কনকাকাফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উত্তর, মধ্য আমেরিকা ও ক্যারিবিয় ফুটবল সংস্থা
CONCACAF-logo.png
CONCACAF.svg
সংক্ষেপে CONCACAF
গঠন ১৯৬১
ধরণ ক্রীড়া পরিচালনাকারী সংস্থা
সদর দপ্তর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিউইয়র্ক সিটি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
সদস্যপদ ৪০ সদস্য সংস্থা
মহাসচিব
কলম্বিয়া এনরিক স্যাঞ্জ
সভাপতি কেইম্যান দ্বীপপুঞ্জ জেফ্রি ওয়েব
প্রধান প্রতিষ্ঠান ফিফা
ওয়েবসাইট www.concacaf.com

উত্তর, মধ্য আমেরিকা ও ক্যারিবিয় ফুটবল সংস্থা বা কনকাকাফ (ইংরেজি: CONCACAF; স্পেনীয়: Confederación de Fútbol de Norte, Centroamérica y el Caribe;[১] ফরাসি: Confédération de football d'Amérique du Nord, d'Amérique centrale et des Caraïbes;[২] স্থানীয়ভাবে: [komfeðeɾaˈsjon de ˈfutβol de ˈnorte ˈsentɾoaˈmeɾika j el kaˈɾiβe]) মহাদেশীয় ক্রীড়া পরিচালনা পরিষদরূপে উত্তর, মধ্য আমেরিকাক্যারিবীয় অঞ্চলের ফুটবল সংস্থাগুলোকে নিয়ন্ত্রিত করে। এছাড়াও, দক্ষিণ আমেরিকার তিনটি দেশসহ গায়ানা, সুরিনাম, ফরাসি গিনিও কনকাকাফের সদস্যভূক্ত দেশ।[৩]

পুরুষদের ফুটবলে এ অঞ্চল থেকে মেক্সিকো আধিপত্য বিস্তার করে আছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও প্রভূত উন্নয়ন করেছে। উভয় দলই সকল ধরনের প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করলেও কনকাকাফ গোল্ড কাপ জয় থেকে দূরে রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মহিলাদের প্রতিযোগিতায় ব্যাপক সাফল্য দেখিয়েছে। একমাত্র সদস্য হিসেবে তারা দুইবার বিশ্বকাপ ফুটবল, চারবার অলিম্পিক ও আটবার আলগার্ভ কাপ জয়লাভ করেছে।

গঠন[সম্পাদনা]

১৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৬১ তারিখে কনাকাফ মেক্সিকো সিটিতে প্রতিষ্ঠিত হয়। এনএএফসিসিসিসিএফ একীভূত হয়ে এ সংস্থাটি গঠিত হয়। এরফলে এটি ছয়টি মহাদেশীয় সংস্থার অন্যতম একটিরূপে ফিফার মর্যাদা পায়। প্রশাসনিক কার্যাবলীর মধ্যে রয়েছে জাতীয় দল ও ক্লাব দলগুলোর প্রতিযোগিতা পরিচালনা করা। ফিফা বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্ধারণী খেলাগুলো পরিচালনা করাও এর অন্যতম কাজ।

নেতৃত্ব[সম্পাদনা]

কনকাকাফের প্রথম সভাপতির দায়িত্বভার গ্রহণ করেন রামোন কল জমেট নামীয় একজন কোস্টারিকান। তিনিই এনএএফসিসিসিসিএফ একীভূত হযবার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ১৯৬৯ সালে তাঁর স্থলাভিষিক্ত হন মেক্সিকোর জোয়াকুইন সোরিয়া টেরাজাস। এরপর জ্যাক ওয়ার্নার ২১ বছর কনকাকাফের সভাপতি ছিলেন। ৩০ মে, ২০১১ সালে ৬১তম ফিফা কংগ্রেসে ফিফা সম্পর্কীত কার্যাবলী থেকে তাকে দূর্নীতির দায়ে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।[৪] ক্ষমতার সংঘাত উন্নয়নে ফিফা নীতি-নির্ধারক কমিটিতে কনকাকাফের মহাসচিব চাক ব্ল্যাজার অভিযোগপত্র দাখিল করেছিলেন। লিজলে অস্টিনকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদে মনোনীত করা হয় এবং তিনি ব্ল্যাজারকে মহাসচিবের পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন।[৫] দায়িত্ব-কর্তব্য পালনে অবহেলা ও সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করার প্রেক্ষাপটেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে অস্টিন দাবী করেন। আমেরিকান হিসেবে তিনি এ পদের যোগ্য নন বলেও অভিহিত করেন।[৬] ২০ জুন, ২০১১ তারিখে জ্যাক ওয়ার্নার কনকাকাফের সভাপতি পদসহ ফিফার সকল ধরনের পদ থেকে অব্যাহতি নেন। নিজেকে তিনি ফুটবলের সকল স্তর থেকে দূরে রাখেন। ১০ মে, ২০১১ তারিখে ক্যারিবিয় ফুটবল ইউনিয়নের সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাঁর বিরুদ্ধে দূর্নীতির তদন্তের বিষয়ের ফলেই এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন জ্যাক।[৭] সহ-সভাপতি আলফ্রেদো হইত মে, ২০১২ পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন।[৮]

মে, ২০১২ সালে কেম্যান দ্বীপপুঞ্জের বিশিষ্ট ব্যাংকার জেফ্রি ওয়েব কনকাকাফের বর্তমান সভাপতিরূপে আসীন রয়েছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]