মনসুর উল করিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মনসুর উল করিম
জন্ম১৯৫০
জাতীয়তাবাংলাদেশী
জাতিসত্তাবাঙালি
যেখানের শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাচিত্রশিল্পী, শিক্ষক
কার্যকাল১৭২-বর্তমান
পুরস্কারএকুশে পদক

মনসুর উল করিম (জন্ম ১৯৫০) হলেন একজন বাংলাদেশী চিত্রশিল্পী এবং অধ্যাপক। তিনি দীর্ঘ ৪০ বছর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে অধ্যাপনা করেন। সত্তরের দশকের শুরু থেকে তিনি দেশের চিত্রশিল্পে অবদান রেখে আসছেন। চিত্রকলায় অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০০৯ সালে তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মনসুর ১৯৫০ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) রাজবাড়ী জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র তিন বছর বয়সে তার মা মারা যান।[২] তিনি ১৯৭২ সালে ঢাকা আর্ট ইনস্টিটিউট থেকে চারুকলায় স্নাতক এবং পরে ১৯৭৪ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মনসুর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে দীর্ঘ ৪০ বছর অধ্যাপনা করেন। অধ্যাপনা থেকে অবসর গ্রহণ করে তিনি তার নিজ বাড়িতে প্রতিষ্ঠা করেছেন 'বুনন আর্ট স্পেস'। তার এই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য হল এখান থেকে একশ চিত্রশিল্পী গড়ে তোলা।[৪]

প্রদর্শনী[সম্পাদনা]

মনসুর উল করিমের প্রথম চিত্র প্রদর্শনী করেন ১৯৭২ সালে। তার কর্মস্থল চট্টগ্রামে তার প্রথম চিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় ১৯৭৭ সালে।[২] ২০১৬ সাল পর্যন্ত মনসুর উল করিমের ২৬টি প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।[৪] ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে তার "রেখার নাচন" শীর্ষক একটি প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। খুলশীর মৃন্ময় আর্ট গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত এই প্রদর্শনী স্থান পায় মনসুরের আঁকা ৩৫টি রেখাচিত্র।[৫] ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে "আমার গন্তব্য আমার মাটি" শীর্ষক তার ২১তম একক প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিল্পী রশিদ চৌধুরী গ্যালারিতে।[৬] একই মাসের শেষ সপ্তাহে তার ২২তম চিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় চিটাগাং আর্ট কমপেক্সের পরম্পরা গ্যালারিতে। "পয়েন্ট অভ ডিপার্চার" বা "প্রস্থান বিন্দু" শীর্ষক প্রদর্শনীতে অ্যাক্রিলিকে আঁকা তার ১৫টি চিত্রকর্ম স্থান পায়।[৭] এপ্রিলের মাঝামাঝিতে তার ২৩তম চিত্র প্রদর্শনী "ডেস্টিনেশন অ্যান্ড ডিপারচার" অনুষ্ঠিত হয় গ্যালারি কায়ায়। এই প্রদর্শনীতে "মাই ডেস্টিনেশন মাই সয়েল" ও "পয়েন্ট অব ডিপারচার" নামক দুটি সিরিজে মোট ৪৪টি চিত্র প্রদর্শিত হয়।[৮] মে মাসের শেষের দিকে চট্টগ্রামের হাটখোলা গ্যালারিতে মনসুরের "বান্দরবান" শীর্ষক একটি চিত্র প্রদর্শনী হয়। এতে বিশাল ক্যানভাসে কলমে আঁকা চিত্রকর্ম প্রদর্শিত হয়।[৯] ২০১৬ সালের অক্টোবরে তার ২৬তম প্রদর্শনীর আয়োজন করে যৌথভাবে গ্যালারি টোয়েন্টি ওয়ান ও আর্টকন। "কাল" শীর্ষক এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় ঢাকার গ্যালারি টোয়েন্টি ওয়ানে।[৪]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

মনসুর উল আলম দেশি বিদেশি বেশ কিছু পুরস্কার ও সম্মাননা লাভ করেন। ১৯৭৭ সালে তিনি বাংলাদেশ সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আয়োজিত স্বাধীনতা দিবস চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯২ সালে তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত একাদশ জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী থেকে পুরস্কার লাভ করেন।[২] ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ৬ষ্ঠ এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল পদক লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে ভারতীয় ললিতকলা একাডেমি আয়োজিত ৮ম ভারতীয় ত্রিবার্ষিক আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী থেকে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার লাভ করেন। চিত্রকলায় সামগ্রিক অবদানের জন্য ২০০৯ সালে একুশে পদক লাভ করেন।[১০] ২০১৪ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সুলতান পদক লাভ করেন।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Monsur Ul Karim gets Sultan Padak"দ্য ডেইলি স্টার। ৬ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  2. পারভেজ, রাশেদ (২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "প্রস্থান বিন্দু ছুটছে রাজবাড়ির পথে ।। শিল্পী মনসুর উল করিমের একক চিত্রপ্রদর্শন"দৈনিক আজাদী। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "সুলতান পদক পাচ্ছেন মনসুর উল করিম"দৈনিক জনকণ্ঠ। ৪ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  4. "মনসুর উল করিমের চিত্রপ্রদর্শনী 'কাল'"দৈনিক সমকাল। ১ অক্টোবর ২০১৬। ২৯ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  5. "মনসুর উল করিমের রেখাচিত্র প্রদর্শনীর সমাপ্তি আজ"দৈনিক আজাদী। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "শিল্পী মনসুর উল করিমের ২১তম একক প্রদর্শনী শুরু"দৈনিক প্রথম আলো। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  7. "মনসুর উল করিমের একক চিত্র প্রদর্শনী"দৈনিক পূর্বকোণ। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  8. আলী, শিপন (১৩ এপ্রিল ২০১৫)। "মনসুর উল করিমের 'ডেস্টিনেশন অ্যান্ড ডিপারচার'"এনটিভি অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  9. "হাটখোলায় মনসুর উল করিমের চিত্র প্রদর্শনী শুরু"দৈনিক ইত্তেফাক। ২৭ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  10. "সুলতান পদক পাচ্ছেন মনসুর উল করিম"দ্য রিপোর্ট। ৩ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 
  11. "শিল্পকলা একাডেমির সুলতান পদক পাচ্ছেন শিল্পী মনসুর উল করিম"যায়যায়দিন। ৪ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]