গুন্দিবেল সুন্দরম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গুন্দিবেল সুন্দরম
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামগুন্দিবেল রাম সুন্দরম
জন্ম২৯ মার্চ, ১৯৩০
উদুপি, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু২০ জুন, ২০১০
মুম্বই, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কপ্রদীপ সুন্দরম (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮১)
১৬ ডিসেম্বর ১৯৫৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৮ ডিসেম্বর ১৯৫৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪৭
রানের সংখ্যা ৫৫৮
ব্যাটিং গড় - ১৪.৬৮
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান ৩* ৫২
বল করেছে ৩৯৬ ৬৯৪০
উইকেট ১২৭
বোলিং গড় ৫৫.৩৩ ২৬.১০
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ২/৪৬ ৬/৬৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ২৩/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৪ মে ২০২০

গুন্দিবেল রাম সুন্দরম (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; হিন্দি: गुंडीबैल सुंदरम; জন্ম: ২৯ মার্চ, ১৯৩০ - মৃত্যু: ২০ জুন, ২০১০) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের উদুপি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৫ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে মুম্বই ও রাজস্থান দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে ব্যাটিং করতেন গুন্দিবেল সুন্দরম

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

জি.আর. সুন্দরম ডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার ও ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। ১৯৫৩ সালে আল্ফ গোভারের পরিচালনায় ক্রিকেট স্কুলে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিলেন।[১] ঐ বছরে রঞ্জী ট্রফির খেলাগুলোয় অংশগ্রহণের পূর্বে সিলভার জুবিলি ওভারসিজ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে অনানুষ্ঠানিক টেস্টে অংশগ্রহণের জন্যে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন।

১৯৫১-৫২ মৌসুম থেকে ১৯৬৭-৬৮ মৌসুম পর্যন্ত গুন্দিবেল সুন্দরমের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। রঞ্জী ট্রফিতে বোম্বে ও রাজস্থান দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। টেস্ট খেলোয়াড়ী জীবন সংক্ষিপ্ত পর্যায়ের হলেও বেশ দীর্ঘস্থায়ী ছিল তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন। ১৯৫০-এর দশক থেকে ১৯৬০-এর দশক পর্যন্ত খেলেন। এ পর্যায়ে ১২৭ উইকেট লাভ করেছিলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন গুন্দিবেল সুন্দরম। সবগুলো টেস্টই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছিলেন তিনি। ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ তারিখে দিল্লিতে সফরকারী নিউজিল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ২৮ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ তারিখে কোলকাতায় একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড দল ভারত গমন করে। সিরিজের দুই টেস্টে তার অংশগ্রহণ ছিল। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় অনুষ্ঠিত টেস্টে নিউজিল্যান্ডের সংগৃহীত ৪৫০/২ সংগ্রহের বিপরীতে তিনি একটি উইকেট পান। পরের টেস্টে তিনি আরও দুই উইকেট লাভ করেছিলেন। তবে, ব্যাটিংয়ে অভিজ্ঞ জি. এস. রামচাঁদদাত্তু ফাড়করের ন্যায় মিডিয়াম পেসারদের উপস্থিতিতে তার অংশগ্রহণ সীমিত হয়ে আসে।

লালা অমরনাথ ভারতের দল নির্বাচকমণ্ডলীর সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে বেশ কয়েকজন তরুণ খেলোয়াড়কে জাতীয় দলে অন্তর্ভূক্তির সুযোগ দেন। তন্মধ্যে, তিনি অন্যতম ছিলেন। অভিষেক টেস্টে ৩৯ ওভার বোলিং করে ১/৯৯ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান। কলকাতায় পরের টেস্টে ২১ ওভার বোলিং করে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জেজি লেগাটজন রিডের উইকেট পান ও ২/৪৬ পরিসংখ্যান গড়েন। এরপর আর তাকে জাতীয় দলের পক্ষে খেলার জন্যে ডাকা হয়নি।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত তিনি। তার সন্তান প্রদীপ সুন্দরম ১৯৮০-এর দশকে রাজস্থানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। একবার খেলায় প্রদীপ ইনিংসের দশ উইকেটের সবকটিই করায়ত্ত্ব করেছিলেন।[২] কর্ণাটকের দক্ষিণাঞ্চলীয় এলাকা উদুপি’র বিল্লব পুজারী পরিবারে গুন্দিবেল সুন্দরমের জন্ম।[৩]

২০ জুন, ২০১০ তারিখে ৮০ বছর বয়সে মুম্বই এলাকায় গুন্দিবেল সুন্দরমের দেহাবসান ঘটে।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Sujit Mukherjee, Playing for India, Orient Longman (1988), p. 61
  2. Rajasthan v Vidharbha, 1985-86
  3. Richard Cashman, Patrons, players, and the crowd, Orient Longman (1980), p.189. Cashman actually puts his mother tongue as 'Kannada(Tulu)'
  4. "Former Test Cricketer, Mangalorean G R Sundaram Passes Away"। ৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]