বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের লোগো
বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কর্মী রাজুর স্মরণে সন্ত্রাস বিরোধী ভাস্কর্য[১] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বাংলাদেশের একটি বামপন্থী রাজনৈতিক সংগঠন। এটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি ছাত্র সংগঠন। সংগঠনটি ১৯৫২ সালের ২৬শে এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।[২][৩] সংগঠনটি বিভিন্ন সময় বৈষম্যহীন, বিজ্ঞানভিত্তিক, অসাম্প্রদায়িক ও প্রগতিশীল ধারার শিক্ষানীতির জন্য আন্দোলন করে থাকে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় সংগঠনটির নিজস্ব গেরিলা বাহিনী ছিল। ১৯৭৩ সালের ১লা জানুয়ারি এই সংগঠনের মতিউল ও কাদের নামের দুজন কর্মী আমেরিকা দ্বারা ভিয়েতনাম আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ঢাকায় একটি সাম্রাজ্যবাদবিরোধী আন্দোলনের মিছিল চলাকালে পুলিশের গুলিতে মৃত্যুবরণ করেন। এর ফলস্বরূপ ভিয়েতনাম সরকার মতিউল ও কাদেরকে ভিয়েতনামের জাতীয় বীরের মর্যাদা দিয়েছিল।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ ৪১ জন সদস্যের সমন্বয়ে গঠিত। সংগঠনটির বর্তমান সভাপতি লাকী আক্তার ও সাধারণ সম্পাদক জি এম জিলানী শুভ। এটি বাংলাদেশের পাশাপাশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ছাত্র এবং যুব সংগঠনের সদস্য হিসাবে বিশ্বজুড়েও কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। অন্যান্য কার্যক্রমের মধ্যে এটি প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারিতে “জয়ধ্বনি” নামক সাহিত্য পত্রিকা প্রকাশ করার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরণের পত্রিকা প্রকাশ করে থাকে। এটি প্রগতিশীল ছাত্র জোটভুক্ত সংগঠন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ডিইউটাইমজ,ফেরদৌস আলম
  2. "Bangladesh Students' Union (BSU), Bangladesh"। Eastchance.com। সংগৃহীত ২০১৪-০৬-২১ 
  3. পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়ন : গৌরবের দিনলিপি, মাহফুজ উল্লাহ, পৃষ্ঠা:২৫

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট