পলেট গডার্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পলেট গডার্ড
Paulette Goddard-publicity-2.JPG
Studio publicity portrait from the 1940s
স্থানীয় নামPaulette Goddard
জন্মমারিও লেভি[ক]
(১৯১০-০৬-০৩)৩ জুন ১৯১০[খ]
হোয়াইটস্টোন, কুইন্স, নিউ ইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
মৃত্যু২৩ এপ্রিল ১৯৯০(১৯৯০-০৪-২৩) (৭৯ বছর)
রঙ্কো সোপ্রা আস্কোনা, টিসিনো, সুইজারল্যান্ড
মৃত্যুর কারণহৃদ রোগ ও এম্ফাইজিমা
সমাধিরঙ্কো ভিলেজ সিমেট্রি, টিসিনো, সুইজারল্যান্ড
জাতীয়তামার্কিন
পেশাঅভিনেত্রী, প্রযোজক, নৃত্যশিল্পী, মডেল
কার্যকাল১৯২৬–১৯৭২
দাম্পত্য সঙ্গীএডগার জেমস (বি. ১৯২৭; বিবাহ বিচ্ছেদ ১৯৩২)
চার্লি চ্যাপলিন (বি. ১৯৩৬; বিবাহ বিচ্ছেদ ১৯৪২)
বুর্জেস মেরেডিথ (বি. ১৯৪৪; বিবাহ বিচ্ছেদ ১৯৪৯)
এরিক মারিয়া রিমার্ক (বি. ১৯৫৮; বিবাহ বিচ্ছেদ ১৯৭০)

পলেট গডার্ড (ইংরেজি: Paulette Goddard; জন্ম: মারিও লেভি; ৩ জুন, ১৯১০২৩ এপ্রিল, ১৯৯০) ছিলেন একজন মার্কিন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, প্রযোজক, ফ্যাশন মডেল, ও নৃত্যশিল্পী। তিনি জিগফেল্ড তরুণী হিসেবে ব্রডওয়ে কয়েকটি মঞ্চনাটকে অভিনয় করেন। ১৯৪০ এর দশকে তিনি প্যারামাউন্ট পিকচার্সের অন্যতম তারকা হয়ে ওঠেন। তার উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে চার্লি চ্যাপলিনের মডার্ন টাইমস এবং দ্য গ্রেট ডিক্টেটর। তিনি সো প্রাউডলি উই হেইল! (১৯৪৩) চলচ্চিত্রে তার অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। চ্যাপলিন, বুর্জেস মেরেডিথ ও এরিক মারিয়া রিমার্কের সাথে তার বিবাহ হয়েছিল এবং তিনজনের সাথেই তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়।

জীবনী[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মারিও লেভি ১৯১০ সালের ৩ জুন জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা জোসেফ রাসেল লেভি (১৮৮১-১৯৫৪) ছিলেন সল্ট লেক সিটির একজন প্রসিদ্ধ ইহুদি চুরুট উৎপাদনকারী এবং তার মাতা আল্টা মে গডার্ড (১৮৮৭-১৯৮৩) ছিলেন এপিস্কোপালিয়ান ইংরেজ।[১১][১২] ১৯০৮ সালে তার পিতামাতা বিয়ে করেন এবং মারিও যখন খুব ছোট তখন তারা আলাদা হয়ে যান। ১৯২৬ সালে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ চূড়ান্ত হয়। গডার্ড বলেন যে তার পিতা তার মা ও তাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিল, কিন্তু লেভি বলে আল্টা তার সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছিল।[১১] তার মা তাকে লালন পালন করে বড় করে তোলে। ১৯৩০ এর দশকের শেষের দিকে গডার্ড যখন খ্যাতি অর্জন করে তখন তার পিতার সাথে তার সাক্ষাৎ হয়।[১৩]

মঞ্চে অভিনয় ও প্রথম বিবাহ[সম্পাদনা]

১৯২৬ সালে ব্রডওয়ের জিগফিল্ডের নো ফুলিন মঞ্চনাটকে নৃত্যশিল্পী হিসেবে তার মঞ্চে অভিষেক হয়। এই নাটকে অভিনয় করতে গিয়ে তিনি প্রথমবারের মত তার "পলেট গডার্ড" নাম ব্যবহার করেন।[১৪] জিগফিল্ড পরবর্তীতে গীতিনাট্য রিও রিটা-এ অভিনয়ের জন্য তার সাথে চুক্তি করেন। নাটকটি ১৯২৭ সালে ফেব্রুয়ারিতে মঞ্চস্থ হয়, কিন্তু মাত্র তিন সপ্তাহ অভিনয়ের পর তিনি আর্চি সেলউইনের দি আনকঙ্কারেবল মেল নাটকে অভিনয়ের জন্য এই নাটক ত্যাগ করে চলে যান।[১৫] নাটকটি ফ্লপ হয় এবং আটলান্টিক সিটিতে উদ্বোধন হওয়ার মাত্র তিন দিনের মধ্যে নাটকটির মঞ্চায়ন বন্ধ হয়ে যায়।[১৫]

নাটকটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার কিছু দিন পর চার্লস গডার্ডের মাধ্যমে তার এডগার জেমসের সাথে সাক্ষাৎ হয়। জেমস ছিলেন নর্থ ক্যারোলিনার অ্যাশভিলের সাউদার্থ লাম্বার কোম্পানির প্রধান।[১৬] ১৯২৭ সালের ২৮ জুন নিউ ইয়র্কের রাইয়ে জেমসের সাথে তার বিয়ে হয়। ১৭ বছর বয়সী গডার্ডের তুলনায় জেমস বয়সে অনেক বড় ছিলেন। তাদের এই বিয়ে দীর্ঘস্থায়ী হয় নি। ১৯২৯ সালে নেভাডার রেনোতে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয় এবং গডার্ড মামলার নিষ্পত্তিতে ৩৭৫,০০০ মার্কিন ডলার গ্রহণ করেন।[১৬]

মামলা ও নিষ্পত্তি[সম্পাদনা]

১৯৩৮ সালে কলিয়ার্স-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গডার্ড জানায় যে তিনি লেভির ঔরসজাত সন্তান নন।[১৩] প্রত্যুত্তরে, লেভি তার মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা করে এবং দাবী করে যে এই সাক্ষাৎকারের ফলে তার চাকরি চলে গেছে ও তিনি আর্থিক ক্ষতিপূরণের দাবী জানান। ১৯৪৫ সালের ১৭ ডিসেম্বর লাইফ সাময়িকীতে অলিভার জেনসেন এক নিবন্ধে লিখেন গডার্ড এই মামলায় হেরে যান এবং তার পিতাকে তার প্রতি সপ্তাহে ৩৫ ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য হন।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

১৯৭৫ সালে গডার্ড স্তন ক্যান্সারের চিকিৎসাধীন ছিলেন এবং সুস্থ হয়ে ওঠেন।[১৭] ১৯৯০ সালের ২৩ এপ্রিলে ৭৯ বছর বয়সে তিনি সুইজারল্যান্ডের তার নিজ বাড়িতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান।[১৮] তাকে রঙ্কো ভিলেজ সিমেট্রিতে তার মা ও রিমার্কের পাশে সমাহিত করা হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. তার জন্মনাম হিসেবে আরও উল্লেখ পাওয়া যায়: মারিও লেভি;[১][২][৩][৪] পলিন মারিও লেভি;[৫] মারিও গডার্ড লেভি[৬][৭][৮]
  2. There are discrepancies regarding her year of birth. According to biographer Julie Gilbert, she was born in 1910.[৯] Legal documents and a passport listed her birth year as 1905 and 1915.[৯] In a 1945 interview with Life, Goddard claimed she was born in 1915.[৯][১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Thomson, David. The New Biographical Dictionary of Film: Completely Updated and Expanded, Knopf Doubleday (2010) p. 385
  2. Brando, Marlon. Brando: Songs My Mother Taught Me, Random House Publ. (1994) p. 79
  3. Hale, Georgia. Charlie Chaplin: Intimate Close-Ups, Scarecrow Press (1999) p. 38
  4. Friedrich, Otto. City of Nets: A Portrait of Hollywood in the 1940's, Univ. of California Press (1986) p. 187
  5. Booker, Keith M. Historical Dictionary of American Cinema, Scarecrow Press (2011) p. 150
  6. Scovell, Jane. Oona Living in the Shadows: A Biography of Oona O'Neill Chaplin, Grand Central Publishing (1998) ebook
  7. Chaplin, Lita Grey. Wife of the Life of the Party: A Memoir, Scarecrow Press (1998) p. 115
  8. Stange, Ellen. New York State of Fame, Page Publishing (2015) ebook
  9. Rimler, Walter (২০০৯)। George Gershwin: An Intimate Portrait (ইংরেজি ভাষায়)। University of Illinois Press। পৃষ্ঠা 147। আইএসবিএন 0-252-09369-0 
  10. Jensen, Oliver (ডিসেম্বর ১৭, ১৯৪৫)। "The Mystery of Paulette Goddard"Life (ইংরেজি ভাষায়)। Time Inc। 19 (25): 124। আইএসএসএন 0024-3019The interview moved on to her date of birth. It was pointed out that the dates most frequently given were 1911, 1905, and 1914. "Isn't that funny", observed Miss Goddard, "because I was actually born in 1915." 
  11. Gilbert, Julie (1995). Opposite Attraction – The Lives of Erich Maria Remarque and Paulette Goddard. Pantheon Books; আইএসবিএন ০-৬৭৯-৪১৫৩৫-১, pp. 37–41 for parents' names and backgrounds, as well as Alta's birth year; pp. 159–60 for Levy's death year and p. 477 for Alta's death year.
  12. Harms, John W.; Goddard Harms, Pearl (১৯৯০)। The Goddard Book (ইংরেজি ভাষায়)। 2। Gateway Press। পৃষ্ঠা 1364। 
  13. Gilbert, pp. 159–60
  14. Gilbert, p. 43
  15. Gilbert, p. 46
  16. Gilbert, pp. 46–51.
  17. "BOOKS OF THE TIMES; Made for Each Other, and Unfortunately So"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। আগস্ট ১৭, ১৯৯৫। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  18. Details of death of Paulette Goddard, paulette-goddard.fr; accessed April 25, 2014.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]