চম্পকেশ্বর শিবমন্দির

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(চম্পকেশ্বর শিব মন্দির থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চম্পকেশ্বর শিবমন্দির
Champakesvara Siva Temple.jpg
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিহিন্দু ধর্ম
অবস্থান
অবস্থানভুবনেশ্বর
রাজ্যওড়িশা
দেশভারত
চম্পকেশ্বর শিবমন্দির ওড়িশা-এ অবস্থিত
চম্পকেশ্বর শিবমন্দির
ওড়িশায় অবস্থান
ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক২০°১৪′৪৮″ উত্তর ৮৫°৫১′২৮″ পূর্ব / ২০.২৪৬৬৭° উত্তর ৮৫.৮৫৭৭৮° পূর্ব / 20.24667; 85.85778স্থানাঙ্ক: ২০°১৪′৪৮″ উত্তর ৮৫°৫১′২৮″ পূর্ব / ২০.২৪৬৬৭° উত্তর ৮৫.৮৫৭৭৮° পূর্ব / 20.24667; 85.85778
স্থাপত্য
ধরনকলিঙ্গ শৈলী
সম্পূর্ণ হয়১৩ শতক

চম্পকেশ্বর শিব মন্দির ভারতের ওড়িশা রাজ্যের ভুবনেশ্বরে অবস্থিত একটি শিবমন্দির।[১] এটা পুরান শহরের অম্বিকা শাহীতে বিন্দুসাগরের দিকে যেতে কতিতীর্থেশ্বর লেনের ডানপাশে অবস্থিত। মন্দিরটি পরশুরামেশ্বর মন্দির থেকে ১৫৭ মিটার দূরে অবস্থিত। স্থানীয় অধিবাসীদের বিশ্বাস মন্দিরটিতে অধিষ্ঠিত শিবলিঙ্গ পাতালফুঁড়ে বের হয়েছে এবং মন্দির সীমানায় চম্পা নাগ বাস করতো যার নামে দেবতার নামকরণ করা হয়েছে চম্পকেশ্বর। স্থানীয় জনসাধারণ বিশ্বাস করে মন্দিরটিতে বসবাসকারী সাপেরা কোন ক্ষতিসাধন করেনা।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

মন্দিরটি ১৩ শতকে নির্মিত। অতীতের মত আজকের দিনেও মন্দিরটির অসংখ্য বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান আছে। এটা গঙ্গা পর্বে গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। শিবরাত্রি, জলাশয়, রুদ্রাভিষেক, সংক্রান্তি ইত্যাদি পূজা পার্বণ এই মন্দিরে পালিত হতো। এছাড়া পৈতা গ্রহন, জন্মদিন ও বিবাহ ইত্যাদির আয়োজন হয় মন্দিরটিতে। মন্দিরটি একটি সীমানা প্রাচীর দিয়ে ঘেরা। দেয়ালের বাইরে উত্তরাংশে আবাসিক ভবন রয়েছে। দক্ষিণে বিশ্বনাথ মন্দির, পূর্বে কোটীতীর্থেশ্বর পুকুর এবং উত্তর ও পশ্চিমে রাস্তা অবস্থিত।

স্থাপত্যশৈলী[সম্পাদনা]

মন্দিরটিতে একটি বিমান ও একটি জগমোহন আছে যার পরিমাপ দৈর্ঘ্যে ১১.০৫ মিটার এবং প্রস্থে ৬.০০ মিটার। মন্দিরটি পঞ্চরথ ধিরণের। বিমান, জগমোহন এবং অন্তরাল যথাক্রমে ৪.৫০ বর্গমিটার, ৬.০০ বর্গমিটার এবং ০.৫৫ বর্গমিটার। এটা পঞ্চগবাড় মন্দির যা পভগ, তল জঙ্ঘা, বন্ধন, উপর জঙ্ঘ এবং বারান্দা নিয়ে গঠিত। এদের পরিমাপ যথাক্রমে ০.৭৫ মিটার, ০.৭৫ মিটার, ০.১৭ মিটার, ০.৭২ মিটার এবং ০.৮২ মিটার।

পশ্চিম, উত্তর ও দক্ষিণে কুলুঙ্গি অবস্থিত যাদের প্রত্যকেটির উচ্চতা ০.৮৫ মিটার, প্রস্থ ০.৪৭ মিটার এবং গভীরতা ০.৩৪ মিটার। সব গুলো কুলুঙ্গি ফাঁকা।

চৌকাঠের পাল্লা পরবর্তীতে সংযুক্ত হয়েছে। এটা সাধারণ দেখতে, কোন নবগ্রহ শৈলী নেই।

মন্দির সীমানার মধ্যে পশ্চিম অংশে কিছু ভগ্নপ্রায় অর্চনাগাহ আছে। এরকমই একটি অর্চনাগাহে চারহাতওয়ালা ভাঙা কার্তিক মূর্তি আছে। দাঁড়ানো কার্তিকের নিচের বাম হাত ভাঙা। মন্দিরের সামনে একটি প্রাচীন কূপ আছে গভীরতা ৫.২৫ মিটার।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Lesser Known Monuments f Bhubaneswar by Dr. Sadasiba Pradhan (আইএসবিএন ৮১-৭৩৭৫-১৬৪-১)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]