চালুন্দিয়া নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চালুন্দিয়া নদী
দেশ ভারত
অববাহিকার বৈশিষ্ট্য
মোহনাযমুনা নদী
গাইঘাটা
নদী ব্যবস্থাগঙ্গা নদী ব্যবস্থা
প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
দৈর্ঘ্য৩০ কিলোমিটার (১৯ মা)

চালুন্দি নদী গাইঘাটা থানার অন্তর্গত একটি গুরুত্ব পূর্ন নদী।এই নদীটি গোপালনগরের কাঁচিপাড়া এলাকা থেকে উৎপন্ন হয়েছে।বর্তমানে এই নদী উৎস থেকে বিচ্ছিন্ন।নদীটি চারঘাট এর কাছে যমুনা নদীর সঙ্গে মিলিত হয়েছে।[১] নদীটি চৈতা নদীর সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। নদীটি চাঁদপাড়া, ছেকাটী এলাকার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।[২]

প্রবাহ[সম্পাদনা]

নদীটির মূল উৎস গোপালনগরের কাঁচিপাড়া হলেও এখন এই উৎস থেকে নদীটি সমূর্ন রূপে বিচ্ছিন্ন।নদীটির অস্তিত্ব বর্তমানে দেখা যায় চাঁদপাড়ায় চাঁদপাড়া-ঠাকুরনগর রোডের একটি কালভার্টের নীচে একটি খাল বা নালা আকারে।এখান থেকে এই খাল শিয়ালদহ-বনগাঁ রেল লাইনের নীচ দিয়ে প্রবাহিত হয়ে ছেকাটী বাজারের পাশ দিয়ে প্রবাহিত হয়েনে এর পর এই নদীটি কিছুটা গভীর ও প্রসস্ত হয়।তবে নদীটির বেশিরাগ প্রবাহ পথ খালের আকার নিয়েছে।চালুন্দিয়া নদীর নিন্মপ্রবহ অর্থাৎ চারঘাটের কাছে নদীটি কিছুটা প্রস্ত ।এই নিন্ম প্রবাহে নদীটিতে সারা বছর জল থাকে।নদীটি গড়ে ২০ মিটার (৬৬ ফু) থেকে ৩০ মিটার (৯৮ ফু) প্রসস্ত এবং গড় গভীরতা ১ মিটার (৩ ফু ৩ ইঞ্চি) মিটারের কিছু বেশি।তবে বর্ষার সময় নদীটিতে জলের গভীরতা বেরে হয় প্রায় ৪ মিটার (১৩ ফু) এর বেশি।নদীটির প্রবাহ পথের মোট দৈর্ঘ্য হল ৩০ কিলোমিটার (১৯ মা)।[৩]

সমস্যা[সম্পাদনা]

চালুন্দিয়া নদী বর্তমানে দূষণ ও দখলদারির শিকার। নদীটির বেশির ভাগ অংশ চাষের জমিতে পরিনত হয়েছে বা নদী ভরাট করে তৈরি হয়ে বসত বাড়ি বা বাজার এলাকার দোকান।ফলে নদীটি বর্তমানে বিলুপ্তের পথে।এই এলাকার নিকাশি বা সেচ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে।এর কারনে প্রতি বছর নদীর পার্শবর্তী এলাকা প্লাবিত হয়।তবে এই নদী বাঁচানোর জন্য গড়ে উঠেছে চালুন্দিয়া নদী বাঁচাও মঞ্চ'।নদীটির গভীরতা বাড়ানোর জন্য নদী খননের দাবি উঠেছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "পাতা:যশোহর-খুল্নার ইতিহাস দ্বিতীয় খণ্ড.djvu/৩৭৫"। সংগ্রহের তারিখ ৩০-১২-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. "খাল দখলের প্রতিবাদে মারধর, দোষীদের ধরার দাবিতে অবরোদ"। সংগ্রহের তারিখ ৩০-১২-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. "নৌকো চলত যমুনায়, এখন সে সব গল্পকথা মনে হয় এলাকার মানুষের"আনন্দবাজার প্রত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ৩০-১২-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)