গণহত্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
১৯৭১ বাংলাদেশী বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডের পরে পড়ে থাকা বুদ্ধিজীবীদের লাশ

গণহত্যা (কখনো কখনো গণবিধ্বংসীর সাথে তুলনা করা হয়) বলতে নির্দিস্ট একটি ভৌগোলিক অংশে একযোগে বা অপেক্ষাকৃত অল্প সময়ে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ হত্যা করাকে বোঝায়।[১][২]

গণহত্যা জাতিগত, বর্ণগত, ধর্মীয় বা নৃতত্ত্বীয় গোষ্ঠী হিসাবে বিবেচিত মানুষজনকে সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে ধ্বংস করার ইচ্ছাকৃত কার্য। 'গণ'-এর অর্থ গোষ্ঠী এবং 'হত্যা'র অর্থ সংহার। অর্থাত্‌ গণহত্যা হ'ল কোনো গোষ্ঠীভুক্ত মানুষজনকে মেরে ফেলা। ইংরাজী প্রতিশব্দ জেনোসাইডের উত্‌সও একই। এটি গ্রীক জেনোস, অর্থাত্‌ মানুষ বা বর্ণ থেকে এবং সাইড অর্থাত্‌ মারা থেকে এসেছে। সেহেতু জেনোসাইডের বা গণহত্যার অর্থ "জাতীয়, নৃগোষ্ঠীয়, বর্ণগত বা ধর্মীয় গোষ্ঠীকে সম্পূর্ণরূপে বা আংশিকভাবে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে করা কার্য"।[৩][৪][৫]

এফবিআই এর মতে, গণহত্যা হল সেই হত্যাকান্ড যখন কোন একটা ঘটনায় চার বা তার অধিক সংখ্যক মানুষ মারা যায় এবং হত্যাকান্ডের মাঝে কোন বিরতি থাকে না।[৬][৭] গণহত্যা সাধারণত একটি নির্দিষ্ট স্থানে ঘটে, যেখানে এক বা একাধিক মানুষ অন্যদের মেরে ফেলে। অনেক গণহত্যার শেষে হত্যাকারী আত্মহত্যা করে অথবা পুলিশের হাতে নিহত হয়।[৮]


বর্তমান পর্যন্ত বেশ কিছু গণহত্যার ঘটনা দেখা গিয়েছে। ইহুদীদের হত্যার সময়ে জেনোসাইড শব্দ প্রথম ব্যবহৃত হয়েছিল। পরবর্তীকালে, গ্রীক গণহত্যা, আর্মেনীয় গণহত্যা, এশিরিয়ান গণহত্যা, ইউক্রেনীয় গণহত্যা, বাংলাদেশ গণহত্যা, কম্বোদীয় গণহত্যা, গুয়েটেমালান গণহত্যা, কুর্ডীয় গণহত্যা, বস্নীয় গণহত্যা, রোবণ্ডন গণহত্যা ইত্যাদি বিভিন্ন ঘটনা খবরে এসেছে।

ইতিহাসে গণহত্যা[সম্পাদনা]

সোভিয়েট নগ্ন যুদ্ধবন্দী গণহত্যা—। "৩.৩ মিলিয়নের হত্যা হওয়া সোভিয়েট যুদ্ধ বন্দী এখনো পর্যন্ত কম জ্ঞাত আধুনিক গণহত্যাসমূহের অন্যতম; এযাবৎ এর ওপরে কোনো পূর্ণ দৈর্ঘ্যের গ্রন্থ নেই।"Adam Jones[৯]

গণহত্যার ধারণা অতীতের বহু ঘটনায় প্রযোজ্য গণ্য করা হয়েছে। সিপিপিসিজির মতে, "ইতিহাসের প্রতিটি কালে গণহত্যা মানবতার জন্য বৃহত্‌ ক্ষতি সাব্যস্ত করেছে।"

অনেক দেশে গণহত্যাকে স্বীকৃতি প্রদান করা বা না করা অবৈধ। যেমন, কখনো ইউরোপীয় দেশে ইহুদীদের গণহত্যা এবং আর্মেনীয় গণহত্যাকে মিথ্যা আখ্যা দেওয়া নিষেধ। অন্যদিকে, তুরস্কে আর্মেণীয়দের, গ্রীকদের, এশিরীয়দের এবং মেরোনাইটদের গোষ্ঠীগত হত্যাকে গণহত্যা বলা আর্টিকল ৩০১র মতে দণ্ডনীয়।[১০]

উইলিয়াম রুবিনষ্টাইনের মতে, প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের পরে শাসনের অভিজাত ধরণ লোপ পাওয়ার পরই বিংশ শতকের গণহত্যাসমূহের আত্মপ্রকাশ ঘটে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Duwe, Grant (২০০৭)। Mass Murder in the United States। Jefferson, NC: McFarland & Company। পৃষ্ঠা 15। আইএসবিএন 978-0-7864-3150-2 
  2. Aggrawal, A. (২০০৫)। "Mass Murder"। Payne-James JJ; Byard RW; Corey TS; Henderson C। Encyclopedia of Forensic and Legal Medicine (PDF)3। Elsevier Academic Press। আইএসবিএন 978-0-12-547970-7। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মার্চ ২০১৬ 
  3. What is genocide? by Genocide Watch
  4. "Legal definition of genocide" (PDF)United Nations। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১৬  একের অধিক |accessdate= এবং |access-date= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  5. What Is Genocide?
  6. "Serial Murder - Multi-Disciplinary Perspectives for Investigators" (PDF)Federal Bureau of Investigation। ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৭, ২০১৬ 
  7. Clues to Mass Rampage Killers: Deep Backstage, Hidden Arsenal, Clandestine Excitement, Randall Collins, The Sociological Eye, September 1, 2012
  8. Best, Joel (২০১৩-০৬-১৬)। "How Should We Classify the Sandy Hook Killings? : The social construction of a mass shooting epidemic"Reason। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-১৮it is possible to characterize Newtown as an instance of a lot of different social problems: as a mass shooting; as a school shooting; as mass murder; as workplace violence (remember the staff members who were killed were at work); as a crime involving an assault rifle; as a case of a mentally ill person committing acts of violence; and so on. We expect journalists to have a sort of sociological imagination, to help us understand incidents as instances. And we can understand why advocates for gun control, mental health, or other causes might favor particular labels but we need to appreciate there is no One True Classification, that the categories we use are merely tools that may help us better understand what [is] happening in our society. 
  9. Adam Jones (2010), Genocide: A Comprehensive Introduction (2nd ed.), p.271.
  10. Pair guilty of 'insulting Turkey', BBC News, 11 October 2007.

বাহ্যিক সংযোগ[সম্পাদনা]