টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামটিনোটেন্ডা কনফিডেন্স মুতোম্বোজি
জন্ম (1990-12-21) ২১ ডিসেম্বর ১৯৯০ (বয়স ২৯)
হারারে, জিম্বাবুয়ে
ডাকনামটাইনো
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ১১২)
২৭ জানুয়ারি ২০২০ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১১৫)
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই৬ মার্চ ২০২০ বনাম বাংলাদেশ
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৪)
২ মার্চ ২০১৩ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টি২০আই১১ মার্চ ২০২০ বনাম বাংলাদেশ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৮/০৯নর্দার্নস
২০০৯/১০ - বর্তমানম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১১ ৫০ ৬৯
রানের সংখ্যা ১১২ ১৫ ১৭১০ ৮১২
ব্যাটিং গড় ১২.৪৪ ৫.০০ ২৩.১০ ১৯.৩৩
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ২/৫ ০/৪
সর্বোচ্চ রান ২৭ ১২ ২৩০ ৭৯
বল করেছে ৩১১ ৬০ ৬৪৬৯ ২০৬৫
উইকেট ১০১ ৪৮
বোলিং গড় ৪৬.৩৩ ৪০.৫০ ৩৫.২২ ৩৩.৬০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ২/৩৩ ২/২৮ ৭/৮৪ ৩/২৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/- ০/- ৪৯/- ৩৪/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১১ মার্চ, ২০২০

টিনোটেন্ডা কনফিডেন্স মুতোম্বোজি (ইংরেজি: Tinotenda Mutombodzi; জন্ম: ২১ ডিসেম্বর, ১৯৯০) হারারে এলাকায় জন্মগ্রহণকারী জিম্বাবুয়ীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ২০১০-এর দশকের শুরুরদিক থেকে জিম্বাবুয়ের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর জিম্বাবুয়ীয় ক্রিকেটে ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলস ও নর্দার্নস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলছেন। ‘টাইনো’ ডাকনামে পরিচিত টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি লেগ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৯ সাল থেকে টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান রয়েছে। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিজ্ঞতাপ্রসূত জ্ঞানের অধিকারী টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি ইতোমধ্যে একবার ইনিংসে সাত উইকেট লাভ করেছেন। শেন ওয়ার্নকে তিনি তার শৈশবের ক্রিকেট বীর হিসেবে দেখতেন। পেশাদারী পর্যায়ে যদি ক্রিকেটার না হতেন, তাহলে তিনি নিজেকে পাইলট হিসেবে দেখার স্বপ্নে বিভোর ছিলেন।

শুরুতে তিনি লেগ স্পিন বোলার হিসেবে খেলোয়াড়ী জীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে ব্যাটিংয়ের দিকেও মনোনিবেশ ঘটাতে থাকেন। হারারে এলাকায় জন্মগ্রহণকারী টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি নয় বছর বয়সে ক্রিকেট খেলায় হাতেখড়ি ঘটান। এরপর, জিম্বাবুয়ের অনূর্ধ্ব-১৩ ও ১৬ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০০৮ সালের আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ে দলের সদস্য ছিলেন। এছাড়াও, ঐ দলের সদস্যলুপে নিউজিল্যান্ড গমন করেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ের ক্রিকেটে অনানুষ্ঠানিক ওডিআইয়ে ৪৩ রান তুলেছিলেন। এছাড়াও, একই সিরিজে ৪/২৭ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান।

স্বর্ণালী সময়[সম্পাদনা]

২০১৪-১৫ মৌসুমে জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তিনি। ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলসের পক্ষে ৩৯.৩৭ গড়ে ৬৩০ রান সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। এছাড়াও, মাউন্টেনিয়ার্সের বিপক্ষে ২৩০ রান তুলেন। এ সংগ্রহটি ঐ মৌসুমের একমাত্র দ্বি-শতরানের ইনিংস ছিল। এ পর্যায়ে তৃতীয় উইকেট জুটিতে মার্ক পেত্তিনিকে সাথে নিয়ে ৩৫২ রান তুলেন। এরফলে, জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে-কোন উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি গড়ে নতুন রেকর্ড গড়েন।[১]

২০১৭-১৮ মৌসুমের লোগান কাপে শীর্ষস্থানীয় উইকেট সংগ্রাহক হন। ম্যাশোনাল্যান্ড ঈগলসের পক্ষে সাত খেলায় ২১ উইকেট পান তিনি।[২] সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সালে আফ্রিকা টি২০ কাপ প্রতিযোগিতায় তারিসাই মুসাকান্দা’র নেতৃত্বাধীন জিম্বাবুয়ের সদস্যরূপে খেলার সুযোগ পান।[৩]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্ট, চৌদ্দটি একদিনের আন্তর্জাতিক ও পনেরোটি টি২০আইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি। ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ তারিখে হারারেতে সফরকারী শ্রীলঙ্কা দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। অন্যদিকে, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ তারিখে সেন্ট জর্জেসে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। ৬ মার্চ, ২০২০ তারিখে সিলেটে স্বাগতিক বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মার্চ, ২০১৩ সালে টি২০আইয়ে অভিষেক ঘটে তার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে জিম্বাবুয়ের ২৪ সদস্যবিশিষ্ট দলে অন্তর্ভূক্ত হন।[৪] সিরিজের তৃতীয় ওডিআইয়ে প্রসপার উতসেয়া’র পরিবর্তে তাকে খেলানো হয়। ডোয়েন ব্র্যাভো ’র রান আউটের পূর্বে তিনি ১৩ রান সংগ্রহ করেছিলেন। ঐ খেলায় নির্ধারিত দশ ওভার বোলিং করে ২/৩৫ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন। ২ মার্চ, ২০১৩ তারিখে একই দলের বিপক্ষে টি২০আইয়ে অভিষেক হয় তার। তবে, ওডিআইয়ের ন্যায় খেলাটিতে সুবিধে করতে পারেননি। মাত্র ২ রান সংগ্রহ করেন ও দুই ওভারে ০/২০ লাভ করেন। তবে, পরবর্তী টি২০আইয়ে চার ওভারে ২/২৮ পেয়েছিলেন।

বাংলাদেশের মুখোমুখি[সম্পাদনা]

নিজ দেশে সফরকারী বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে খেলার জন্যে ২১ সদস্যের জিম্বাবুয়ে দলে অন্তর্ভূক্ত হন।[৫] ১১ মার্চ, ২০১৩ তারিখে বুলাওয়েতে সিরিজের প্রথম টি২০আইয়ে অংশ নিয়ে ৯ বলে অপরাজিত ১২ ও ৪ ওভারে ০/৩৩ পান। ঐ ছাড়াও, খেলায় তিনি দুইটি রান আউটের সাথে জড়িত থাকেন। ঐ খেলায় তার দল ৬ রানে জয় পেয়েছিল।[৬]

২০১৯-২০ মৌসুমে সফরকারী শ্রীলঙ্কা দলের মুখোমুখি হন তিনি। জানুয়ারি, ২০২০ সালে তাকে জিম্বাবুয়ের টেস্ট দলে রাখা হয়।[৭] ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ তারিখে হারারেতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে তার অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wisden 2016, pp. 1176-78.
  2. "Logan Cup, 2017/18, Mashonaland Eagles: Batting and bowling averages"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৮ 
  3. "Musakanda to captain Zimbabwe Select in Africa T20 Cup"Cricket South Africa। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  4. Recall for Edward Rainsford, no space for Chigumbura
  5. Zimbabwe squad of 21 for Bangladesh 2013 home tour
  6. 1st T20I: Zimbabwe v Bangladesh at Bulawayo, May 11, 2013
  7. "Sri Lanka riding on Lahiru Kumara's promise while Zimbabwe lose Kyle Jarvis to injury"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 
  8. "2nd Test, Sri Lanka tour of Zimbabwe at Harare, Jan 27-31 2020"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]