মোহাম্মদ খলিল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মোহাম্মদ খলিল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমোহাম্মদ খলিল
জন্ম (1982-11-11) ১১ নভেম্বর ১৯৮২ (বয়স ৩৯)
লাহোর, পাঞ্জাব, পাকিস্তান
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৮৩)
১৬ ডিসেম্বর ২০০৪ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৬ মার্চ ২০০৫ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৫৩)
৩০ জানুয়ারি ২০০৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা -
ব্যাটিং গড় ৩.০০ -
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান -
বল করেছে ২৯০ ১৪৪
উইকেট -
বোলিং গড় - ২৮.৮০
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ২/৫৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ২/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মোহাম্মদ খলিল (উর্দু: محمد خلیل‎‎; জন্ম: ১১ নভেম্বর, ১৯৮২) পাঞ্জাব প্রদেশের লাহোর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক পাকিস্তানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে পাকিস্তানের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর পাকিস্তানি ক্রিকেটে লাহোর, পাকিস্তান টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড, রেডকো পাকিস্তান লিমিটেড ও জারাই তারাকিয়াতি ব্যাংক লিমিটেড দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতে মিডিয়াম বোলিং করতেন। এছাড়াও, বামহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৯৯-২০০০ মৌসুম থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত মোহাম্মদ খলিলের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। মাত্র ছয়টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশগ্রহণের পর ২০০৩-০৪ মৌসুমে সফরকারী বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে টেস্ট খেলার জন্যে তাকে পাকিস্তানের টেস্ট দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[১] পূর্ববর্তী মৌসুমে ঐ ছয় খেলার তিনটি থেকে ১৪ উইকেট দখল করেছিলেন। তবে, ঐ সিরিজের কোন খেলায় তার অংশগ্রহণের সুযোগ হয়নি। পরবর্তী মৌসুমের শেষদিকে দলের সাথে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন।

২০১০-১১ মৌসুমের কায়েদ-ই-আজম ট্রফি প্রতিযোগিতায় দূর্দান্ত খেলেন। ফলশ্রুতিতে, পুনরায় জাতীয় দলে খেলার জন্যে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। ২০১১-১২ মৌসুমে বাংলাদেশ গমনার্থে তাকে আঘাতপ্রাপ্ত সিমার জুনায়েদ খানের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্ট ও তিনটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন মোহাম্মদ খলিল। ১৬ ডিসেম্বর, ২০০৪ তারিখে পার্থে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১৬ মার্চ, ২০০৫ তারিখে কলকাতায় স্বাগতিক ভারত দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

ডিসেম্বর, ২০০৪ সালে ওয়াকা গ্রাউন্ডে সিরিজের প্রথম টেস্টে তার অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়। তবে, দুই খেলায় কোন উইকেট না পাওয়ায় তাকে দলের বাইরে রাখা হয়।[২] ২০০৪-০৫ মৌসুমের ভিবি সিরিজে পাকিস্তানের ওডিআই দলের সদস্যরূপে মনোনীত হন।[৩] সিরিজের অষ্টম খেলায় স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার ওডিআই অভিষেক হয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pakistan One day and Test squads for Bangladesh series"Cric Info Archive। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০০৩ 
  2. "Pak vs Aus / 1st Test / Pakistan tour of Australia in 2004–05"ESPN 
  3. "Cricinfo – 2004–05 VB Series – Pakistan Squad"। ESPNcricinfo। 
  4. "Pak vs Aus / 8th match / 2004–05 VB Series"ESPN 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]