাঙ্কাশায়ার লীগে ক্রম্পটন সিসি এবং বোল্টন লীগে এজার্টন, ওয়াকডেন ও কিয়ার্সলি ক্রিকেট ক্লাবে পেশাদারী পর্যায়ে খেলেছেন। শৌখিন ক্লাব ক্রিকেটে নরফোকভিত্তিক ভক্সহল মলার্ডস ইংহাম ও হরসফোর্ড ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন।

অবসর[সম্পাদনা]

পেশাগত পর্যায়ে সাংবাদিক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং অনেক প্রথিতযশা পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ ও আন্তর্জাতিক তারকাদের স্বাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন। আপ নিউজে ‘কিউ এন্ড এ উইদ পিজে মীর’ শীর্ষক সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে আলাপচারিতামূলক অনুষ্ঠান পরিচালনা করছেন।

২০০৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের মিডিয়া ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Players / Pakistan / ODI caps"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ এপ্রিল ২০২০ 
  2. "Pakistan ODI Batting Averages"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ এপ্রিল ২০২০ 
  3. "Pakistan ODI Bowling Averages"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ এপ্রিল ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]