কেভিন ডিউয়ার্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেভিন ডিউয়ার্স
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকেভিন গ্যারি ডিউয়ার্স
ডাকনামসোয়াম্পি
উচ্চতা৬ ফুট ১ ইঞ্চি (১.৮৫ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র ওডিআই
(ক্যাপ ১৯)
২৩ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২ বনাম শ্রীলঙ্কা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা -
রানের সংখ্যা -
ব্যাটিং গড় - ৭.০০
১০০/৫০ -/- ০/০
সর্বোচ্চ রান -
বল করেছে - ৫০
উইকেট -
বোলিং গড় - ৮৫.৩৩
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং - ১/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ২/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২২ জুলাই ২০১৯

কেভিন গ্যারি ডিউয়ার্স (ইংরেজি: Kevin Duers; জন্ম: ৩০ জুন, ১৯৬০) উত্তর রোডেশিয়ার লুসাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ও সাবেক জিম্বাবুয়ীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৯২ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে জিম্বাবুয়ের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর জিম্বাবুয়ীয় ক্রিকেটে ম্যাশোনাল্যান্ড দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন করতেন ‘সোয়াম্পি’ ডাকনামে পরিচিত কেভিন ডিউয়ার্স

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

এলিস রবিন্স স্কুলে অধ্যয়ন করেছেন দীর্ঘ ছয় ফুট এক ইঞ্চি উচ্চতার অধিকারী কেভিন ডিউয়ার্স। ১৯৮৪-৮৫ মৌসুম থেকে ১৯৯৩-৯৪ মৌসুম পর্যন্ত কেভিন ডিউয়ার্সের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। অভিষেক মৌসুমে নিউজিল্যান্ডীয় যুবদের বিপক্ষে সুন্দর ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করেছিলেন। চূড়ান্ত খেলায় ৮/১০২ পান। কিন্তু ক্রমাগত আঘাতপ্রাপ্তি খেলোয়াড়ী জীবনে বাঁধার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। পাঁচ বছর পর দল নির্বাচকমণ্ডলীর দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হন। ১৯৯০ সালের আইসিসি ট্রফি বিজয়ী জিম্বাবুয়ে দলের সদস্য ছিলেন।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ, ১৯৯২[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ছয়টিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন কেভিন ডিউয়ার্স। ২৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯২ তারিখে নিউ প্লাইমাউথে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওডিআইয়ে প্রথমবারের মতো খেলতে নামেন। অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারওয়েন জেমসের সাথে একযোগে ওডিআই অভিষেক ঘটে তার।[১] ১৪ মার্চ, ১৯৯২ তারিখে হোবার্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি। অংশগ্রহণকৃত সবগুলো ওডিআই ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলেছিলেন। ঐ সময়ে জিম্বাবুয়ে দলের টেস্ট খেলার মর্যাদাপ্রাপ্তি ঘটেনি।

অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে যৌথভাবে অনুষ্ঠিত ১৯৯২ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের পঞ্চম আসরে জিম্বাবুয়ে দলের সদস্যরূপে অংশ নেন। গ্রান্ট ফ্লাওয়ার নিজেকে প্রত্যাহার করে নিলে তার দলে অন্তর্ভূক্তির সুযোগ আসে। প্রতিযোগিতার ছয় খেলার সবকটিতেই তার অংশগ্রহণ ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আট ওভার বোলিং করে ০/১৯ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করিয়েছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Benson & Hedges World Cup, 1992: Scorecard of third match, Sri Lanka vs Zimababwe"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২২, ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]