বাদকুল্লা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাদকুল্লা
সেন্সাস টাউন
বাদকুল্লা রেল স্টেশন
বাদকুল্লা রেল স্টেশন
বাদকুল্লা পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
বাদকুল্লা
বাদকুল্লা
বাদকুল্লা ভারত-এ অবস্থিত
বাদকুল্লা
বাদকুল্লা
ভারতের পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১৭′ উত্তর ৮৮°৩২′ পূর্ব / ২৩.২৮° উত্তর ৮৮.৫৩° পূর্ব / 23.28; 88.53স্থানাঙ্ক: ২৩°১৭′ উত্তর ৮৮°৩২′ পূর্ব / ২৩.২৮° উত্তর ৮৮.৫৩° পূর্ব / 23.28; 88.53
দেশ ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলানদীয়া
উচ্চতা৯ মিটার (৩০ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১৮,০৫১
ভাষা
 • সরকারিবাংলা, ইংরেজি
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন৭৪১১২১
টেলিফোন কোড০৩৪৭৩
যানবাহন নিবন্ধনডব্লিউবি
লিঙ্গ অনুপাত১:১ /
লোকসভা কেন্দ্ররানাঘাট
বিধানসভা কেন্দ্রকৃষ্ণগঞ্জ

বাদকুল্লা হল ভারতীয় রাষ্ট্রের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়া জেলার রাণাঘাট মহকুমার হাঁসখালী সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের অন্তর্গত সেন্সাস টাউন[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বাদকুল্লার প্রবীণ নাগরিকদের মতে, পূর্বে বাদকুল্লা কৃষ্ণগরের রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায়ের অধীনে ছিল। বাদকুল্লা লোকদের খুশির কারণ ছিল রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের কর থেকে তাদের মুক্তি। ( বাংলা: কর )। কর-এর পুরাতন বাংলা শব্দ ছিল "কুল্লা" (বাংলা: কুল্লা এবং বাংলা: বাদ), যার অর্থ হল বাদ। বাদকুল্লার লোকেরা কর দিচ্ছিল না। তাই রাজা কৃষ্ণচন্দ্র স্থানটির নাম রেখেছিলেন "বাদকুল্লা"। তখন থেকেই বাদকুল্লার নামটির উদ্ভব হয়। বাদকুল্লার অনেক প্রবীণ বাসিন্দা সাধারণত বলে থাকেন বর্তমান বাদকুল্লা রেলওয়ে স্টেশনটি পটুয়া রেলওয়ে গেটে অবস্থিত।

ভূগোল[সম্পাদনা]

বাদকুল্লার অবস্থান ২৩°১৭′ উত্তর ৮৮°৩২′ পূর্ব / ২৩.২৮° উত্তর ৮৮.৫৩° পূর্ব / 23.28; 88.53[২] এর গড় উচ্চতা হল ৯   মিটার (৩০ ফুট)। নদিয়া জেলা বেশিরভাগই হুগলি নদীর পূর্বদিকে পলল সমভূমি, যা স্থানীয়ভাবে ভাগীরথী নদী নামে পরিচিত। জলাঙ্গী, চুর্ণি এবং ইছামতি নদী এই পলল সমভূমির মধ্য দিয়ে অগ্রসর হয়েছে। এই নদীগুলি পলি জমে নাব্যতা হারিয়েছে এবং সাথে সাথে বন্যার পুনরাবৃত্তি বৈশিষ্ট্যযুক্ত। অঞ্জনা নদী বাদকুল্লার মধ্য দিয়ে অগ্রসর হয়েছে। যদিও বর্তমানে দূষণ ও জনসংখ্যার কারণে এটি নদী হিসাবে খুব কমই স্বীকৃত হতে পারে। তবে এটি বিশ্বাস করা হয় যে মহান কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর অঞ্জনা নদী এবং তার পাশের একটি মন্দির সম্পর্কে একটি কবিতা লিখেছেন। সেই মন্দিরটি এখনও অঞ্জনা নদীর পাশে পাওয়া যায়।[৩]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

২০১৭ সালে, বাদকুল্লা তার প্রথম ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল হিসাবে গ্লোবাল প্রভিডেন্স একাডেমী'কে পেয়েছে। এছাড়াও এখানে কয়েকটি বাংলা-মাধ্যমের উচ্চ বিদ্যালয় রয়েছে, একটি ছেলেদের জন্য একটি, মেয়েদের জন্য একটি এবং অন্যগুলিতে সহ-শিক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে। তাছাড়া, শিশু মঙ্গল পর্ষদের অধীনে প্রায় ২০ টিরও বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৪ টি কেজি নার্সারি স্কুল রয়েছে। রানি ভবানী পাঠাগার নামে এখানে একটি সরকারী লাইব্রেরি রয়েছে। বাদকুল্লায় কোনও কলেজ নেই।

উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়:

  1. বাদকুল্লা ইউনাইটেড একাডেমী (উচ্চ মাধ্যমিক)
  2. অঞ্জনগড় উচ্চ বিদ্যালয় (এইচএস)
  3. বাপুজি নগর উচ্চ বিদ্যালয় (এইচএস)
  4. আরবান্দি উচ্চ বিদ্যালয় (এইচএস)
  5. খামারশিমুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় (এইচএস)
  6. সুরভীস্তান ভুবন মোহিনী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (উচ্চ মাধ্যমিক)

প্রাথমিক বিদ্যালয়:

  1. গুরুয়াপোটা জুনিয়র হাই স্কুল
  2. গোরুয়াপোটা প্রাথমিক বিদ্যালয়
  3. সুরভীস্তান জিএসএফ প্রাথমিক বিদ্যালয়
  4. বাদকুল্লা প্রাথমিক বিদ্যালয় (বিইউএর অধীনে)
  5. বল্লভপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়
  6. পাটুলি প্রাথমিক বিদ্যালয়
  7. অঞ্জনগড় প্রাথমিক বিদ্যালয়
  8. নওপুকুরিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়
  9. দক্ষিণ চন্দ্র রূপান্তরিত নিম্নো বুনিয়াদি প্রথম বিদ্যালয়
  10. দক্ষিণ চন্দ্র এসএসকেএম
  11. পটুয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়
  12. আশ্রমপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়
  13. চরকাতলা প্রাথমিক বিদ্যালয়
  14. গাংনী প্রাথমিক বিদ্যালয়
  15. দোসাতিনা রূপান্তরিত জুনিয়র বেসিক স্কুল
  16. পুরদারপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়
  17. সুরভীস্তান জিএসএফ প্রাথমিক বিদ্যালয়
  18. গ্লোবাল প্রভিডেন্স একাডেমি (ইংরেজি-মাধ্যম) [১]
  19. মৌসুমী আদর্শ প্রাথমিক বিদ্যালয়
  20. কেয়া আদর্শ শিক্ষা নিকেতন

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

ভারতের ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে বাদকুল্লার মোট জনসংখ্যা ছিল ১৮,০৫১ জন, যার মধ্যে ৯,১৪০ (৫১%) পুরুষ এবং ৮,৯১১ (49%) মহিলা। ৬ বছরের কম বয়স্কের সংখ্যা ১,৪৯৭ জন। বাদকুল্লায় মোট সাক্ষরতার সংখ্যা ছিল ১৪,২৬৪। (৬ বছরের বেশি বয়স্কের সংখ্যার ৮৬.১৭%)।[৪]

উৎসব[সম্পাদনা]

বাদকুল্লা শহরটি জেলায় ছোট আকারের তাঁত শিল্প এবং বড় দুর্গা-পুজো প্যান্ডেলের জন্য বিখ্যাত। দুর্গা-পুজোর চার দিন শহরটি বাদকুল্লা প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। প্রতি বছর হাজার হাজার মানুষ কাছাকাছি জায়গা থেকে এখানে বিশাল বিশাল প্যান্ডেল, সুন্দর আলোর কাজ, আশ্চর্যজনক প্রতিমা দেখতে ভিড় জমায়। একসময় এখানে কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণচন্দ্রের রাজপ্রাসাদ থেকে কামানের আওয়াজ পেয়ে দুর্গাপুজো শুরু হতো। দুর্গাপূজা ছাড়াও এটি সাংস্কৃতিক নিষ্ঠার জন্য সুপরিচিত। এখানে সমস্ত ক্লাব সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে উৎসাহিত করার জন্য বার্ষিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এলাকার স্থানীয় ক্লাবগুলি দুর্গাপুজোর আয়োজন করে।

এখানকার লক্ষ্মীপূজা, রথযাত্রা ও রাসযাত্রা খুব বিখ্যাত। বাদকুল্লার কিছু স্বেচ্ছাসেবক ওয়েব-বিকাসকারীরা বিশ্বের সাথে উৎসবকে ভাগ করে নেওয়ার জন্য বাদকুল্লার দুর্গাপুজোর নামে একটি ওয়েবসাইট (বাদকুল্লা দুর্গাপুজো) তৈরি করেছেন।[৫]

পরিবহন[সম্পাদনা]

বাদকুল্লা রেলস্টেশন

বাদকুল্লায় যাওয়ার জন্য সবচেয়ে সুবিধাজনক উপায় লোকাল ট্রেন। রেলপথ ও সড়ক মাধ্যমে কলকাতায় যেতে প্রায় ২ ঘন্টারও বেশি সময় লাগবে। এখানে পৌঁছানোর আর একটি উপায় হ'ল বাস, কৃষ্ণনগর-রানাঘাট (বাদকুল্লা হয়ে) রাজ্য সড়ক ১১ বাদকুল্লার মধ্য দিয়ে অগ্রসর হয়েছে। তৃতীয় মাধ্যম হল ফুলিয়া, দিগনগর, হাঁসখালী, চিতাখালি-ইটাবেরিয়া, আরাংঘাটা এবং বগুলা থেকে ট্রেকার এবং অটো। তাছাড়া অভ্যন্তরীণ যোগাযোগের জন্য অটোরিকশা এবং সাইকেল রিকশা পাওয়া যায়। বাদকুল্লা শহরে প্রবেশের জন্য ৩৪নং জাতীয় সড়কের সুবিধা রয়েছে, যা শহর থেকে প্রায় ৬ কিলোমিটার (৩.৭২ মাইল) দূরে অবস্থিত। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, প্রায় ৭০ কিলোমিটার (৪৩ মাইল) দক্ষিণে অবস্থিত। এখান থেকে দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক উড়ানের সুবিধা রয়েছে।

স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা[সম্পাদনা]

বাদকুল্লা গ্রামীণ হাসপাতাল বাদকুল্লা একমাত্র সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্র। বদকুল্লার লোকদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য ১ জন পোস্ট চিকিৎসক, ২ জন নার্স, ৩ জন গ্রুপ ডি কর্মী এবং ০০ টি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। এই চিকিৎসা কেন্দ্রে ৩০টি শয্যার ব্যবস্থা রয়েছে, যা খুব কম। নবদীপ্ত নার্সিং হোম নামে একটি বেসরকারী নার্সিং হোম রয়েছে। এই অঞ্চলটি তাহেরপুর থানা এবং বাদকুল্লা পুলিশ ফাঁড়ির (ক্যাম্প) এর অধীনে রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Badkulla"www.badkulla.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৫-২২ 
  2. Falling Rain Genomics, Inc - Badkulla
  3. Gangopadhyay, Basudev, Paschimbanga Parichay, 2001, (বাংলা), p. 70, Sishu Sahitya Sansad
  4. "2011 Census – Primary Census Abstract Data Tables"West Bengal – District-wise। Registrar General and Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৭ 
  5. "Website of Badkulla Durgapuja"। ৩ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১৯