ভারত–কাতার সম্পর্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভারত–কাতার সম্পর্ক
মানচিত্র ভারত এবং কাতারের অবস্থান নির্দেশ করছে

ভারত

কাতার
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কাতারের আমির "তামিম বিন হামিদ থানি"

ভারত- কাতার সম্পর্ক হল ভারতকাতার দেশ দুটির মধ্যে নিজেদের পারস্পরিক সম্পর্ক বা সমঝোতা।কাতার এর রাজধানী ও প্রধান শহর দোহা তে ভারতের একটি দূতা বাস রয়েছে ।একই ভাবে কাতার এর একটি দূতাবাস রয়েছে ভারত এর রাজধানী শহর দিল্লি বা নিউ দিল্লি তে।এই দূতাবাস দুটির দ্বারাই দুই দেশের মানুষ দেশ দুটিতে যাবার জন্য বৈদ্ধ ভিসা পান।যা দেশ দুটির সম্পর্ক আরও গভীর করেছে।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কাতার একটি সর্বভৌম রাষ্ট্র হিসাবে ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠে সর্ব প্রথম ১৯৭৩ সালে।এর পর দেশ দুটির সম্পর্ক আরও গভীর হয়েছে।২০১৫ সালে কাতারের প্রধান তামিম বিন হামিদ থানি ভারতের সঙ্গে মৌস্বাক্ষর করে নিজেদের মধ্যে পারস্পর বোঝাপরা বড়াতে।বর্তমানে দেশ দুটি বাণিজ্য ও আন্ত্রজাতিক ক্ষেত্রে গুরুত্ব পূর্ন হয়ে উঠেছে।

রাজনৈতিক সম্পর্ক[সম্পাদনা]

১৯৭৩ সালে দেশ দুটির মধ্যে কূটনৈতিক সমম্পর্ক গড়ে উঠার পর নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া উত্তর উত্তর বেরেছে।১৯৯৯ , ২০০৫ ও ২০১২ সালে কাতারের প্রধান আমির তামিম বিন হামিদ থাানি ভারতে এসেছেন ।এর পর ভারতের প্রধান মন্ত্রী ২০১৬ সালে কাতারে দিয়েছেন দুই দিনের সফরে।[২] এর আগে ভারতের থেকে ২০০৮ সালে কাতার সফরে যান ভারতের প্রথম কোনো প্রধান মন্ত্রী।

সেনা বাহীনির সম্পর্ক[সম্পাদনা]

দেশ দুটি নিজেদের মধ্যে সেনাবাহীনি নিয়ে একট সম্পর্ক গড়ে তেলেছে।কাতার ও ভারত থেকে সেনা বাহিনি যৌথ ভাবে সেনা মহরা ও মিটিং এ অংশ নে।২০০৮ সালে দোহাতে সেনা মিটিং হয় দেশ দুটির মধ্যে এর পর ২০১৩ সালে নতুন দিল্লিতে সেনা মিটিং হয়।এর পর সেনা মিটিং হবে দোহাতে।দেশ দুটির সেনা বাহীনি এক যোগে সন্ত্রাস দমনে কাজ করার কথা বলেছে।

বানিজ্য[সম্পাদনা]

কাতারের সঙ্গে ভারতের বিনিজ্যিক সম্পর্ক খুবই গভীর ।ভারত হল কাতারের তৃতীয় বৃহত বাণিজ্যিক সঙ্গী।ভারত কাতার থেকে গ্যাস ও খনিজ তেল প্রধানত আমদানি করে।আবার কাতার ভারত এর শক্তি ক্ষেত্রে বড় অঙ্কের বিনিয়গ করেছে।ভারত ও কাতারের মধ্যে সমঝোতার ফলে ইউনিট প্রতি গ্যাস ১২-১৩ ডলারের পরিবর্তে ৬ -৭ ডলারে দেবে ভারত কে।[৩] দেশ দুটির মধ্যে বাণিজ্যের পরিমানও বিপুল।ভারত কাতার থেকে ১৪.৯ মার্কিন ডলার এর পণ্য আমদানি করে এবং কাতার ভারত থেকে ১.২ ডলারের পণ্য আমদানি করে।দিন দিন কাতার ও ভারতের বাণিজ্যের পরিমান দ্রুত বৃদ্বি পাচ্ছে।কাতার থেকে গ্যাস ভারতে আনার জন্য পাইপলাইন নির্মাণের কথা চলছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Eembassy of India in Doha , Qatar" 
  2. "প্রধানমন্ত্রীর কাতার সফর: ভারত কাতার বিবৃতি"। সংগ্রহের তারিখ ১৪-১১-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "আগের চেয়ে অর্ধেক মূল্যে কাতার থেকে গ্যাস কিনবে ভারত"বনিক বার্তা। সংগ্রহের তারিখ ১৪-১১-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]