মার্কো আসেন্সিও

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মার্কো আসেন্সিও
Asensio 2018 (cropped).jpg
২০১৮ সালে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে আসেন্সিও
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মার্কো আসেন্সিও উইলেমসেন[১]
জন্ম (1996-01-21) ২১ জানুয়ারি ১৯৯৬ (বয়স ২৫)[২]
জন্ম স্থান পালমা, স্পেন
উচ্চতা ১.৮২ মিটার (৫ ফুট ১১  ইঞ্চি)[৩]
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব
রিয়াল মাদ্রিদ
জার্সি নম্বর ১১
যুব পর্যায়
২০০৩–২০০৬ পাতজেস কালভিয়া
২০০৬–২০১৩ মায়োর্কা
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০১৩–২০১৪ মায়োর্কা বি ১৪ (৩)
২০১৩–২০১৪ মায়োর্কা ৫৬ (৭)
২০১৪– রিয়াল মাদ্রিদ ১৩৪ (২১)
২০১৪–২০১৫মায়োর্কা (ধার) ১৯ (৩)
২০১৫–২০১৬এস্পানিওল (ধার) ৩৪ (৪)
জাতীয় দল
২০১২ স্পেন অনূর্ধ্ব-১৬ (০)
২০১৪–২০১৫ স্পেন অনূর্ধ্ব-১৯ ১২ (৮)
২০১৫–২০১৭ স্পেন অনূর্ধ্ব-২১ ১৮ (৭)
২০২১ স্পেন অনূর্ধ্ব-২৩ (১)
২০১৬– স্পেন ২৫ (১)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লীগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ২১:৫৪, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ১৮:৪২, ৭ আগস্ট ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

মার্কো আসেন্সিও উইলেমসেন (স্পেনীয়: Marco Asensio, স্পেনীয় উচ্চারণ: [ˈmaɾko aˈsensjo]; জন্ম: ২১ জানুয়ারি ১৯৯৬; মার্কো আসেন্সিও নামে সুপরিচিত) হলেন একজন স্পেনীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়। তিনি বর্তমানে স্পেনের পেশাদার ফুটবল লীগের শীর্ষ স্তর লা লিগার ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ এবং স্পেন জাতীয় দলের হয়ে আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন।[৪][৫] তিনি মূলত ডান পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেললেও মাঝেমধ্যে বাম পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলে থাকেন।

২০০৩–০৪ মৌসুমে, স্পেনীয় ফুটবল ক্লাব পাতজেস কালভিয়ার যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে আসেন্সিও ফুটবল জগতে প্রবেশ করেছেন এবং পরবর্তীকালে মায়োর্কার যুব দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি ফুটবল খেলায় বিকশিত হয়েছেন। ২০১৩–১৪ মৌসুমে, প্রথমে মায়োর্কা বি এবং পরবর্তীতে মায়োর্কার হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছেন, যেখানে তিনি ২ মৌসুম অতিবাহিত করেছেন; মায়োর্কার হয়ে তিনি ৫৬ ম্যাচে ৭টি গোল করেছেন। অতঃপর ২০১৪–১৫ মৌসুমে তিনি প্রায় ৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগদান করেছেন। মাঝে তিনি মায়োর্কা এবং এস্পানিওলে এক মৌসুম করে অতিবাহিত করেছেন।

২০১২ সালে, আসেন্সিও স্পেন অনূর্ধ্ব-১৬ দলের হয়ে স্পেনের বয়সভিত্তিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন। প্রায় ৩ বছর যাবত স্পেনের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে খেলার পর, তিনি ২০১৬ সালে স্পেনের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন; স্পেনের জার্সি গায়ে তিনি এপর্যন্ত ২৫ ম্যাচে ১টি গোল করেছেন। তিনি স্পেনের হয়ে ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছেন।

ব্যক্তিগতভাবে, আসেন্সিও বেশ কিছু পুরস্কার জয়লাভ করেছেন, যার মধ্যে ২০১৫ উয়েফা ইউরোপীয় অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের গোল্ডেন খেলোয়াড়ের পুরস্কার অন্যতম।[৬] দলগতভাবে, আসেন্সিও এপর্যন্ত ১০টি শিরোপা জয়লাভ করেছেন, যার মধ্যে ৯টি রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এবং ১টি স্পেনের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে জয়লাভ করেছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মার্কো আসেন্সিও উইলেমসেন ১৯৯৬ সালের ২১শে জানুয়ারি তারিখে স্পেনের পালমায় জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন। তার বাবা স্পেনীয় বংশোদ্ভূত হলেও তার মা ওলন্দাজ বংশোদ্ভূত ছিলেন।[৭][৮] তার মা মারিয়া উইলেমসেন ১৫ বছর বয়সে ক্যান্সারে মৃত্যুবরণ করেছেন।[৯] আসেন্সিও তার শৈশবে হাঁটুতে বৃদ্ধি ঘাটতির সাথে লড়াই করেছিলেন, যা তার কিশোর বয়সে কমে গিয়েছিল।[১০]

আন্তর্জাতিক ফুটবল[সম্পাদনা]

আসেন্সিও স্পেন অনূর্ধ্ব-১৬, স্পেন অনূর্ধ্ব-১৯, স্পেন অনূর্ধ্ব-২১ এবং স্পেন অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে খেলার মাধ্যমে স্পেনের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তিনি স্পেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ২০১৫ উয়েফা ইউরোপীয় অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়লাভ করেছেন, যার মাধ্যমে তার দল উক্ত প্রতিযোগিতার ইতিহাসে দশমবারের মতো শিরোপা ঘরে তুলতে সক্ষম হয়েছিল।[১১][১২][১৩] ২০১৭ স্পেন অনূর্ধ্ব-২১ দলের হয়ে তিনি ২০১৭ উয়েফা ইউরোপীয় অনূর্ধ্ব-২১ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করেছেন, উক্ত প্রতিযোগিতার ফাইনালে পূর্ণ সময় শেষে তার দল জার্মানি অনূর্ধ্ব-২১ দলের কাছে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল;[১৪] উক্ত প্রতিযোগিতায় স্পেনের প্রথমে তিনি হ্যাট্রিক করেছিলেন।[১৫] আসেন্সিও জাপানে অনুষ্ঠিত ২০২০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের জন্য ২০২১ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত স্পেন অনূর্ধ্ব-২৩ দলে স্থান পেয়েছিলেন;[১৬][১৭][১৮] যেখানে তিনি ৬ ম্যাচে ১টি গোল করার পাশাপাশি রৌপ্য পদক জয়লাভ করেছেন।[১৯][২০][২১] স্পেনের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে তিনি প্রায় ৫ বছরে ৩৯ ম্যাচে অংশগ্রহণ করে ১৬টি গোল এবং ১টি শিরোপা জয়লাভ করেছেন। তিনি ২০১৪ সালের ১৩ই নভেম্বর তারিখে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে জার্মানি অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিরুদ্ধে স্পেনের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে প্রথমবারের মতো গোল করেছেন।[২২][২৩]

২০১৬ সালের ২৯শে মে তারিখে, মাত্র ২০ বছর ৪ মাস ৮ দিন বয়সে, বাম পায়ে ফুটবল খেলায় পারদর্শী আসেন্সিও বসনিয়া ও হার্জেগোভিনার বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে স্পেনের হয়ে অভিষেক করেছেন।[২৪] তিনি উক্ত ম্যাচের মূল একাদশে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন, তবে উক্ত ম্যাচের ৬০তম মিনিটে আক্রমণভাগের খেলোয়াড় ইনিয়াকি উইলিয়ামসের বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তিনি মাঠে প্রবেশ করেন;[২৫] ম্যাচে তিনি ০০ নম্বর জার্সি পরিধান করে আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন। ম্যাচটি স্পেন ৩–১ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল।[২৬] স্পেনের হয়ে অভিষেকের বছরে আসেন্সিও সর্বমোট ২ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন। জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের ২ বছর ৩ মাস ১৩ দিন পর, স্পেনের জার্সি গায়ে প্রথম গোলটি করেন; ২০১৮ সালের ১১ই সেপ্টেম্বর তারিখে, ক্রোয়েশিয়া বিরুদ্ধে ম্যাচের প্রথম গোলটি করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম গোলটি করেন।[২৭][২৮][২৯]

আসেন্সিও রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের জন্য ফের্নান্দো ইয়েরোর অধীনে ঘোষিত স্পেন দলে স্থান পাওয়ার মাধ্যমে প্রথমবারের মতো ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পান।[৩০] ২০১৮ সালের ২০শে জুন তারিখে, তিনি ইরানের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে ফিফা বিশ্বকাপে অভিষেক করেছেন।[৩১][৩২][৩৩] উক্ত বিশ্বকাপে তিনি ৩ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন।[৩৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

আসেন্সিওর বাবা গিলবের্তো (একজন বাস্ক বংশোদ্ভূত, যিনি জার্মানির এসেনে তার শৈশব কাটিয়েছিলেন) একজন ফুটবল খেলোয়াড় ছিলেন।[৮] তিনি একজন আক্রমণাত্মক মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে বারাকালদো যুব দলে খেলেছিলেন;[৮] আসেন্সিওর বড় ভাই ইগর পাতজেস কালভিয়ার হয়ে রক্ষণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন।[৩৫]

২০১৭ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ফাইনালে আসেন্সিও তার গোল উদযাপনে তার পরিবারকে উৎসর্গ করে বলেছিলেন, "আমি তাদের বলেছিলাম যে আমি যদি গোল করি, তবে তারা যেখানে আছে আমি সেখানে দৌড়ে যাব। আমি জানতাম তারা কোথায় ছিল এবং আমি সেটাই করেছি।"[৩৬]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

১২ আগস্ট ২০২১ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
দল সাল ম্যাচ গোল
স্পেন ২০১৬
২০১৭
২০১৮ ১২
২০১৯
২০২০
সর্বমোট ২৫

আন্তর্জাতিক গোল[সম্পাদনা]

গোল তারিখ মাঠ প্রতিপক্ষ স্কোর ফলাফল প্রতিযোগিতা সূত্র
১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ মানুয়েল মার্তিনেস ভালেরো স্টেডিয়াম, এলচে, স্পেন  ক্রোয়েশিয়া –০ ৬–০ ২০১৮–১৯ উয়েফা নেশনস লীগ [৩৭][২৭][২৮][২৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Acta del Partido celebrado el 03 de noviembre de 2018, en Madrid" [Minutes of the Match held on 3 November 2018, in Madrid] (স্পেনীয় ভাষায়)। Royal Spanish Football Federation। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুন ২০১৯ 
  2. "FIFA Club World Cup UAE 2017: List of players: Real Madrid CF" (PDF)। FIFA। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭। পৃষ্ঠা 5। ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  3. "2018 FIFA World Cup Russia – List of Players" (PDF)। FIFA। ৪ জুন ২০১৮। ১৯ জুন ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুন ২০১৮ 
  4. "Asensio Willemsem - Forward First Team"রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবল ক্লাব। ২৪ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  5. "Marco Asensio LaLiga Santander"লা লিগা। ২৮ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০২১ 
  6. "2015: Marco Asensio"। UEFA। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৬ 
  7. "Seguido desde hace meses por la élite europe" [Followed by the European elite for months]। Diario de Mallorca (স্পেনীয় ভাষায়)। ২৭ আগস্ট ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  8. "Asensio's father dreamed his son would play for Athletic Club"Diario AS। ২২ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১৮ 
  9. "Asensio no pudo contener las lágrimas al recordar a su madre" [Asensio could not hold back the tears when remembering his mother] (স্পেনীয় ভাষায়)। OK Diario। ১৬ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৭ 
  10. "El grave problema que sufrió Marco Asensio en su infancia" [The serious problem from which Marco Asensio suffered in his youth] (স্পেনীয় ভাষায়)। Don Balón Rosa। ১০ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৭ 
  11. uefa.com। "Under-21 2017 – History – Spain" (ইংরেজি ভাষায়)। UEFA। সংগ্রহের তারিখ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  12. uefa.com। "Under-21 2017 – History – Matches" (ইংরেজি ভাষায়)। UEFA। সংগ্রহের তারিখ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  13. "Spain-Russia - Under-19"UEFA.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১১ 
  14. "Germany-Spain - Under-21"UEFA.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১১ 
  15. "Spain U21 - North Macedonia U21, Jun 17, 2017 - 2017 European Under-21 Football Championship - Match sheet"Transfermarkt। ২০১৭-০৬-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১১ 
  16. "Squad list - Men's Olympic Football Tournament Tokyo 2020" [দলের তালিকা - পুরুষদের অলিম্পিক ফুটবল প্রতিযোগিতা টোকিও ২০২০] (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ফিফা। ৭ জুলাই ২০২১। পৃষ্ঠা ১৬। 
  17. "Estos son los internacionales que representarán a España en Tokio" [টোকিওতে স্পেনের প্রতিনিধিত্বকারী দল]। sefutbol.com (স্পেনীয় ভাষায়)। রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। ২৯ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০২১ 
  18. "Spain names men's football squad for Tokyo 2020 Olympic Games" [স্পেন টোকিও ২০২০ অলিম্পিক গেমসের জন্য পুরুষদের ফুটবল দলের নাম ঘোষণা করেছে]। olympics.com (ইংরেজি ভাষায়)। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। ২৯ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০২১ 
  19. "Spain - Appearances Olympic Games 2021"worldfootball.net (জার্মান ভাষায়)। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  20. "Football - Brazil vs Spain"Gold Medal Match Results। ৭ আগস্ট ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  21. "Olympic Football Tournament – 2021-08-07 – International Stadium Yokohama"FIFA। ৭ আগস্ট ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  22. "Spain U19 - Germany U19, Nov 13, 2014 - International Friendlies - Match sheet"Transfermarkt। ১৩ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  23. "Spain - Germany 2:0 (U19 Friendlies 2014, November)"worldfootball.net। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  24. "Spain - Bosnia-Herzegovina 3:1 (Friendlies 2016, May)"worldfootball.net। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  25. "Spain - Bosnia-Herzegovina, May 29, 2016 - International Friendlies - Match sheet"Transfermarkt। ২৯ মে ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  26. Strack-Zimmermann, Benjamin (২৯ মে ২০১৬)। "Spain vs. Bosnia & Herzegovina (3:1)"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  27. "Spain - Croatia, Sep 11, 2018 - UEFA Nations League A - Match sheet"Transfermarkt। ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  28. "Spain - Croatia 6:0 (Nations League A 2018/2019, Group 4)"worldfootball.net। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  29. Strack-Zimmermann, Benjamin (১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮)। "Spain vs. Croatia (6:0)"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  30. "FIFA World Cup Russia 2018™: List of Players" (PDF)fifadata.com (ইংরেজি ভাষায়)। ফিফা। ১০ জুন ২০১৮। পৃষ্ঠা ১৭। ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০২১ 
  31. "Iran - Spain, Jun 20, 2018 - World Cup 2018 - Match sheet"Transfermarkt। ২০ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  32. "Iran - Spain 0:1 (World Cup 2018 Russia, Group B)"worldfootball.net। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  33. Strack-Zimmermann, Benjamin (২০ জুন ২০১৮)। "Iran vs. Spain (0:1)"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  34. Played, Minutes (২৭ নভেম্বর ২০২০)। "Spain - Appearances World Cup 2018"worldfootball.net। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 
  35. "Marco Asensio, la joya mileurista" [Marco Asensio, the mileurista pearl]। Marca (স্পেনীয় ভাষায়)। Spain। ১৪ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৭ 
  36. Lara, Miguel Ángel; McTear, Euan (১১ অক্টোবর ২০১৮)। "Asensio returns to Cardiff, a city of happy memories"Marca। Spain। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১৮ 
  37. "Spain-Croatia - UEFA Nations League"UEFA.com। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]