মাহেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাহেস
যুদ্ধ, রক্ষা ও আবহাওয়া
Figurine of a Lion Headed Deity Holding Knife LACMA M.80.203.107 (1 of 2).jpg
আতেফ মুকুটউরেয়াস পরিহিত এবং ছুরিকাধারী সিংহমুণ্ড মাহেস
প্রধান অর্চনা কেন্দ্রতারেমু & পের-বাস্ত
প্রতীকসিংহ, ছুরি অথবা তরবারি
সহোদরনেফারতুম (মাতৃপরিচয় অনুযায়ী ভাই অথবা সৎভাই)
মাতাপিতাপ্‌তাহবাস্ত বা শেখমেত
mA
ir
Hz
zA
mAi
মাহেস[১]
চিত্রলিপিতে

মাহেস (বানানান্তরে মিহোস, মিয়সিস, মিওস, মাইহেস; গ্রিক: Μαχές, Μιχός, Μίυσις, Μίος, or Μάιχες) ছিলেন প্রাচীন মিশরীয় ধর্মের এক সিংহমুণ্ড-বিশিষ্ট যুদ্ধ দেবতা।[২] তাঁর নামের অর্থ হল "যিনি [পুং] তাঁর [স্ত্রী] প্রতি বিশ্বস্ত"। তাঁকে সৃষ্টিকর্তা দেবতা প্‌তাহ এবং এক বিড়ালমুখী দেবীর (নিম্ন মিশরে বাস্ত অথবা উচ্চ মিশরে সেখমেত) পুত্র মনে করা হয়। তাঁর স্বভাব ছিল তাঁর মায়ের অনুরূপ। মাহেস ছিলেন যুদ্ধ, রক্ষা ও আবহাওয়া এবং সেই সঙ্গে ছুরি, পদ্মবন্দী ভক্ষণের দেবতা। মাহেস ক্লাটের কেন্দ্র ছিল তারেমুপের-বাস্ত। উল্লেখ্য এই দু’টি কেন্দ্র ছিল যথাক্রমে সেখমেত ও বাস্ত কাল্টের কেন্দ্র।

উৎস[সম্পাদনা]

মাহেসের প্রথম নথিবদ্ধ উল্লেখটি নতুন রাজ্যের সমসাময়িক। কোনও কোনও মিশরতত্ত্ববিদের মতে মাহেস বিদেশি উৎস-সম্ভূত এক দেবতা;[৩] বাস্তবিকই এমন প্রমাণ পাওয়া যায় যে, তিনি নুবিয়া ও মিশরের পশ্চিম মরুভূমিতে পূজিতা সিঙ্ঘ-দেবতা আপেদেমাকের অনুরূপ।

মনে করা হত যে, মাসের পিতা রা এবং মাতা বিড়ালমুখী দেবী বাস্তেত বা অপর বিড়ালমুখী দেবী সেখমেত। কোনও কোনও ক্ষেত্রে তাঁকে ও সেখমেতের অপর পুত্র নেফারতুমকে অভিন্নও মনে করা হত। কথিত ছিল যে, রা-র রাত্রিকালীন যাত্রার সময় মাহেস রা-র প্রধান শত্রু আপেপ নামক সর্পের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন।[৪]

বিড়ালমুখী দেবীদের অত্যন্ত শক্তিশালী মনে করা হত বলে তাঁদের যুক্ত করা হত ফ্যারাওদের সঙ্গে। এই দেবীদের মিশরের পৃষ্ঠপোষকের স্থান দেওয়া হয়। পুরুষ সিংহ চিত্রলিপিগুলি ব্যবহৃত হত "রাজপুত্র", "মাস্তুলশীর্ষ", "শক্তি" ও "ক্ষমতা" অর্থে।

নাম[সম্পাদনা]

মাহেসের নামটি শুরু হয় পুংলিঙ্গ-বাচক সিংহের চিত্রলিপি দিয়ে। যদিও পৃথকভাবে এই চিত্রলিপিটির অপর অর্থ "(যিনি পারেন) সামনে দেখতে"। মাহেসের উপাধিগুলির অন্যতম "হত্যাকাণ্ডের প্রভু",[২][৫] "ছুরিকার অধিকারী" বা "ছুরিকা-ব্যবহারকারী" ও "অরুণবর্ণ প্রভু"।

বিবরণ[সম্পাদনা]

মাহেস চিত্রিত হতেন সিংহমুণ্ড-বিশিষ্ট এক মানুষের মূর্তিতে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে তাঁর হাতে থাকত একটি ছুরি বা পদ্ম ফুলের গুচ্ছ। পদ্ম ফুল তাঁর সঙ্গে নেফারতুমের যোগসূত্র নির্দেশ করে। কারণ নেফারতুমেরও প্রতীক ছিল পদ্ম।[৪]

পবিত্র পশু[সম্পাদনা]

সিংহমুণ্ড মাহেসের মূর্তি (খ্রিস্টপূর্ব ৬৬৪-৫২৫ অব্দ), প্রাকৃতিক ইতিহাস জাদুঘর (ভিয়েনা)

তারেমুতে মাহেসের প্রতি উৎসর্গিত মন্দিরে পোষা সিংহ রাখা হত। সেখানে বাস্ত/সেখমেতও পূজিত হতেন। বাস্তের মন্দিরের পাশেই গড়ে উঠেছিল মাহেসের মন্দির।[৬] প্রাচীন গ্রিক ঐতিহাসিক এইলিয়ানাস লিখেছিলেন: "মিশরে ওরা সিংহদের পূজা করে এবং সেখানে সিংহদের নামে একটি শহরও আছে। (...) সিঙ্ঘদের মন্দির ও অনেক জায়গা আছে, সেখানে তারা ঘুরে বেড়ায়; প্রতিদিন তাদের বৃষমাংস সরবরাহ করা হয় (...) এবং মিশরীয় ভাষায় গান শুনতে শুনতে সিংহেরা খায়।" এইভাবেই শহরটির গ্রিক নাম লিয়েন্টোপোলিস-এর উদ্ভব ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Erman, Adolf & Grapow, Hermann: Wörterbuch der Aegyptischen Sprache., Im Auftrage der Deutschen Akademien, Berlin: Akademie Verlag (1971), II., p.12
  2. Manfred Lurker (১৯৮৭)। Dictionary of Gods and Goddesses, Devils and DemonsRoutledge। পৃষ্ঠা 215। আইএসবিএন 978-0-7102-0877-4 
  3. Walter Yust ed., Encyclopædia Britannica: A New Survey of Universal Knowledge, 1956, p.54
  4. Wilkinson, Richard H. (2003). The Complete Gods and Goddesses of Ancient Egypt. Thames & Hudson. pp. 178–179
  5. The epithet was used for many Egyptian gods: Thoth (cf. Erik Hornung, The Secret Lore of Egypt: Its Impact on the West, 2001, p.6), Wepwawet (cf. Egypt: Temple of the Whole World : Studies in Honour of Jan Assmann, Brill 2003, আইএসবিএন ৯০-০৪-১৩২৪০-৬, p.106), Set (cf. Homer William Smith, Man and His Gods, 1952 p.20) etc.
  6. Caroline Seawright, Maahes, God of War and Protection, The Leonine Lord of Slaughter...- map of temples

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • উইকিমিডিয়া কমন্সে মাহেস সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন