ইমাম নাসাই

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইমাম নাসাই
النسائي.png
জন্ম২১৫ হিজরি ৮৩০ সাল
নাসা, (খোরাসান) বর্তমানে তুর্কমেনিস্তান[১]
মৃত্যু১৩ সফর ৩০৩ হিজরি (৯১৫ সাল)
রামাল্লা বা মক্কা
জাতীয়তাখিলাফত
জাতিভুক্তপারস্য
যুগইসলামি স্বর্ণযুগ
অঞ্চলআব্বাসীয় খিলাফত
সম্প্রদায়সুন্নি
মাজহাবশাফেয়ী[২]
মূল আগ্রহহাদিসফিকহ
লক্ষণীয় কাজসুনানে নাসাই

ইমাম নাসাই (৮৩০-৯১৫)[৩] হলেন একজন প্রখ্যাত হাদীস সংকলক,[৪] যিনি সুন্নীদের নিকট অতি গ্রহণীয় ও সিহাহ সিত্তাহ-এর অন্তর্ভুক্ত সুনানে নাসাই[৫] গ্রন্থটি সংকলন করেছেন। তার পুরো নাম আবু আবদুর রহমান আহমদ ইবনে শোয়াইব ইবনে আলী ইবনে সিনান আল-নাসাই এবং তিনি পারস্যের অধিবাসী ছিলেন।[৬]

জীবনী[সম্পাদনা]

ইমাম নাসাই হিজরি ২১৫ সনে খোরাসানের নাসা শহরে জন্মগ্রহণ করেন।[৭] আল-নাসাই নিজেই বলেছেন যে, তিনি ৮৩০ (২১৫ হিজরি) সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন - যদিও কেউ কেউ মত প্রকাশ করেছেন যে, তার জন্ম তারিখ ৮২৯ বা ৮৬৯ সালে (২১৪ বা ২৫৫ হি:) নাসা শহরে হয়েছিল। আর নাসা শহরটি বর্তমান তুর্কমেনিস্তান - যা খোরাসানের অংশ। এটি পশ্চিম এশিয়া এবং মধ্য এশিয়ার একটি অঞ্চল যা ইসলামি শিক্ষাকেন্দ্রের জন্য সুপরিচিত। সেখানে ইমাম নাসাই "হালকা" নামে পরিচিত জ্ঞান তপস্যার সমাবেশ-মজলিশে অংশ নিয়েছিলেন। প্রায় ১৫ বছর বয়সে তিনি কুতাইবাতে প্রথম যাত্রা শুরু করেছিলেন। তিনি ইরাক, কুফা, হিজাজ, সিরিয়া এবং মিশরের বিদ্বানদের কাছ থেকে জ্ঞান লাভ করে পুরো আরবীয় উপদ্বীপ অতিক্রম করেছিলেন, যেখানে তিনি শেষ পর্যন্ত স্থায়ীভাবে বসতি স্থাপন করেছিলেন।

শিক্ষকগণ[সম্পাদনা]

শৈশবকালে স্বদেশে তিনি যেসব খ্যাতিমান শায়খের কাছ থেকে শিক্ষার্জন করেন তারা হলেন হুমাইদ ইবনে মাখলাদ (মৃঃ ২৪৪ হিঃ), আম্মার ইবনুল হাসান (মৃঃ ২৪২ হিঃ) প্রমুখ ।[৮] শুধু স্বদেশেই তিনি সীমাবদ্ধ থাকেননি, জ্ঞান অর্জনের জন্য ইমাম নাসাই বিভিন্ন দেশে সফর করে হাদিসের বিখ্যাত শায়খদের সান্নিধ্য পান । ইলমে হাদিসের অসংখ্য মনীষী থেকে তিনি হাদিস শ্রবণ করেছেন । ইমাম ইবনু হাজার আল আসক্বালানী (রহঃ) বলেছেন, ইমাম নাসায়ী (রহঃ) এঁর অসংখ্য শিক্ষক ছিলেন, তাঁদের সংখ্যা গোনা সম্ভব নয়, তবে তাঁর বেশিরভাগ শিক্ষকেরই নাম তাঁর সুনানে উল্লেখিত হয়ে গিয়েছে। [৯] সুনানু কুবরা-তে ইমাম নাসাই (রহঃ) ৪০৩ জন শিক্ষকের নিকট থেকে এবং সুনানু ছুগরা তথা সুনানে নাসাঈ-তে ৩৩৫ জন শায়খের নিকট থেকে হাদিস বর্ণনা করেছেন । তবে ইবনু আসাকিরের বর্ণনা মতে তাঁর শিক্ষকের সংখ্যা ৪৪৪ জন ।[১০] ইমাম নাসাই সর্বপ্রথম বিদেশে পরিভ্রমণ করে কুতাইবা ইবনু সাঈদ (মৃঃ ২৪০ হিঃ)-এর নিকট থেকে জ্ঞানার্জন করেছেন ।[১১] তাঁর উল্লেখযোগ্য শিক্ষকের মধ্যে রয়েছেন :

  • ইসহাক ইবনু রাহওয়াইহ ( যিনি ইমাম বুখারী (রহঃ)-এরও উস্তায) ।
  • মুহাম্মাদ ইবনু নযর
  • আলী ইবনু হাজার
  • ইউনুস ইবনু আব্দুল আলা
  • মুহাম্মাদ বিন বাশার
  • ইমাম আবূ দাঊদ সিজিস্তানী
  • বিশর ইবনে হেলাল
  • আল-হাসান ইবনুস সাববাহ আল-বাযযার
  • আম্মার ইবনে খালেদ আল-ওয়াসিতী
  • ইমরান ইবনে মূসা আল-কাযযায প্রমুখ ।[১২]

ইবনু হাজার আসক্বালানী (রহঃ) ইমাম বুখারী (রহঃ)-কেও ইমাম নাসাঈ (রহঃ)-এর শিক্ষক হিসাবে গণ্য করেছেন । তবে আল-মিজি এ কথা অস্বীকার করেছেন । আল- মিজির বক্তব্য হল যে, ইমাম নাসাই ইমাম বুখারীর সাথে কখনও সাক্ষাত করেছেন । আবু যুর‘আ ও আবু হাতিম আর-রাযী থেকেও ইমাম নাসাইর হাদীছ বর্ণনা প্রমাণিত হয়েছে ।[১৩]

ছাত্রবৃন্দ[সম্পাদনা]

তার থেকে অনেক বিখ্যাত মুহাদ্দিসই হাদিস শাস্ত্র সম্পর্কে জ্ঞানার্জন করেছেন। তাদের মধ্যে বিখ্যাত কয়েকজনের নাম এখানে উল্লেখ করা হলো-

  • ইমাম আবুল কাসিম তাবারানি
  • আবু জাফর আত-তাহাবী
  • ইব্রাহিম বিন মুহাম্মদ বিন সালিহ বিন সিনান
  • আবু আলী হোসাইন বিন মুহাম্মদ নিশাপুরী, নিশাপুরী নামে বিখ্যাত
  • মুহাম্মদ বিন মু'আভিয়া বিন আহমার আন্দালুসী
  • আল-হাসান বিন রাশিক
  • মুহাম্মদ বিন হাইওয়েহ
  • হামযা আল-কিনানী, প্রমুখ।[১৪]

ফিক্বহী মাযহাব[সম্পাদনা]

শাহ ওয়ালি উল্লাহ মুহাদ্দিসে দেহলভী, শাহ আবদুল আজিজ দেহলভী এবং অন্যান্য অনেক আলেমগণ তাকে শাফেয়ী মাযহাবের অনুসারী হিসাবে উল্লেখ করেছেন। তবে আল্লামা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরি বিচার বিশ্লেষণ করে বলেছেন, ইমাম আবু দাউদ ও ইমাম আবু আব্দুর রহমান নাসায়ী (রহ.) উভয়েই হাম্বালী মাযহাবের ছিলেন। যদিও বলা হয় তাঁরা শাফিয়ী ছিলেন, তবে সত্য হলো তাঁরা উভয়েই ছিলেন হাম্বালী।[১৫]

রচিত গ্রন্থাবলি[সম্পাদনা]

তিনি হাদিসের বিভিন্ন বিষয়ের উপর অনেকগুলো গ্রন্থ রচনা করেছেন। উল্লেখযোগ্য কয়েকটির তালিকা:

  • আস-সুনান আল-কুবরা
  • সুনানে নাসাই
  • মুসনাদে আলী
  • মুসনাদে মালিক
  • খাসাইসু আমিরিল মুমিনিন
  • ফাযায়েলে কুরআন
  • ফাযায়েলে সাহাবা
  • কিতাবুল মানাসিক
  • কিতাবুল তাময়ীয
  • কিতাবুল মুদাল্লিসিন
  • কিতাবুল ইখওয়াহ
  • কিতাবুল জারহি ওয়াত তা'দীল
  • মানাসিকে হজ্জ
  • কিতাবুল আলমি
  • আমালু ইয়াওমি ওয়াল লাইলাহ

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৮ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  2. Ṭabaqāt aš-Šāfiʿiyya al-kubrā. Vol. 3, p. 14–16 (Kairo 1965)
  3. "হাদিস অন্বেষণে জীবন কাটানো এক মনীষা"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমঅনলাইন। ২৩ নভেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  4. Ludwig W. Adamec (2009), Historical Dictionary of Islam, p.138. Scarecrow Press. আইএসবিএন ০৮১০৮৬১৬১৫.
  5. Jonathan A.C. Brown (2007), The Canonization of al-Bukhārī and Muslim: The Formation and Function of the Sunnī Ḥadīth Canon, p.10. Brill Publishers. আইএসবিএন ৯৭৮-৯০০৪১৫৮৩৯৯. Quote: "We can discern three strata of the Sunni hadith canon. The perennial core has been the Sahihayn. Beyond these two foundational classics, some fourth/tenth-century scholars refer to a four-book selection that adds the two Sunans of Abu Dawud (d. 275/889) and al-Nasa'i (d. 303/915). The Five Book canon, which is first noted in the sixth/twelfth century, incorporates the Jami' of al-Tirmidhi (d. 279/892). Finally the Six Book canon, which hails from the same period, adds either the Sunan of Ibn Majah (d. 273/887), the Sunan of al-Daraqutni (d. 385/995) or the Muwatta' of Malik b. Anas (d. 179/796). Later hadith compendia often included other collections as well.' None of these books, however, has enjoyed the esteem of al-Bukhari's and Muslim's works."
  6. Frye, ed. by R.N. (১৯৭৫)। The Cambridge history of Iran. (Repr. সংস্করণ)। London: Cambridge U.P.। পৃষ্ঠা 471। আইএসবিএন 978-0-521-20093-6 
  7. ইমাম নাসাঈ
  8. ড. আব্দুল্লাহ মুছতফা মুরতাযা, রুবাঈয়্যতুল ইমাম আন-নাসাঈ ফিস সুনানিল কুবরা, অপ্রকাশিত এম.এ থিসিস, গাযা : জামে‘আতুল আযহার, ২০১২ ইং/১৪৩৩ হিঃ, পৃঃ ১৪ ।
  9. তাহযীবুত তাহযীব, লেখক - আল্লামা ইবনু হাজার আল আসক্বালানী, খন্ড ১, পৃষ্ঠা - ৩৭
  10. রুবাঈয়্যাতুল ইমাম আন-নাসাঈ ফিস সুনানিল কুবরা, পৃঃ ২৩ ।
  11. ড. তাকীউদ্দীন নাদভী, আ‘লামুল মুহাদ্দিছীন, (বৈরূত : দারুল বাশায়ির আল-ইসলামিয়্যাহ, ২০০৭ ইং/১৪২৮ হিঃ) ।
  12. ড. তাকীউদ্দীন নাদভী, আ‘লামুল মুহাদ্দিছীন, (বৈরূত : দারুল বাশায়ির আল-ইসলামিয়্যাহ, ২০০৭ ইং/১৪২৮ হিঃ), পৃঃ ১২৫-২৭ ।
  13. ড. তাকীউদ্দীন নাদভী, আ‘লামুল মুহাদ্দিছীন, (বৈরূত : দারুল বাশায়ির আল-ইসলামিয়্যাহ, ২০০৭ ইং/১৪২৮ হিঃ), পৃঃ ২৫২ ।
  14. https://ar.m.wikipedia.org/wiki/%D8%A3%D8%AD%D9%85%D8%AF_%D8%A8%D9%86_%D8%B4%D8%B9%D9%8A%D8%A8_%D8%A7%D9%84%D9%86%D8%B3%D8%A7%D8%A6%D9%8A
  15. মা'রিফুস সুনান,লেখক - মুহাম্মাদ আনওয়ার শাহ কাশ্মীরি ও মুহাম্মাদ ইউসুফ বীন যাকারিইয়া আল হুসাইনী আল বান্নুরী, খন্ড - ১, পৃষ্ঠা - ৮৩

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]