সৈয়দ আবিদ আলী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সৈয়দ আবিদ আলী
Syed Abid Ali.png
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1941-09-09) ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৪১ (বয়স ৭৮)
হায়দ্রাবাদ, হায়দ্রাবাদ রাজ্য, ব্রিটিশ ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডান হাতি
বোলিংয়ের ধরনডান হাতি মিডিয়াম ফাস্ট
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১১৬)
২৩ ডিসেম্বর ১৯৬৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৫ ডিসেম্বর ১৯৭৪ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ )
১৩ জুলাই ১৯৭৪ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই১৪ জুনা ১৯৭৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৫৯/৬০–১৯৭৮/৭৯হায়দ্রাবাদ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৯ ২১২ ১২
রানের সংখ্যা ১০১৮ ৯৩ ৮৭৩২ ১৬৯
ব্যাটিং গড় ২০.৩৬ ৩১.০০ ২৯.৩০ ২৮.১৬
১০০/৫০ ০/৬ ০/১ ১৩/৪১ ০/১
সর্বোচ্চ রান ৮১ ৭০ ১৭৩* ৭০
বল করেছে ৪১৬৪ ৩৩৬ ২৫৬১৯ ৭৮৩
উইকেট ৪৭ ৩৯৭ ১৯
বোলিং গড় ৪২.১২ ২৬.৭১ ২৮.৫৫ ১৯.৩১
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৪
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৬/৫৫ ২/২২ ৬/২৩ ৩/২০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩২/– ০/– ১৯০/৫ ৫/–
উৎস: ক্রিকেট আর্কাইভ, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

সৈয়দ আবিদ আলী (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ  মারাঠি: आबिद अली; জন্ম: ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৪১) হলেন একজন সাবেক অল-রাউন্ডার ভারতীয় ক্রিকেটার। তিনি ছিলেন লো অর্ডার ব্যাটসম্যান এবং একজন মিডিয়াম ফাস্ট বোলার।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আবিদ আলী হায়দ্রাবাদের সেন্ট জর্জেস গ্রামার স্কুল এবং অল সেইন্ট হাই স্কুলে পড়াশোনা করেন। ১৯৫৬ সালে তিনি তার অসাধারণ ফিল্ডিং করার জন্য নির্বাচক দের নজর কাড়েন এরপর হায়দ্রাবাদ বিদ্যালয় খেলার জন্য তাকে নির্বাচন করা হয়। তিনি কেরালার বিরুদ্ধে ৮২ রান করেন এবং সেরা ফিল্ডার এর পুরস্কার জিতে নেন। কয়েক বছর পরে যখন হায়দ্রাবাদ স্টেট ব্যাংক একটি ক্রিকেট দল গঠন করে সেখানে তিনি সুযোগ পনা। তিনি একজন বোলার হয়ে উঠার আগে একজন উইকেট-রক্ষক হিসাবে শুরু তার ক্যারিয়ার শুরু করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

আবিদ ১৯৫৮-৫৯ সালে হায়দ্রাবাদ জুনিয়র সাইডের এবং আগামী বছরের মধ্যে রাষ্ট্র রনজি ট্রফি দলে অন্তর্ভুক্ত হন। তিনি কমই প্রথম কয়েক বছরে বল করেছেন এবং ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত তার প্রথম রনজি ট্রফিতে কোন শতক পাননি। তিনি অপ্রত্যাশিতভাবে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড দলের বিরুদ্ধে খেলার জন্য বাছাই করা হয়। তিনি অস্ট্রেলিয়া বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের জন্য দলের নির্বাচিত হন সম্ভবত অধিনায়ক মনসুর আলী খান পতৌদি এর আহত হওয়ার কারনে তিনি দলে সুযোগ পান। উক্ত ম্যাচে আবিদ উভয় ইনিংসে ৩৩ রান করেন এবং ৫৫ রান দিয়ে তিনি ৬ উইকেট লাভ করেনে।[১] টেস্টে অভিষেকের সেরা ফলাফর ছিল। তৃতীয় টেস্টে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্যাটিং করতে গিয়ে তিনি ৪৭ রান করতে সক্ষম হন। এছাড়াও তিনি শেষ টেস্টে ৮১ ও ৭৮ এর অসাধারণ একটি ইনিংস খেলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ভারতীয় ক্রিকেটার সৈয়দ কিরমানীর কন্যাকে বিয়ে করেছিলেন তাঁর পুত্র ফাকির আলী। কিন্তু এপ্রিল ২০০৮ সালের হার্ট অ্যাটাকে থেকে তিনি মারা যান।[২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "1st Test: Australia v India at Adelaide, Dec 23-28, 1967"espncricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১২-১৩ 
  2. [১]
  • Sujit Mukherjee, Matched winners, Orient Longman (1996), p 76-90
  • Christopher Martin-Jenkins, Who's Who of Test Cricketers

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]