বিষয়বস্তুতে চলুন

দ্বাদশ গুহার মন্ত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

দ্বাদশ গুহার মন্ত্র (নামান্তরে আত্মার উদ্দেশ্যহীন যাত্রা; আরবি: تعويذة الكهوف الاثني عشر, প্রতিবর্ণীকৃত: Taewidhat al-Kuhuf al-Iathnay Eashar) হল মিশরের নতুন রাজ্যের সময়কালীন একটি প্রাচীন মিশরীয় অন্ত্যেষ্টিলিপি। এই লিপির আদিতম জ্ঞাত পাঠটি রা.উ.৩৫-এ দ্বিতীয় আমেনহোতেপের সমাধিতে একটি প্যাপিরাসে পাওয়া যায়; আরেকটি পাঠ পাওয়া যায় মেরেনপ্‌তাহের তলদেশে অ্যাবিডোসে ওসাইরেইয়নে উৎখোদিত অবস্থায়। যদিও এই লিপির পাঠগুলিকে মৃতের বই-এর কোনও কোনও পাঠে পাওয়া যায় এবং সেখানে এটিকে ১৬৮ সংখ্যক মন্ত্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে; তা সত্ত্বেও মিশরতত্ত্ববিদ আলেকজান্দ্রে পিয়ানকফ এটিকে পৃথক রচনা গণ্য করেন।[১]

এই পাঠে দুয়াত অর্থাৎ পাতাললোকের বর্ণনা রয়েছে। বলা হয়েছে যে, পাতাললোক বারোটি গুহায় বিন্যস্ত, যা অনেকটি নতুন রাজ্যের প্রথম পর্বের অপর দুই অন্ত্যেষ্টিলিপি আমদুয়াতদরজার বই-এ বর্ণিত দুয়াতের বর্ণনার অনুরূপ। প্রতিটি গুহায় একাধিক দেবগোষ্ঠীর অবস্থানের বর্ণনা করা হয়েছে, যাঁরা মৃতের আত্মাকে পরলোকে নিজের ইচ্ছায় বিচরণ করার মতো নানা সুবিধা প্রদান করেন।[১]

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Hornung (1999) pp. 54–55

গ্রন্থপঞ্জি

[সম্পাদনা]
  • Hornung, Erik (১৯৯৯)। The Ancient Egyptian Books of the Afterlifeবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন (German ভাষায়)। David Lorton (translator)। Cornell University Press। 

বহিঃসংযোগ

[সম্পাদনা]