আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল
গঠিত১৯৯৬
অবস্থান
স্থানাঙ্ক৩৭°৪৯′০৬″ দক্ষিণ ১৪৪°৫৮′৫১″ পূর্ব / ৩৭.৮১৮৩২৮° দক্ষিণ ১৪৪.৯৮০৮° পূর্ব / -37.818328; 144.9808
সদস্যপদ
১১
আঞ্চলিক ম্যানেজার
এন্ড্রিউ ফেইচনি
প্রধান প্রতিষ্ঠান
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
ওয়েবসাইটwww.icc-cricket.com/about/members/east-asia-pacific

পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল (ইংরেজি: ICC East Asia-Pacific) ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠিত ক্রিকেটের একটি সংগঠনবিশেষ। পূর্ব এশিয়া ও প্রাশান্ত মহাসাগরীয় ক্রীড়াঙ্গনে ক্রিকেটের মানোন্নয়ন ও প্রসারের লক্ষ্যে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। একটি আঞ্চলিক প্রশাসনিক সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে এটি গঠিত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসি'র নিয়ন্ত্রণে এটি পরিচালিত হয়।

সংঠনের আঞ্চলিক অফিস ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। অঞ্চলটিতে দুটি টেস্ট সদস্য, চারটি আইসিসির সহযোগী সদস্য এবং পাঁচটি আইসিসি অনুমোদিত দেশ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।[১][২]

অঞ্চলটির দায়িত্ব রয়েছে আঞ্চলিক উন্নয়ন ব্যবস্থাপক অ্যান্ড্রু ফাইচনি, যার কর্মস্থল অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থিত ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অফিসে। এটি এই অঞ্চলের অফিসিয়াল টেস্ট ক্রিকেট সদস্য অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল দ্বারা সাহায্যপ্রাপ্ত। এশিয়ার পাঁচটি টেস্ট ক্রিকেট দেশ (আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা যারা দক্ষিণ এশিয়ায় খেলছে) এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সদস্য।[৩][৪]

আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা এবং কার্যক্রমগুলোর জন্য দায়ী, যেমন: প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া, কোচিং কোর্স (প্রশিক্ষকের শিক্ষা), আম্পায়ারিং কোর্স, যুব উন্নয়ন এবং প্রশিক্ষণ; এই অঞ্চলে জুনিয়র / স্কুল প্রোগ্রাম, প্রশাসনের উন্নয়ন, বিপণন।[৩]

প্রতিযোগিতাসমূহ[সম্পাদনা]

ইএপি আইসিসি ইএপি ক্রিকেট ট্রফি আয়োজনের জন্যও দায়ী, যা আঞ্চলিক আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতা এবং এই অঞ্চলের দলগুলিকে একদিনের আন্তর্জাতিক এবং টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বিশ্বকাপে এবং টেস্ট ক্রিকেটের মতো অন্যান্য প্রতিযোগিতায় খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জনের সুযোগ দেয়। আইসিসি ইএপি ক্রিকেট ট্রফির মধ্যে ২০০৫ সালে শুরু হওয়া আইসিসি ইএপি ক্রিকেট ট্রফি (লিস্ট এ) এবং ২০১১ সালে শুরু হওয়া আইসিসি ইএপি ক্রিকেট ট্রফি (টি-টোয়েন্টি) অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল দলগুলি নিয়ে অন্যান্য টুর্নামেন্ট হলো একমাত্র দুই টেস্টের সদস্য অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের ট্রান্স-তাসমান ট্রফি (টেস্ট) এবং চ্যাপেল-হ্যাডলি ট্রফি (ওডিআই)।

সদস্য[সম্পাদনা]

পূর্নাঙ্গ সদস্য[সম্পাদনা]

আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বর্তমান পূর্নাঙ্গ সদস্য
দেশ এসোসিয়েশন সদস্যপদ
মর্যাদা
আইসিসি
সদস্যপদ
ইএপি
সদস্যপদ
 অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া পূর্নাঙ্গ সদস্য ১৯০৯ ১৯৯৬
 নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট নিউজিল্যান্ড পূর্নাঙ্গ সদস্য ১৯২৬ ১৯৯৬

টি-২০আই এবং ওডিআই মর্যাদাপূর্ণ সহযোগী সদস্য[সম্পাদনা]

আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বর্তমান টি-২০আই এবং ওডিআই মর্যাদাপূর্ণ সহযোগী সদস্য
দেশ এসোসিয়েশন সদস্যপদ
মর্যাদা
আইসিসি
সদস্যপদ
ইএপি
সদস্যপদ
 পাপুয়া নিউ গিনি ক্রিকেট পিএনজি সহযোগী ১৯৭৩ ১৯৯৬

টি-২০আই মর্যাদাপূর্ণ সহযোগী সদস্য[সম্পাদনা]

আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বর্তমান টি-২০আই মর্যাদাপূর্ণ সহযোগী সদস্য
 কুক দ্বীপপুঞ্জ কুক আইল্যান্ড ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ২০০০ ২০০০
 ফিজি ফিজি ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ১৯৬৬ ১৯৯৬
 ইন্দোনেশিয়া ইন্দোনেশিয়া ক্রিকেট ফাউন্ডেশন সহযোগী ২০০১ ২০০১
 জাপান জাপান ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ১৯৮৯ ১৯৯৬
 ফিলিপাইন ফিলিপাইন ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ২০০০ ২০০০
 সামোয়া ক্রিকেট সামোয়া সহযোগী ২০০০ ২০০০
 দক্ষিণ কোরিয়া কোরিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ২০০১ ২০০১
 ভানুয়াটু ভানুয়াটু ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ১৯৯৫ ১৯৯৬

সাবেক অনুমোদনপ্রাপ্ত সদস্য[সম্পাদনা]

দল এসোসিয়েশন আইসিসি সদস্যপদ প্রাপ্তির
সময়কাল
দ্রষ্টব্য
 টোঙ্গা টোঙ্গা ক্রিকেট এসোসিয়েশন ২০০০–২০১৪ ২০১৩ সদস্যপদ বরখাস্ত করা হয়, ২০১৪ সালে সম্পূর্ণভাবে বাতিল করা হয়[৫][৬][৭]

মানচিত্র[সম্পাদনা]

আইসিসি পূর্ব এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সদস্য
     আইসসি-এর পূর্নাঙ্গ সদস্য (২)
     আইসসি-এর ওডিআই মর্যাদাসম্পন্ন সদস্য (১)
     আইসিসির সহযোগী সদস্য (৮)
     সাবেক সদস্য (১)
     পাশের এসোসিয়েশনের আইসিসি সদস্য
     সদস্য নয়

সাবেক এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল সদস্য[সম্পাদনা]

দেশ এসোসিয়েশন সদস্য
মর্যাদা
আইসিসি
সদস্য
এসিসি
সদস্যপদ
বাতিল
 ফিজি ফিজি ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী সদস্য ১৯৬৫ ১৯৯৬
 জাপান জাপান ক্রিকেট এসোসিয়েশন সহযোগী ১৯৮৯ ১৯৯৬
 পাপুয়া নিউ গিনি ক্রিকেট পিএনজি সহযোগী ১৯৭৩ ১৯৯৬

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ICC Members COUNTRIES 2008/2009"। International Cricket Council। ১৮ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১০ 
  2. "ICC Regions"। International Cricket Council। ১৬ মার্চ ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১০ 
  3. "About East Asia-Pacific"। International Cricket Council। ৬ এপ্রিল ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১০ 
  4. "ICC EAP announce Tom Evans as new RDO"ICC EAP News। International Cricket Council। ৫ মে ২০১০। ৬ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১০ 
  5. "Cricinfo-Other countries-Teams-Tonga"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০০৮ 
  6. Peter Della Panna (18 June 2014). "USA, Nepal set to be given ICC warning" – ESPNcricinfo. Retrieved 28 June 2014.
  7. (28 June 2014). "Nepal, Netherlands get T20 international status" – ESPncricinfo. Retrieved 28 June 2014.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]