জশুয়া দা সিলভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জশুয়া দা সিলভা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজশুয়া দা সিলভা
জন্ম (1998-06-19) ১৯ জুন ১৯৯৮ (বয়স ২৩)
ডাকনামজোশ
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩২১)
১১ ডিসেম্বর ২০২০ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বনাম বাংলাদেশ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৯৮)
২০ জানুয়ারি ২০২১ বনাম বাংলাদেশ
শেষ ওডিআই২২ জানুয়ারি ২০২১ বনাম বাংলাদেশ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১৮–বর্তমানত্রিনিদাদ ও টোবাগো
২০২০–বর্তমানসেন্ট কিটস ও নেভিস প্যাট্রিয়টস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২০ ১২
রানের সংখ্যা ২৩৪ ১৪ ১,১০৬ ৩৪৫
ব্যাটিং গড় ৩৯.০০ ৭.০০ ৩৩.৫১ ৩৪.৫০
১০০/৫০ ০/২ ০/০ ১/৭ ১/১
সর্বোচ্চ রান ৯২ ১১৩* ১০৩*
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৭/০ ১/১ ৩৪/১ ১৬/২
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

জশুয়া দা সিলভা (ইংরেজি: Joshua Da Silva; জন্ম: ১৯ জুন, ১৯৯৮) ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১] ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ২০২০-এর দশকের সূচনালগ্ন থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করছেন। ২০১৮ সালে ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর সদস্যরূপে ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রথম খেলেন। ডিসেম্বর, ২০২০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক ঘটে তার।[২]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে ত্রিনিদাদ ও টোবাগো দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছেন। উইকেট-রক্ষণের পাশাপাশি ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করছেন ‘জোশ’ ডাকনামে পরিচিত জশুয়া দা সিলভা।

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

পর্তুগীজ বংশোদ্ভূত জশুয়া দা সিলভা ম্যাডিরায় জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতা ও পিতামহী পর্তুগীজ কানাডীয় এবং পিতা ত্রিনিদাদীয় ছিলেন।[৩] পোর্ট অব স্পেনের সেন্ট মেরিজ কলেজে অধ্যয়ন করেছেন তিনি।[২] ব্রেন্ডন ন্যাশের পর প্রথম শ্বেতাঙ্গ খেলোয়াড় হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন।

২০১৭ সালে কিরণ পোলার্ড বৃত্তিপ্রকল্পের আওতায় সারের ওল্ড উইম্বেলেডন দলের পক্ষে ক্লাব ক্রিকেটে অংশ নেন। পোর্ট অব স্পেনের সেন্ট মেরিজ কলেজে অধ্যয়নকালে ক্রিকেট ও ফুটবল - উভয় খেলায় অংশ নিতেন। তবে, ১৬ বছর বয়সে ক্রিকেট খেলার দিকেই মনোনিবেশ ঘটানোর সিদ্ধান্ত নেন। দলীয় সঙ্গী ড্যারেন ব্র্যাভো’র পরামর্শক্রমে কুইন্স পার্ক সিসি দলে যুক্ত হন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১৮ সাল থেকে জশুয়া দা সিলভা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান রয়েছে। ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ তারিখে তারুবায় রিজিওন্যাল ফোর ডে কম্পিটিশনে ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো অংশ নেন।[৪]

২০১৯-২০ মৌসুমের ঘরোয়া ক্রিকেটে দূর্দান্ত ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে খেলার জন্যে মনোনীত হন। এ মৌসুমের প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ৫০.৭০ গড়ে ৫০৭ রান সংগ্রহ করেছিলেন। তার ক্রীড়ানৈপুণ্যের কারণে দিনেশ রামদিনকে টিএন্ডটি দলের বাইরে থাকতে হয়। অক্টোবর, ২০১৯ সালে রিজিওন্যাল সুপার৫০ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এমার্জিং টিমের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[৫] অনেকটা বিস্ময়করভাবে রিজিওন্যাল সুপার৫০ প্রতিযোগিতায় দলের শিরোপা বিজয়ে ভূমিকা রাখেন। তন্মধ্যে, গ্রুপ পর্বে উইন্ডওয়ার্ড আইল্যান্ডসের বিপক্ষে অপরাজিত শতক হাঁকান।

৭ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখে তারুবায় অনুষ্ঠিত রিজিওন্যাল সুপার৫০ প্রতিযোগিতায় ওয়েস্টইন্ডিজ এমার্জিং টিমের পক্ষে লিস্ট এ ক্রিকেটে তার অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়।[৬] জানুয়ারি, ২০২০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ চ্যাম্পিয়নশীপের প্রথম রাউন্ডে জশুয়া দা সিলভা প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অপরাজিত ১১৩ রান তুলে প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন।[৭] জুলাই, ২০২০ সালে সেন্ট কিটস ও নেভিস প্যাট্রিয়টসের পক্ষে ক্যারিবীয় প্রিমিয়ার লীগে (সিপিএল) খেলার জন্যে মনোনীত হন।[৮][৯] ১৮ আগস্ট, ২০২০ তারিখে তারুবায় সেন্ট কিটস ও নেভিস প্যাট্রিয়টসের পক্ষে সিপিএলের দ্বিতীয় খেলায় টুয়েন্টি২০ ক্রিকেটে তার অভিষেক হয়।[১০]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনটিমাত্র টেস্ট ও দুইটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন জশুয়া দা সিলভা। ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে ওয়েলিংটনে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ তারিখে চট্টগ্রামে স্বাগতিক বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

দ্বিতীয় প্রস্তুতিমূলক খেলায় অপরাজিত ১৩৩ ও অপরাজিত ৫৬ রান তুলে ইংল্যান্ড গমনার্থে দলে জায়গা করে নেন। জুন, ২০২০ সালে ইংল্যান্ড সফরের লক্ষ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট দলের এগারোজন সংরক্ষিত খেলোয়াড়ের অন্যতম হিসেবে তাকে দলে রাখা হয়।[১১] মার্চ, ২০২০ সালে টেস্ট সিরিজটি শুরু হবার কথা থাকলেও কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারীর কারণে জুলাই, ২০২০ সালে তা পিছিয়ে নেয়া হয়।[১২] সিরিজের তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনে শেন ডোরিচের মাঠে আঘাতের কারণে তাকে অতিরিক্ত উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলানো হয়।[১৩]

টেস্ট অভিষেক[সম্পাদনা]

অক্টোবর, ২০২০ সালে নিউজিল্যান্ড গমনার্থে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট দলের ছয়জন সংরক্ষিত খেলোয়াড়ের অন্যতম হিসেবে তাকে দলে রাখা হয়।[১৪] দ্বিতীয় টেস্টের পূর্বে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে দেশে ফিরে যাওয়া শেন ডোরিচের[১৫] পরিবর্তে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[১৬]

১১ ডিসেম্বর, ২০২০ তারিখে ওয়েলিংটনে অনুষ্ঠিত সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে তার টেস্ট অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়।[১৭] এরফলে, ৫০ বছর পূর্বে জিওফ গ্রীনিজের পর ক্যারিবীয়ায় জন্মগ্রহণকারী প্রথম শ্বেতাঙ্গ খেলোয়াড় হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে অংশ নেয়ার সুযোগ পান।[১৮]

বাংলাদেশ গমন[সম্পাদনা]

ডিসেম্বর, ২০২০ সালে বাংলাদেশ গমনার্থে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওডিআই দলের সদস্যরূপে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[১৯] ২০ জানুয়ারি, ২০২১ তারিখে ঢাকায় অনুষ্ঠিত দিবা-রাত্রির প্রথম ওডিআইয়ে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে তার ওডিআই অভিষেক হয়।[২০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Who is Joshua Da Silva and is he a future West Indies opener?"Wisden। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  2. "Joshua Da Silva"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৯ 
  3. Smith, Martin (১১ ডিসেম্বর ২০২০)। "Da Silva's journey to West Indies Test cap"। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  4. "5th Match, WICB Professional Cricket League Regional 4 Day Tournament at Tarouba, Dec 13-16 2018"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৯ 
  5. "Strong squad named for WI Emerging Players in Super50 Cup"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৯ 
  6. "Group B (D/N), Super50 Cup at Tarouba, Nov 7 2019"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০১৯ 
  7. "Da Silva, Carriah crack hundreds for T&T"Trinidad and Tobago Guardian। সংগ্রহের তারিখ ১১ জানুয়ারি ২০২০ 
  8. "Nabi, Lamichhane, Dunk earn big in CPL 2020 draft"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২০ 
  9. "Teams Selected for Hero CPL 2020"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০২০ 
  10. "2nd Match (D/N), Tarouba, Aug 18 2020, Caribbean Premier League"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০২০ 
  11. "Darren Bravo, Shimron Hetmyer, Keemo Paul turn down call-ups for England tour"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০২০ 
  12. "Squad named for Sandals West Indies Tour of England"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০২০ 
  13. "Joshua da Silva replaces Shane Dowrich in third England-West Indies Test"Sport Star। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০২০ 
  14. "West Indies name Test and T20I squads for Tour of New Zealand"Cricket West Indies। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০২০ 
  15. "West Indies without Kemar Roach, Shane Dowrich for second New Zealand Test"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০২০ 
  16. "Joshua Da Silva called for second Test up as Roach, Dowrich head home"SportsMax। ৭ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০২০ 
  17. "2nd Test, Wellington, Dec 11 - Dec 15 2020, West Indies tour of New Zealand"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০২০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  18. "Da Silva's journey to West Indies Test cap"Cricket Australia। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ 
  19. "Jason Holder, Kieron Pollard, Shimron Hetmyer among ten West Indies players to pull out of Bangladesh tour"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০২০ 
  20. "1st ODI (D/N), Dhaka, Jan 20 2021, ICC Men's Cricket World Cup Super League"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০২১ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]